২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রথম দিনেই অলআউট শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আনকোরা নতুন, কিন্তু দারুণ কার্যকরী অস্ত্রটা লুকিয়ে রেখেছিল সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ। মাত্র ১৫টি প্রথমশ্রেণীর ক্রিকেট খেলা জোমেল ওয়ারিকান অবশেষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পদার্পণ করলেন। আর ২৩ বছর বয়সী বাঁহাতি স্পিনারের আবির্ভাবটা দারুণ হলো। অদেখা অস্ত্রের কাছে নতি স্বীকার করলো শ্রীলঙ্কার ব্যাটসম্যানরা। কলম্বোর পি সারা ওভালে শুরু হওয়া দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনেই তাই স্বাগতিকরা গুটিয়ে গেল মাত্র ২০০ রানে। ওয়ারিকান একাই নিলেন ৪ উইকেট। লঙ্কানদের পক্ষে একাই লড়াই করা মিলিন্ডা শ্রীবর্ধনে সর্বোচ্চ ৬৮ রান করেন। জবাব দিতে নেমে অবশ্য শুরুটা তেমন সুখকর হয়নি ক্যারিবীয়দেরও। দিনশেষে ১৭ রান তুলতেই ওপেনার শাই হোপের উইকেট হারিয়েছে তারা। প্রথম দিন শেষে এখনও ১৮৩ রানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা। সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডার হিসেবে স্বীকৃত কিংবদন্তি গ্যারি সোবার্স দিনের শুরুতেই টেস্ট ক্যাপ পরিয়ে দিয়েছিলেন ওয়ারিকানকে। আর সেটাই যেন আশীর্বাদ হয়েছে এ তরুণের জন্য। অভিষেক ম্যাচে উইকেট পেতে অবশ্য কিছুটা অপেক্ষাই করতে হয়েছিল তাকে। কুসাল পেরেরাকে নিজের বলে নিজেই ক্যাচ লুফে ফিরিয়ে দেন সাজঘরে। বিপদটা এর আগেই শুরু হয়েছিল লঙ্কান শিবিরে। আর সেটা ডেকে এনেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের পেসাররাই। জেরেমি টেইলরের খেলা নিয়ে কিছুটা সংশয় ছিল হুট করে কিছুটা গ্রোয়েন ইনজুরি সমস্যার কারণে। কিন্তু তিনি গড়ে ১৪০ কিলোমিটার বেগে বল ছুঁড়েছেন সঠিক লাইন লেন্থে। প্রথম ওভারেই তিনি ফিরিয়ে দেন ওপেনার কুসাল সিলভাকে। শুরুতেই পাওয়া আঘাতটা কাটিয়ে উঠতে পারেনি শ্রীলঙ্কা অপর দুই পেসার কেমার রোচ ও অধিনায়ক জেসন হোল্ডারের দুরন্ত বোলিংয়ের মুখে। নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়েছে তারা। প্রথম টেস্টে দারুণ শতক হাঁকানো দুই ব্যাটসম্যান ওপেনার দিমুথ করুনারতেœ (১৩) ও দিনেশ চান্দিমাল (২৫) বেশিদূর যেতে পারেননি। করুনারতেœকে শিকার করেন হোল্ডার আর চান্দিমালকে সাজঘরে পাঠিয়ে ক্যারিবীয় শিবিরে স্বস্তি আনেন টেইলর।

পেসার টেইলরের শিকার এ দু’টিই। লঙ্কান অধিনায়ক এ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসকে নিজের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত করেন হোল্ডার। সবমিলিয়ে পেসারদের দাপটে ৯০ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে চরম বিপর্যয়ে পড়ে লঙ্কানরা। সেটা আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি তারা। পেসাররা যে তা-ব শুরু করেছিলেন, পরবর্তীতে সেখানে আতঙ্কের কারণ হিসেবে আবির্ভূত হন ওয়ারিকান। তিনি একে একে ফিরিয়ে দেন ৪ ব্যাটসম্যানকে। যদি একাই লড়ে যাচ্ছিলেন শ্রীবর্ধনে। কিন্তু ১১১ বলে ৬ চার ও ২ ছক্কায় ৬৮ রান করার পর তাকেও সাজঘরে পাঠিয়ে লঙ্কানদের সব প্রতিরোধ ভেঙ্গে দেন ওয়ারিকান। মাত্র ২০০ রানেই থেমে যায় শ্রীলঙ্কার প্রথম ইনিংস। ৬৭ রানে ৪ উইকেট নেন অভিষেক টেস্টে নামা ওয়ারিকান। দিনের খেলা আগেভাগেই শেষ হয়েছে। এর আগেই ক্যারিবীয়রা ব্যাট হাতে নামে। তাদের শুরুটাও প্রথম ওভারেই উইকেট খুইয়ে। ধাম্মিকা প্রসাদ ফিরিয়ে দেন হোপকে (৪)। দিন শেষে ১ উইকেটে ১৭ রান ওয়েস্ট ইন্ডিজের।