১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় প্রতিবন্ধী নারীকে ব্যাপক নির্যাতন ॥ চুল কর্তন

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাইবান্ধা, ৩১ অক্টোবর ॥ কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় চুরির অপবাদ দিয়ে এক প্রতিবন্ধীকে পানিতে ফেলে ব্যাপক পেটানোর পর চুল কেটে দিয়েছে প্রভাবশালী রিজু মিয়া। এই বর্বব ঘটনা ঘটে গাইবান্ধার পলাশবাড়িতে। পুলিশ অভিযুক্ত রিজু মিয়াকে গ্রেফতার করেছে।

পলাশবাড়ি থানার ওসি মজিবুর রহমান জানান, জামালপুর গ্রামের রিজু মিয়া বিত্তবান ও প্রভাবশালী। তার পাশের বাড়ির আনোয়ার হোসেনের প্রতিবন্ধী মেয়ে শিল্পী খাতুনের (২২) কিছুদিন আগে বিয়ে হয় শারীরিক প্রতিবন্ধী বুলু মিয়ার সঙ্গে। শিল্পী চলতে ফিরতে পারে না। বিয়ের পর থেকে বুলু মিয়া স্ত্রী শিল্পীকে নিয়ে শ্বশুর বাড়িতে বসবাস করেন। কিন্তু এলাকার প্রভাবশালী রিজু মিয়ার কুনজর পড়ে শিল্পী খাতুনের ওপর। তার কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় রিজু মিয়া তার ঘর থেকে টেলিভিশন চুরির অভিযোগ আনেন শিল্পী খাতুনের বিরুদ্ধে। তারপর শুক্রবার সন্ধ্যায় রিজু মিয়া শিল্পী খাতুনকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে আসেন। টেলিভিশন চুরির অপবাদ দিয়ে শিল্পীকে বেদম মারপিট করেন। নিরপরাধ প্রতিবন্ধী শিল্পী চুরির কথা অস্বীকার করলে তাকে আরও মারপিট করা হয়। রিজু মিয়া বাড়ির পাশের পুকুরের পানিতে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিয়ে লোকজনের সামনেই শিল্পীকে আবারও মারপিট করে। এ সময় পিতা আনোয়ার হোসেন এবং স্বামী বুলু মিয়া এগিয়ে এলে রিজু তাদেরও ধাওয়া করে তাড়িয়ে দেয়। তারপর পুকুর থেকে তুলে তাকে আবারও মারপিট করে মাথার চুল কেটে দেয়া হয়। এতে শিল্পী খাতুন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। গ্রামবাসীর সহযোগিতায় শিল্পীকে তার পিতা গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে পলাশবাড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

শরীরে আঘাতের চিহ্ন নিয়ে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে শিল্পী বলেন, আমি গরিব বলে আমার ইজ্জতের দাম নাই? প্রতিবন্ধী শিল্পী ইশারায় বলেন, আমাকে চুরির মিথ্যা অপবাদ দিয়ে পুকুরের পানিতে চুবিয়ে মারপিট করে চুল কেটে দিল, আমি এর বিচার চাই।

পলাশবাড়ি থানার ওসি মজিবুর রহমান বলেন, এ ব্যাপারে মামলা হয়েছে। অভিযুক্ত রিজু মিয়াকে গ্রেফতার করা হয়েছে।