২০ আগস্ট ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টাঙ্গাইলে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন ॥ নদীতে ভাঙন

  • তলিয়ে যাচ্ছে ফসলী জমি ও বাড়িঘর

নিজস্ব সংবাদদাতা, টাঙ্গাইল, ৪ নবেম্বর ॥ হঠাৎ ভাঙনে নদীর দু’পাশের ফসলী জমি, রাস্তা ও বাড়িঘর বিলীন হয়ে যাচ্ছে নদীগর্ভে। কারণ নদীর বিভিন্ন জায়গায় অবৈধভাবে বসানো হয়েছে ড্রেজার মেশিন। রাজনৈতিক নেতা নামধারী একটি অসাধু চক্র এসব ড্রেজার মেশিনের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করে প্রতিবছর কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।

টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার উপজেলার ওপর দিয়ে প্রবাহিত লৌহজং, এলেংজানী ও ধলেশ্বরী নদীর বিভিন্ন জায়গা ঘুরে দেখা গেছে এসব চিত্র। বালু উত্তোলনকারীরা প্রভাবশালী হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পায় না। সম্প্রতি শাহধারীপাড়া-মৈষ্টা সড়কটির বিভিন্ন জায়গা ভেঙে গভীর খাদের সৃষ্টি হয়ে আশপাশের প্রায় ২০টি বাড়িঘর এবং একটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক নদীগর্ভে বিলীন হওয়ায় স্থানীয় এলাকাবাসীর মধ্যে ব্যাপক আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে। শাহধারীপাড়া, এলাচিপুর, কামান্না, আরমৈষ্টা, ধানকী, কুমারজানীসহ আশেপাশের কয়েকটি গ্রামের মানুষ উপজেলা সদর এবং পার্শ্ববর্তী মির্জাপুুর উপজেলায় যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম এ সড়কটি। তাছাড়া শাহধারীপাড়াসহ আশপাশের এলাকায় স্কুল, মাদ্রাসাসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। প্রতিদিন ছাত্র-ছাত্রীরা এই রাস্তা দিয়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতায়াত করে। শাহধারীপাড়া গ্রামের নুরুল ইসলাম (৬০) বলেন, রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ায় চলাচলে আমাদের খুবই অসুবিধা হচ্ছে। পাশের জমির ওপর দিয়ে চললেও ফসল লাগালে তা বন্ধ করে দেয়া হবে। ফলে খুবই সমস্যায় পড়তে হবে আমাদের। এসব অবৈধ ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলন বন্ধ করে বাড়িঘর, ফসলী জমি ও রাস্তাঘাট রক্ষার্থে কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি কামনা করেন নদীপারে বসবাসরত মানুষেরা। দেলদুয়ার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম ফেরদৌস আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী খ ম ফরহাদ হোসাইনসহ বিভিন্ন পর্যায়ের জনপ্রতিনিধিরা ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। রাস্তাটি স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগের অধীনে হওয়ায় উপজেলা প্রকৌশলী খ ম ফরহাদ হোসাইন বলেন, আমি সরজমিন রাস্তাটি দেখেছি। সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে কথা বলে আবশ্যই ব্যবস্থা নিব।

দেলদুয়ার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম ফেরদৌস আহমেদ বলেন, রাস্তাটি ভেঙে যাওয়ায় এলাকাবাসীকে খুবই দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। তাছাড়া অনেক বাড়িঘর নদীতে বিলীন হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান।

চার মাসের সন্তান নষ্ট করতে গিয়ে স্ত্রীর মৃত্যু

স্বামীসহ গ্রেফতার চার

স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ গর্ভপাত ঘটাতে গিয়ে মঙ্গলবার রাতে দিনাজপুরে এক গৃহবধূর মৃত্যু হয়েছে।

নিহত গৃহবধূর বাড়ি দিনাজপুরের খানসামা উপজেলার বাশলি গ্রামে। এ ব্যাপারে তার স্বামীসহ ৪ জনকে আটক জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। মামলা হয়েছে বীরগঞ্জ থানায়। পুলিশ জানায়, আনারুল ইসলামের স্ত্রী তিন সন্তানের জননী তহমিনা বেগম (৩২) বীরগঞ্জ উপজেলার সুজালপুর গ্রামের জনৈক মনোয়ারা বেগমের বাড়িতে ৪ মাসের গর্ভের বাচ্চা নষ্ট করার সময় মারা যান। এ ব্যাপারে তহমিনার বড় ভাই সামিউল ইসলাম বাদী হয়ে বীরগঞ্জ থানায় ৪ জনের বিরুদ্ধে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

থানা পুলিশ তহমিনার লাশ উদ্ধার করে দিনাজপুর মর্গে পাঠায়। গর্ভের সন্তান নষ্ট করার সঙ্গে জড়িত স্বামী মোঃ আনারুল ইসলাম, জোসনা বেগম, মনোয়ারা বেগম ও মকছেদ আলীকে গ্রেফতার করে জেলহাজতে পাঠায়।

শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিক খান সড়কের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন

নিজস্ব সংবাদদাতা, গফরগাঁও, ৪ নবেম্বর ॥ ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার চরাঞ্চলে বুধবার সাড়ে ৫ কিলোমিটার নতুন রাস্তা পাকাকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর উদ্বোধন করেন এমপি ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের অধীনে এলজিইডির তত্ত্বাবধানে ৪ কোটি ৩ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার চরআলগী ইউনিয়নের চরকামারিয়া থেকে নাককাটা চর পর্যন্ত ‘শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারিক খান সড়ক’ ও আলতাফ গোলন্দাজ সেতু পূর্ব পাশ হতে নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত সাড়ে ৫ কিলোমিটার নতুন রাস্তা পাকাকরণের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়।