২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কংগ্রেসের পদযাত্রা নিয়ে কটাক্ষ অরুণ জেটলির

ভারতে কোথাও অসহিষ্ণুতার স্থান নেই বলে দাবি করেছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। মঙ্গলবার অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে বিরোধী দল কংগ্রেসের পদযাত্রা কর্মসূচীর আগে তিনি প্রশ্ন রাখেন- অসহিষ্ণুতা কোথায়? ভারত কখনও অসহিষ্ণু দেশ হবে না। খবর এনডিটিভি অনলাইনের।

ভারতে ক্রমাগত অসহিষ্ণুতা বৃদ্ধির পটভূমিতে বিরোধী কংগ্রেস পার্টি মঙ্গলবার নয়াদিল্লীতে পার্লামেন্ট থেকে রাষ্ট্রপতি ভবন পর্যন্ত পদযাত্রা কর্মসূচী পালন করে। কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী, তার ছেলে রাহুল গান্ধী, কংগ্রেস নেতৃবৃন্দ ও পার্লামেন্ট সদস্যরা এতে অংশ নেন। তাদের এই কর্মসূচী পালনের কয়েক ঘণ্টা আগে প্রশ্ন রাখেন- অসহিষ্ণুতা কোথায়? ভারত কখনও অসহিষ্ণু দেশ হবে না। দেশে এখন শান্তি ও সম্প্রীতি পূর্ণমাত্রায় বিরাজ করছে। তিনি স্বীকার করেন, সম্প্রতি ভারতে এমন কিছু ঘটনা ঘটেছে যা অনাকাক্সিক্ষত। জেটলি দাবি করেন, কংগ্রেসের শাসনামলেও এসব ঘটনা ঘটেছে। ভারতে গরুর মাংস খাওয়াকে কেন্দ্র করে সম্প্রতি বেশকিছু অপ্রীতিকর ঘটনা এমনটি হত্যাকা- পর্যন্ত ঘটেছে। অনেক লেখক তাদের সাহিত্যকর্মের স্বীকৃতিস্বরূপ পাওয়া পদক ফিরিয়ে দিয়েছেন। বিষয়টি পুরো দেশের ভাবমূর্তির জন্য নেতিবাচক বলে নাগরিক গোষ্ঠীগুলোর পাশাপাশি মনে করছে বিরোধী দল কংগ্রেসও। কংগ্রেস সভানেত্রী সোমবার বিষয়টি নিয়ে ব্যক্তিগতভাবে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জীর সঙ্গে তার বাসভবনে কথা বলেছেন। বহুত্ববাদ, সহিষ্ণুতা ও বহু মতের সহাবস্থানই ভারতের শক্তি। প্রণব মুখার্জী গত মাসে একাধিক অনুষ্ঠানে সে বিষয়টি জোর দিয়ে বলেছেন।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সোমবার কংগ্রেসের সমালোচনার জবাবে বলেন, ১৯৮৪ সালে তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী নিহত হওয়ার পর দিল্লীসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় যে শিখবিরোধী দাঙ্গা হয়েছিল তার জন্য দায়ী কংগ্রেসের সে সময়কার নেতৃত্ব। অথচ এই কংগ্রেস সহিষ্ণুতার ওপর বক্তৃতা দিচ্ছে। বলিউড তারকা শাহরুখ খান সোমবার এনডিটিভিকে বলেন, ধর্মীয় হোক বা যে কোন ধরনের অসহিষ্ণুতাই দেশের জন্য অশনি সঙ্কেতস্বরূপ, এটি আমাদের অন্ধকার যুগে নিয়ে যাবে।