১৭ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আবারও বাংলাদেশ সফর স্থগিত প্রোটিয়া মেয়েদের

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দ্বিতীয় দফায় আবারও বাংলাদেশ সফর স্থগিত করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা মহিলা ক্রিকেট দল। এবার ক্রিকেট সাউথ আফ্রিকা (সিএসএ) কারণ হিসেবে জানিয়েছে সময় মতো খেলোয়াড়দের পাচ্ছে না, তাই আপাতত বাংলাদেশ সফর সম্ভব নয়। মঙ্গলবার বাংলাদেশে আসার কথা ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা মহিলা ক্রিকেট দলের। কিন্তু ক্রিকেটারদের অনেকেরই ব্যক্তিগত সমস্যা, কলেজে পরীক্ষা ইত্যাদি নানাবিধ কারণে দল গঠন সম্ভব হয়নি। এমনটা জানিয়ে আপাতত বাংলাদেশ সফর পিছিয়ে দিয়েছে সিএসএ। আগের দিনই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) এমন কথা জানিয়ে দিয়েছে তারা। ফলে দ্বিতীয় দফায় পেছাল প্রোটিয়া মহিলা ক্রিকেট দলের বাংলাদেশ সফর। মঙ্গলবার এমনটাই জানিয়েছেন বিসিবির প্রধান নির্বাহী (সিইও) নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন। তিনি দাবি করেছেন সিএসএ পরবর্তী আসার সময়টা ৪/৫ দিনের মধ্যেই জানাবে।

গত মাসের ১৫ তারিখে আসার কথা ছিল দক্ষিণ আফ্রিকা মহিলা ক্রিকেট দলের। কিন্তু সে সময় বাংলাদেশ সফর স্থগিত করে তারা নিরাপত্তা শঙ্কার কথা জানিয়ে। সে সময় বাংলাদেশ সফরে ৩ ওয়ানডে ও ৫ টি২০ ম্যাচের সিরিজ খেলার কথা ছিল। পরবর্তীতে ৩ নবেম্বর আসার কথা নিশ্চিত করে সিএসএ। এবার ৩ ওয়ানডে ও ৪ টি২০ খেলার সময়সূচীও ঠিক করা হয়। কিন্তু সফরে আসার ঠিক আগের রাতেই আবার স্থগিত করে তারা বাংলাদেশ সফর। এ বিষয়ে মঙ্গলবার নিজামউদ্দিন বলেন, ‘দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট বোর্ড গতকাল রাতে আমাদের জানিয়েছে যে তাদের আজ (মঙ্গলবার) আসার যে সিডিউলটা ছিল সেটা তারা দেরি করতে যাচ্ছে। কারণ তাদের লজিস্টিক ব্যবস্থাপনাগুলো এখনও হয়নি। তাই আপাতত স্থগিত। যখন আমরা তারিখটা জানতে পারব তখন আমরা ধরে নেব সফরটা অন আছে।’

এবার সফর স্থগিত হওয়ার পেছনে কোন নিরাপত্তা শঙ্কার প্রশ্ন নেই বলে দাবি করেছেন নিজামউদ্দিন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি না এখানে কোন নিরাপত্তার বিষয় আছে। তাদের দল গোছানো বা প্রস্তুতির জন্য তারা দেরি করছে।’ এ বিষয়ে সিএসএ সিইও হারুন লরগাত বলেন, ‘খুবই দুর্ভাগ্যজনক বিষয় যে আমাদের বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে এ সফরের জন্য পাচ্ছি না। তাদের ব্যক্তিগত কিছু কাজ এবং বছরের শেষ মুহূর্তের পড়াশোনা ও পরীক্ষার কারণে তাদের পাচ্ছি না।’ তাহলে কি এ বছরই আর আসবে না প্রোটিয়া মেয়েরা? কতদিন অপেক্ষা করবে বিসিবি। এ বিষয়ে নিজামউদ্দিন বলেন, ‘এ বছর আসবে না এমন কিছু দক্ষিণ আফ্রিকা আমাদের জানায়নি।

জার্মান ফুটবল ফেডারেশনে পুলিশী অভিযান

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপের স্বাগতিক দেশ হওয়া নিয়ে গত কয়েক মাস ধরেই বিতর্ক চলছে। বিশেষ করে ২০০৬ জার্মান বিশ্বকাপ, ২০১০ দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপ, ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপ ও ২০২২ কাতার বিশ্বকাপ নিয়ে বিতর্ক তুঙ্গে।

আয়োজক নির্ধারণে অনেক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। যা নিয়ে বর্তমানে তদন্ত চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় এবার বিশ্বকাপ আয়োজনে অবৈধ সুবিধা আদায়ের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে জার্মান ফুটবল ফেডারেশন (ডিএফবি) এবং ফেডারেশনের শীর্ষ কর্মকর্তাদের বাড়িতে অভিযান চালিয়েছে দেশটির পুলিশ। আয়কর ফাঁকির অভিযোগে এই অভিযান চালানো হলেও, ২০০৬ বিশ্বকাপ আয়োজনে অবৈধ সুবিধা প্রদানের অভিযোগ উঠেছে ডিএফবির বিরুদ্ধে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মামলা পরিচালনা সংক্রান্ত একজন মহিলা মুখপাত্র মঙ্গলবার জানান, ডিএফবি সদর দফতরের পাশাপাশি ফেডারেশনের তিন শীর্ষ কর্মকর্তাদের বাড়িতে তল্লাশি চালিয়েছে পুলিশ। এরা হলেন ডিএফবির বর্তমান সভাপতি, সাবেক সভাপতি এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক।

তিনি আরও বলেন, এ তল্লাশিতে আয়কর ফাঁকির গুরুতর অভিযোগ থাকতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। আয়কর ফাঁকির পরিমাণ আনুমানিক ৬.৭ মিলিয়ন ইউরো।