২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ফেয়ারওয়েল ম্যাচ খেলতে চান শেবাগ

ফেয়ারওয়েল ম্যাচ খেলতে চান শেবাগ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অবসরের দশ দিন পর বিদায়ী ম্যাচ খেলার খায়েস জানিয়েছেন বীরেন্দর শেবাগ! স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমকে ভারতীয় তারকা বলেছেন, আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের শেষ টেস্টটি খেলে মাঠ থেকে ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে চান তিনি। শেবাগ ভারত তো বটেই, আধুনিক ক্রিকেটেরই অন্যতম সফল ব্যাটসম্যান। শচীন টেন্ডুলকর-শেন ওয়ার্নের মাস্টার্স চ্যাম্পিয়ন্স লীগ (এমসিএল) টি২০তে খেলার উদ্দেশ্যে গত ২০ অক্টোবর অবসরের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন। তখন কিছু না বললেও, এখন ‘ফেয়ারওয়েল’ ম্যাচ চাইছেন! বৃহস্পতিবার প্রথম টেস্ট দিয়ে শুরু ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা চার ম্যাচের দীর্ঘ সিরিজ। ৩৭ বছর বয়সী শেবাগের জন্ম দিল্লীতে। শেষ টেস্টটি হবে তারই ঘরের মাঠ ফিরোজ শাহ কোটলায়। সেখানেই ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচ খেলার আশায় শেবাগে।

‘দীর্ঘদিন খেলা ক্রিকেটারের ফেয়ারওয়েল ম্যাচ কি পাওয়া উচিত নয়! কর্তৃপক্ষ (ইন্ডিয়ান বোর্ড বিসিসিআই) চাইলে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে শেষ টেস্টে আমাকে সেই সুযোগ করে দিতে পারে।’ আবেগ মাখা কণ্ঠে বলেন শেবাগ। এরপরই কিছুটা ক্ষোভের সঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন, ‘এক যুগের ওপরে দেশের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা খেলোয়াড়ের অবশ্যই বিদায়ী ম্যাচ পাওয়া উচিত। সিরিজের শেষ টেস্টটি হবে আমার ঘরের মাঠ ফিরোজ শাহ কোটলায়। আমাকে ওই ম্যাচটাতে সুযোগ করে দেয়া যেতে পারে। যদি বিসিসিআই না পারে, তবে দিল্লী ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ থেকে তাদের উদ্বুদ্ধ করতে পারে। কেবল আমার নিজের বেলায় নয়, প্রত্যেক জাতীয় ক্রিকেটারের জন্যই এমনটা করা উচিত।’ গত বছর আইপিএল খেলার সময়ই শেবাগকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, কবে নাগাদ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেবেন?

উত্তরে তিনি বলেছিলেন, এখনও জাতীয় দলে খেলার স্বপ্ন দেখেন। সে লক্ষ্যে ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত খেলে আসছিলেন।

কিন্তু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে চলমান সিরিজের টেস্ট দলেও তাকে বিবেচনা করা হয়নি। ১৯ অক্টোবর দুবাইয়ে এমসিএলের এক অনুষ্ঠানে আচমকাই বিদায়ের ইঙ্গিত দেন। উল্লেখ্য, ওই টুর্নামেন্টে খেলতে হলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নেয়া বাধ্যতামূলক। অবসরের পরও ‘ফেয়ারওয়েল’ ম্যাচের প্রশ্ন আসত না, যদি আগে থেকেই শেবাগকে জানিয়ে দেয়া হতো, দলে তাকে আর প্রয়োজন নেই। এ প্রসঙ্গে তার যুক্তি, ‘নির্বাচকরা যদি আগেভাগেই বলতেন, আমাকে দলে রাখা হবে না। আমাকে নিয়ে তাদের কোন চিন্তাই নেই। তবে নিজে থেকে বলতে পারতাম দিল্লীতে যেকোন একটি টেস্ট খেলে অবসর নেব। তারা আমাকে সেই সুযোগটাই দেয়নি। এটা দুঃখজনক। আশায় আছি কিছু একটা হবে।’

মাত্র ১০৪ টেস্টে ৮,৫৮৬ রান নিয়ে ভারতের সর্বকালের সেরা ব্যাটসম্যানদের তালিকায় পঞ্চম স্থানে শেবাগ। দেশটির হয়ে দু-দুটি ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকানো একমাত্র ব্যাটসম্যানও তিনি। ২৫১ ওয়ানডেতে রান সংখ্যা ৮,২৭৩। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ২১৯, যা তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে। এছাড়া ডানহাতি অফস্পিনে টেস্টে ৪০ ও ওয়ানডেত শিকার করেছেন ৯৬ উইকেট। ১৯৯৯ সালে অভিষেকের পর মূলত রঙিন পোশাকের সীমিত ওভারের ম্যাচেই খেলতেন। কিন্তু ২০০১ সালে সুযোগ পেয়ে টেস্টে ব্যাটিংয়ের ধারণাটাই পাল্টে দেন। ২০০৪ ছিল সোনালি সময়, ওই বছরই প্রথম ভারতীয় হিসেবে ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকান শেবাগ।

নির্বাচিত সংবাদ