২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

অদক্ষ চালক এবং ফিটনেসবিহীন গাড়ি

শরীফ উল্লাহ

জনসংখ্যা তথা যাত্রী সংখ্যা অনুযায়ী রাজধানীতে বাড়ছে না গণপরিবহন। ঢাকার রাস্তায় চোখ রাখলেই বোঝা যায় গণপরিবহন ও ব্যক্তি মালিকানাধীন গাড়ির অসম অনুপাত রিরাজমান।অফিস ছুটির সময় অপেক্ষার দীর্ঘ সিরিয়াল একটি বাস বা মিনিবাসের জন্য। একটা গাড়ি পাওয়া গেলেই হুলস্থুল লেগে যায় যাত্রীদের মাঝে। কে কার আগে উঠবে। সিট যেন সোনার হরিণ। সিট না পাওয়া যাত্রীরা ঝুলতে ঝুলতে অবস্থায় একস্থান থেকে অন্যস্থানে পাড়ি জমায়। রাস্তায় বিপুল সংখ্যক পথচারীর জন্য পথ চলা কঠিন হয়ে পড়ে। আবার গাড়িতে চেপে বসলে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাগে যানজট থেকে মুক্তি পেতে। অনেক গণপরিবহনের চালক দক্ষ নয়। তাদের কারণে প্রতিদিন দুর্ঘটনা ঘটছে। ফিটনেসবিহীন লক্কড়-ঝক্কড় গাড়ির ছড়াছড়ি। দক্ষ চালকের হাতে গাড়ির স্টিয়ারিং তুলে না দেওয়ার ফলে দুর্ঘটনা ঘটে থাকে এটা জেনেও অনেক হেলপার রাতারাতি চালক বনে যাচ্ছে। পরিবহন মালিকরা মুনাফার লোভে অনিয়মকে নিয়ম করে তুলেছেন। পত্রিকায় দেখেছি অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার কারণে ভ্রাম্যমান আদালত এক পরিবহনশ্রমিককে শাস্তি দেন। এর প্রতিবাদে পরিবহনশ্রমিকেরা বিভিন্ন এলাকায় রাস্তার ওপর গাড়ি দাঁড় করিয়ে রাখেন। এতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় ভোগান্তিতে পড়েন যাত্রীরা। এটা তো ঠিক নয়। গণপরিবহন ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনার জন্য সব পক্ষের সচেতনতা ও সদিচ্ছা জরুরি। হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর থেকে