২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বগুড়ায় বীরশ্রেষ্ঠ স্কোয়ার পরিষ্কারের দায়িত্ব নিল ফটোসাংবাদিক

সমুদ্র হক ॥ বগুড়ার ফটোসাংবাদিকরা সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগে সামাজিক দায়বদ্ধতায় প্রমাণ করে দিয়েছেন ছোট্ট উদ্যোগ কত সফলভাবে শহর পরিচ্ছন্ন রেখে সকল অবৈধ কাজ দূর করা যায়। শহরের কেন্দ্রস্থল সাতমাথায় স্থাপিত যে বীরশ্রেষ্ঠ স্কোয়ার মাদকাসক্ত ও অসামাজিক কাজের আখড়ায় পরিণত হয়ে স্মৃতিস্তম্ভের ভেতরে ও চারপাশে নোংরা হয়ে ছিল, তা এখন পরিষ্কার। সামাজিক অপরাধীদের তাড়িয়ে দেয়া হয়েছে। যে স্মৃতিস্তম্ভের চারধারে রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ব্যানার-ফেস্টুনে মুক্তিযুদ্ধের বীরসন্তান সাত বীরশ্রেষ্ঠের প্রতিকৃতি ঢাকা পড়ে শ্রদ্ধা ও সম্মানের জায়গাটিকে অমর্যাদা করা হয়েছিল তাও এখন মুক্ত। কোন প্রতিষ্ঠান তা যেই হোক সেখানে ব্যানার, ফেস্টুন আঁটানোর সাহস করে না।

গত এক যুগ ধরে যে কাজটি করতে পারেনি বগুড়া পৌরসভা সেই কাজ কয়েক তরুণের ছোট্ট উদ্যোগেই সফল হয়েছে। বগুড়ার সর্বস্তরের মানুষ ফটোসাংবাদিকদের এই মহৎ কাজে শুধু প্রশংসাই করেনি পরিচ্ছন্নতার দিনে তারা নিজ উদ্যোগে এগিয়ে এসেছে। সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। পৌর মেয়র এ্যাডভোকেট মাহবুবুর রহমান এই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় অনেকটা সময় ধরে তাকিয়ে থাকেন, কখনও আবেগ তাড়িত হয়ে ফটোসাংবাদিকদের ডেকে নিয়ে তারুণ্যের উদ্দীপনাকে স্বাগত জানান। যত সহযোগিতা প্রয়োজন তা দেয়ার অঙ্গীকার করেন। প্যানেল মেয়র আমিনুল ফরিদ সাংবাদিকদের সঙ্গে থেকে সহযোগিতা দেন। প্রায় এক মাস আগে বগুড়া ফটোসাংবাদিক এ্যাসোসিয়েশন (বিপিজেএ) পৌর মেয়রের কাছে সম্পূর্ণ নিজেদের উদ্যোগে বীরশ্রেষ্ঠ স্কোয়ার রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব চাইলে মেয়র পূর্ণ সহযোগিতায় লিখিত দায়িত্ব দেন। তারপর এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি শফিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ঠা-া আজাদের নেতৃত্বে এই তরুণরা মাঠে নামে। একটি উপকমিটি করা হয়। যেখানে থাকে বজলুর রশিদ সুইট, জাফর আহমেদ মিলন, বিমু রহমান, সঙ্গীত রায় বাপ্পি, কাওসার উল্লাহ, আল আমিন। সাতমাথার কাছেই গাড়ি পার্কিংয়ের একটি শেডে তারা অবস্থান নেন। রাতে পালাক্রমে জেগে থেকে মাদকাসক্ত ও সামাজিক অপরাধীদের কখনও নিজেরা কখনও পুলিশের সহযোগিতায় তাড়িয়ে দেয় ও আইনের হাতে সোপর্দ করে। ব্যানার-ফেস্টুন খুলে ফেলে। ভেতরে বাইরে পৌরসভার সুইপার ও ঝাড়ুদার দিয়ে পরিষ্কার করে। বগুড়া সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ সামাজিক সংগঠনগুলোও সহযোগিতা দিতে এগিয়ে এসেছে। বিপিজেএর সাধারণ সম্পাদক ঠা-া আজাদ বললেন, এই কার্যক্রমসহ সমাজ গঠনে অন্যান্য কার্যক্রমও হাতে নেয়া হবে।

নির্বাচিত সংবাদ
এই মাত্রা পাওয়া