১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আগামী ১০ বছরে পঞ্চম পরমাণু শক্তিধর দেশ হবে পাকিস্তান!

আগামী ১০ বছরের মধ্যে বিশ্বের শীর্ষ পাঁচ পরমাণু শক্তিধরের তালিকায় ঢুকে পড়তে চলেছে পাকিস্তান। একটি মার্কিন প্রতিবেদনে চাঞ্চল্যকর এই তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। ‘পাকিস্তানী নিউক্লিয়ার ফোর্সেস ২০১৫’ নামের এই সাম্প্রতিক রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে আমেরিকার ‘বুলেটিন অব দ্য এ্যাটমিক সায়েন্টিস্টস’ পত্রিকায়। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা ও ওয়েবসাইটের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এই মুহূর্তে পাকিস্তানের হাতে ১১০ থেকে ১৩০টি পরমাণু যুদ্ধাস্ত্র রয়েছে। ২০১১ সালে যে সংখ্যাটা ছিল ৯০ থেকে ১১০-এর মধ্যে। ২০২৫ সালে পাকিস্তানের হাতে মজুদ পরমাণু অস্ত্রের সংখ্যা ২২০ থেকে ২৫০-এর মধ্যে পৌঁছে যাবে। এই মুহূর্তে বিশ্বের প্রথম পাঁচ পরমাণু শক্তিধর দেশ হলো রাশিয়া, আমেরিকা, ফ্রান্স, চীন ও ব্রিটেন। তারপরের সারিতে আছে পাকিস্তান, ভারত, ইসরাইল, উত্তর কোরিয়া ও ইরান। মার্কিন গবেষকদের ধারণা, আগামী দশ বছরে শীর্ষ পাঁচের তালিকায় ঢুকে পড়বে পাকিস্তান। পরমাণু ক্ষেত্রে গত ২০ বছরে পাকিস্তানের তৎপরতা এবং সাফল্যের আলোকে এ দাবি করা হয়েছে। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়েছে, পাকিস্তানে প্লুটোনিয়াম উৎপাদনে নিয়োজিত চারটি পরমাণু চুল্লী ও ইউরেনিয়াম স্থাপনা রয়েছে। প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়েছে, ভারতীয় আগ্রাসন ও আধিপত্য ঠেকাতে পাকিস্তান স্বল্পপাল্লার পরমাণু বোমাবাহী ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে। এতে পাকিস্তানের নাসের বা হাতেফ-৯ নামের নিরেট জ্বালানি পরিচালিত ক্ষেপণাস্ত্রের কথা তুলে ধরা হয়েছে। পরমাণু বোমাবাহী এ ক্ষেপণাস্ত্রের পাল্লা মাত্র ৬০ কিলোমিটার এবং এটি দিয়ে ভেতরের কোন কৌশলগত অবস্থানেই হামলা চালানো যাবে না।