১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশাল জয়ে সিরিজ পাকিস্তানের

  • শারজা টেস্ট;###;১২৭ রানে পরাজিত ইংল্যান্ড, পাকরা সিরিজ জিতল ২-০ ব্যবধানে

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দীর্ঘক্ষণ একাই লড়েছেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক এ্যালিস্টার কুক। ক্যারিয়ারে প্রথমবার ইনিংসের অষ্টম উইকেট পর্যন্ত ব্যাটিং করেছেন তিনি। তবু শেষ রক্ষা হয়নি। হেরে গেছে ইংল্যান্ড। শারজায় সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টে ১২৭ রানের জয় তুলে নিয়েছে পাকিস্তান মূলত বোলারদের দুর্দান্ত নৈপুণ্যের কারণে। ফলে তিন টেস্টের সিরিজও পাকরা ২-০ ব্যবধানে জিতে নিল। মাত্র ২৮৪ রানের জয়ের লক্ষ্য, চতুর্থ দিনেই ২ উইকেটে ৪৬ রান তুলে ফেলেছিল ইংল্যান্ড। বৃহস্পতিবার পঞ্চম দিনের পুরোটা সময়ে আর প্রয়োজন ছিল মাত্র ২৩৮ রানের। কিন্তু পাক ঘূর্ণি ছোবলে সবমিলিয়ে মাত্র ১৫৬ রানেই গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড।

২৮৪ রানের জয়ের লক্ষ্যে খেলতে নেমে চতুর্থদিন শেষে মাত্র ৪৬ রান তুলতেই দুই উইকেট হারিয়ে বসেছিল ইংল্যান্ড। মঈন আলী ও ইয়ান বেল আউট হন শোয়েব মালিকের স্পিন আঘাতে। তবে কুক থাকায় জয়ের আশা পুরোপুরিই টিকে ছিল ইংল্যান্ডের। কিন্তু পঞ্চমদিনের শুরুতেই যুদ্ধের সতীর্থ জো রুটকে হারিয়ে ফেলেন তিনি। দিনের দ্বিতীয় ওভারেই লেগ স্পিনার ইয়াসির শাহর হাতে বল তুলে দিয়েছিলেন অধিনায়ক মিসবাহ। তিনি রুটকে ফিরিয়ে দেন। এরপর নিয়মিত বিরতিতে অপর প্রান্তে ব্যাটসম্যানদের শুধু অসহায় আত্মসমর্পণ দেখে গেছেন কুক। দলীয় মাত্র ৫৯ রানেই ৬ ব্যাটসম্যান ফিরে যান। এরপর প্রতিরোধ গড়ে তোলেন কুক ও আদিল রশিদ। ৪৯ রানের জুটি গড়ে ওঠে দু’জনের মধ্যে সপ্তম উইকেটে। রশিদকে সরাসরি বোল্ড করে সাজঘরে ফিরিয়ে দিয়ে পেসারদের পক্ষে একমাত্র সাফল্য পান রাহাত আলী। এরপর আর বেশিক্ষণ টেকেনি ইংল্যান্ডের ইনিংস। থেমে গেছে ১৫৬ রানে। সর্বাধিক ৬৩ রান করা কুকও ফিরে গেছেন নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে মালিকের শিকারে পরিণত হয়ে। তিন স্পিনার ইয়াসির (৪), মালিক (৩) ও বাবর (২) মিলে ইংল্যান্ডের ৯ উইকেট শিকার করেন।

টানা দুই টেস্ট হেরে সিরিজ খুইয়ে ফেলে ইংলিশরা। পরাজয়ের ব্যাপারে কুক বলেন, ‘আমরা খুব ভালভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছি তিন ম্যাচেই। কিন্তু সঙ্কটময় মুহূর্তে পাকিস্তানতে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেনি। তারা খুব সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুধু শেখার জন্য নয়, ফলাফলও পাওয়ার জন্য। কিন্তু সেজন্য আমরা পাকিস্তানের মতো ভাল ছিলাম না।’ অপরদিকে জয়ের পর মিসবাহ বলেন, ‘ইংল্যান্ড দলকে কৃতিত্ব দিতেই হয় যে তারা অনেক লড়াই করেছে। কিন্তু ইয়াসির শাহ আমাদের দুই ম্যাচ জিতিয়েছেন এবং ব্যাটসম্যানরা অবদান রেখেছেন। সবার কাছ থেকে অবদানটা সত্যিই সন্তোষজনক দলের জন্য।’