২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাড়ি দখলের অপচেষ্টায় লিপ্ত মুক্তিযুদ্ধে বিতর্কিত বাশার

স্টাফ রিপোর্টার, মুন্সীগঞ্জ॥ টঙ্গীবাড়ি উপজেলার কামারখারায় আমেরিকা প্রবাসীর বাড়ি দখলের অপচেষ্টা চালাচ্ছে মুক্তিযুদ্ধে বিতর্কিত ভূমিকা নেওয়া আবুল বাশার হালদার।এই অভিযোগ এনেছেন এই বাশারেরই ছোট বোন জোহরা শিকদার মঞ্জু।

দেশে ফিরে বৃহস্পতিবার এই অভিযোগ করে আমেরিকা প্রবাসী জোহরা শিকদার বলেন, “মুক্তিযুদ্ধে পাকি বাহিনীর সাথে মিলে অশান্তি দিয়েছে নিজ পরিবারকে, তা এখনও বন্ধ হয়নি। স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের খবর শোনার অপরাধে তার ভয়ে তটস্থ থাকতে হয়েছে সবাইকে। ভয় দেখানোর জন্য তিনি বন্দুক নিয়ে বাড়ির নারিকেল গাছের ডাবে গুলি ছুড়েছে। অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করছে। তাই বাবা এবং অন্য ভাই-বোনরা লুকিয়ে লুকিয়ে রেডিওতে স্বাধীন বাংলার খবর শুনতাম। পরে রেডিওটিও লুকিয়ে রাখতে হতো।”

‘আমাদের গোটা পরিবারকে মুক্তিযুদ্ধে যে মানুষিক টর্চার করেছে যা ভাষায় প্রকাশ করা যাবে না। আর বাইরের লোকদের সাথে কি করেছে সহজেয়ই অনুমেয়।’ বলে উল্লেখ করেন জোহরা শিকদার মঞ্জু।

তিনি বলেন, “তখন বাবা এবং অন্য ভাই বোনরা স্বাধীন বাংলা শোনার জন্য ব্যাকুল ছিলাম। আর ভাই আবুল বাশার মুক্তিযুদ্ধকে তত অপছন্দ করতেন। তিনি বন্দুক নিয়ে ঘুরে বেড়াতেন। মুক্তি পাগল মানুষকে নানাভাবে কষ্ট দিয়েছেন। এক পর্যায়ে মুক্তিযোদ্ধারা তাকে ধরে নিয়ে যায়। পরে তার অপর ভাই মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক সাঈদ আহম্মেদ অনেক কষ্টে তাকে রক্ষা করেন। তখন সে প্রতিজ্ঞা করেছিল মুক্তিযদ্ধের বিপক্ষে কখনও অবস্থান নিবেন না। কিন্তু ফিরে এসে যেই সেই। পরে বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে মানুষকে নানাভাবে হয়রানি করেছে। এখন সে বিএনপি সমর্থক।”

মঞ্জু বলেন, সাত বোন তিন ভাইয়ের মধ্যে দ্বিতীয় আবুল বাশার হালদার এখনও থেমে নেই। সে আপন বোনের বাড়ি জবর দখল করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর ছবিতে সিগারেটের আগুন দিয়ে পুড়ে দেওয়ার দায়ে তিন মাস নারায়ণঞ্জ জেলে থাকতে হয়েছে তাকে। পরে ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় আসার পর ওই মামলা থেকে খালাস পান।

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে আবুল বাশার হালদার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মুক্তিযোদ্ধরা আমাকে ধরে নিয়ে গিয়েছিল তখনকার প্রতাপশালী কালীপদ ঘোষের মিথ্যা তথ্যের ভিত্তিতে। বাড়ি দখলের অপচেষ্টা সম্পর্কে বলেন, বোনের বৈধ লীজের কাগজপত্র থাকলেও আসলে বাড়িটির প্রকৃত মালিক তিনি নন।

অন্য দিকে টঙ্গীবাড়ি থানার ওসি আলগমীর হোসেন বলেন, কাগজপত্র অনুযাযী বাড়ির বৈধতা জোহরা শিকদার মঞ্জুর। কিন্তু বোন আমেরিকায় থাকার সুযোগে আপন ভাই আবুল বাশার হালদার নানাভাবে তাকে বেদখলের অপচেষ্টা করছে। এই বিষয়ে থানায় অভিযোগ এসেছে। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ কাজ করছে।