১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আপীলে জিতলেই সুযোগ পাবেন প্লাতিনি

  • ফিফা সভাপতি নির্বাচন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে অবস্থান করছেন উয়েফার সভাপতি মিশেল প্লাতিনি। নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন কী না এ বিষয়টি নিয়েই এখনও চিন্তিত সাবেক ফরাসি ফুটবলের এই তারকা। তবে বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফার পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, কেবল ৯০ দিনের নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে করা আপীলে জয় পেলেই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করতে পারবেন প্লাতিনি। আগামী ২৬ অক্টোবরের মধ্যেই ফিফার সভাপতি পদে নির্বাচনকারীদের নিবন্ধন করতে হবে। ইতোমধ্যেই আনুষ্ঠানিকভাবে নিবন্ধন করে ফেলেছেন প্রিন্স আলী বিন হুসেইন। যিনি গত নির্বাচনে সেপ ব্লাটারের কাছে হেরেছিলেন। তার সঙ্গে ত্রিনিদাদ এবং টোবাগোর সাবেক অধিনায়ক ডেভিড নাখিদও আনুষ্ঠানিকভাবে ফিফার সভাপতি নির্বাচনের সভাপতি পদের জন্য যাত্রা শুরু করে দিয়েছেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত সংশয়ে প্লাতিনির নির্বাচনে অংশগ্রহণ। যদিও বা সেপ ব্লাটারের উত্তরসূরি হিসেবে প্লাতিনিকেই সবচেয়ে যোগ্য বলে মনে করা হচ্ছে।

এদিকে দুইদিন আগেই সেপ ব্লাটারের কাছ থেকে টাকা নেয়ার কথা স্বীকার করেছেন প্লাতিনি। ২০১১ সালে ফিফা সভাপতি ব্লাটারের কাছ থেকে ২০ লক্ষ ডলার অবৈধভাবে নিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু ওই লেনদেনের কোনও বৈধ কাগজপত্র নেই। ওই টাকা লেনদেনের জন্যই ব্লাটার ও প্লাতিনিকে তিন মাস নিষিদ্ধ করে ফিফার এথিক্স কমিটি। আর নিষেধাজ্ঞার পর এই বিষয়ে প্রথম মুখ খুলেন প্লাতিনি। তিনি বলেন, ‘ব্লাটারের সঙ্গে আমার মৌখিক চুক্তি হয়েছিল। সুইস আইন আনুয়ায়ী মৌখিক চুক্তির মূল্য লিখিত চুক্তির মতোই। তবে এখন মনে হচ্ছে আমাকে রাজনৈতিকভাবে কলঙ্কিত করার জন্যই এই চুক্তি হয়েছিল।’ বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী দুই সংগঠক ব্লাটার ও প্লাতিনি নিষিদ্ধ থাকায় নির্বাচন সঠিক সময়ে হবে কী না সে নিয়েও অনেকের মনে সংশয় ছিল। কিন্তু আগামী বছর ফেব্রুয়ারিতে সেপ ব্লাটারের পরিবর্তে নতুন সভাপতি নির্বাচনের বিষয়টি যে সঠিক সময়ে হবে সে বিষয়ে কোন সন্দেহ নেই। এ বিষয়টি আবারও ফিফার কার্যনির্বাহী কমিটিতে নিশ্চিত করা হয়েছে। এক বিবৃবিতে বিশ্ব ফুটবলের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা জানিয়েছে, আগামী বছর ২৬ ফেব্রুয়ারি জুরিখে এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর অর্থ হচ্ছে আগামী সোমবার পর্যন্ত সম্ভাব্য প্রার্থীরা তাদের আগ্রহ লিপিবদ্ধ করার শেষ সময় পাচ্ছে। ১৯৯৮ সাল থেকে ৭৯ বছর বয়সী সেপ ব্লাটার বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে শক্তিশালী এই পদে আসীন ছিলেন।

দুর্নীতির অভিযোগে চলমান তদন্তের স্বার্থেই মূলত ব্লাটারসহ উয়েফা সভাপতি প্লাতিনিকে তিন মাসের জন্য সবধরনের কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করে। এরপর গত ৯ অক্টোবর থেকে ফিফার কার্যনির্বাহী কমিটিতে একটার পর একটা বিরোধ লেগেই আছে। মে মাসের নির্বাচনে ব্লাটারের কাছে পরাজিত প্রিন্স আলি বিন হুসেইন এবং ত্রিনিদাদ ও টোবাগোর সাবেক অধিনায়ক ডেভিড নাখিদের অংশগ্রহণ করার কথা সবারই জানা। এরপরই আছেন প্লাতিনি। শুধু তাই নয়, বহিষ্কারাদেশের আগ পর্যন্ত ব্লাটারের উত্তরসূরি হিসেবে মিশেল প্লাতিনিকেই সবচেয়ে এগিয়ে রাখছেন ফুটবলবোদ্ধারা। এদিকে সুইজারল্যান্ডের সাবেক ডিফেন্ডার র‌্যামন ভেগা ও এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের সভাপতি শেখ সালমান বিন ইব্রাহিম আল খলিফা সভাপতি পদে নির্বাচনের জন্য সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে আগ্রহ জানিয়েছেন।