১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কলকাতা মোহামেডান বাজান শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ ড্র

কলকাতা মোহামেডান বাজান শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচ ড্র

রুমেল খান, চট্টগ্রাম থেকে ॥ ‘শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ ফুটবল টুর্নামেন্টে’ এ পর্যন্ত যে ক’টি ম্যাচ হয়েছে তার মধ্যে সেরা ম্যাচটিই হয়ে গেল শুক্রবার। ‘এ’ গ্রুপের ম্যাচে (রাতে) ভারতের কলকাতা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ৩-৩ গোলে ড্র করে আফগানিস্তানের ডি স্পিন ঘার বাজান ফুটবল ক্লাবের সঙ্গে। প্রথমার্ধে খেলার স্কোর ছিল ১-১।

মোহামেডানের কোচ সুব্রত ভট্টাচার্য ম্যাচ শেষে বলেন, তিনবার পিছিয়েও ফিরে এসেছি। এটাই ছিল টুর্নামেন্টের সেরা ম্যাচ। অনেক জায়গায় সমস্যা আছে। প্রতিপক্ষকে দুটো গোল গিফট করেছি। তারপরও জেতার বিষয়ে আশাবাদী ছিলাম। এ ম্যাচের ভুলগুলো পরের ম্যাচে শুধরাতে হবে। পরের ম্যাচ ঢাকা মোহামেডানের বিরুদ্ধে। আশা করি আমরা জিতব।

বাজানের কোচ ওয়াহিদুল্লাহ্ বলেন, এটা বেশ উত্তেজনার ম্যাচ ছিল। কলকাতা মোহামেডান প্রথম ম্যাচে হারলেও এ ম্যাচে তারা ড্র করে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। ইনশাল্লাহ পরের ম্যাচে জিতে আমরা সেমিতে যেতে পারব।

শ্রীলঙ্কার সলিড স্পোর্টস ক্লাবের কাছে প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে ‘ব্ল্যাক প্যান্থার্স’ খ্যাত কলকাতা মোহামেডান হেরেছিল। আর আফগানিস্তানের ডি স্পিন ঘার বাজান ফুটবল ক্লাবের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয় ‘ব্ল্যাক এ্যান্ড হোয়াইট’ খ্যাত ঢাকা মোহামেডান।

এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে দারুণ উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে ১২ মিনিটে গোল করে এগিয়ে যায় বাজান। আনোয়ার আকবরীর গোলে এগিয়ে যায় তারা (১-০)। মোস্তফার থ্রু থেকে দূরপাল্লার শটে বল জালে জড়ান এই মিডফিল্ডার। ৩৫ মিনিটের সময় হঠাৎ করেই ফ্লাডলাইটের আলো কমে যাওয়ায় ১২ মিনিট খেলা বন্ধ রাখেন রেফারি। ৪১ মিনিটে সমতা ফেরায় মোহামেডান। স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে ম্যাচে ফেরান ওমোলাজা নুরাইন (১-১)। ৪৭ মিনিটে বাজানকে এগিয়ে নেন ফারদিন হাকিমি (২-১)। দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে একক চেষ্টায় বল নিয়ে গোলরক্ষক সাদেক উদ্দিনের মাথার ওপর দিয়ে বল জালে পাঠান তিনি। ৭০ মিনিটে মোহামেডানের দীপকের ব্যাকপাসে বল পেয়েই বক্সের ঠিক ভেতর থেকে তীব্র শটে লক্ষ্যভেদ করেন তাউরেস টেকোমলে (২-২)। খেলা শেষ হওয়ার মিনিটখানেক আগে বাজানের বদলি ফরোয়ার্ড রেজা আল্লাহ ইয়ারির গোলে আবারও লিড নেয় বাজান (৩-২)। পরক্ষণেই টাউরেস টেকোমলের তৃতীয় গোলে আবারও সমতায় ফিরে চমক দেখায় মোহামেডান। কলকাতা মোহামেডানের এ ড্রয়ে অবশ্য লাভবান হয়েছে ঢাকা মোহামেডানের!