২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শ্রীলঙ্কার সিরিজ জয়

  • দ্বিতীয় ম্যাচে ৮ উইকেটে পরাজিত ওয়েস্ট ইন্ডিজ

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তিন ম্যাচের সিরিজ, তবে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জয় নিশ্চিত করেছে শ্রীলঙ্কা। কলম্বোয় সিরিজের দ্বিতীয় ওয়ানডেতেই সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৮ উইকেটে বিধ্বস্ত করে সিরিজ নিশ্চিত করে স্বাগতিকরা। এদিনও ছিল বৃষ্টির দাপট। সে কারণে ৩৮ ওভার করে খেলা হয়েছে। ওপেনার জনসন চার্লসের ৮৩ ও মারলন স্যামুয়েলসের ৬৩ রানের পরও ৩৭.৪ ওভারে ২১৪ রানে গুটিয়ে যায় ক্যারিবীয়রা। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে লঙ্কানদের পরিবর্তিত টার্গেট স্থির হয় ২২৫ রান। জবাবে ৩৬.৩ ওভারেই জয় তুলে নেয় লঙ্কানরা ২ উইকেট হারিয়ে ২২৫ রান তুলে। প্রথম ম্যাচেও ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে বৃষ্টিবিঘিœত ম্যাচে ১ উইকেটে জিতেছিল শ্রীলঙ্কা। সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে শনিবার পাল্লেকেলেতে। ৩৮ ওভারে নেমে আসা ম্যাচে টস জিতে আগে ব্যাটিং করতে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। দলীয় ২৯ রানের মধ্যেই দুই উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে তারা। তবে ৭০ রানের জুটি গড়ে চার্লস ও ড্যারেন ব্রাভো দলকে বিপদ থেকে টেনে তোলেন। ব্রাভো ফিরে যাওয়ার পর বেশিক্ষণ থাকতে পারেননি চার্লসও। তিনি ৭০ বলে ৭ চার ও ৪ ছক্কায় ৮৩ রান করেন। এরপর শুধু একাই লড়েছেন স্যামুয়েলস। তিনি ৬১ বলে ৪টি চার ও ২টি ছক্কা হাঁকিয়ে ৬৩ রান করেন। এছাড়া আর কোন ব্যাটসম্যান বড় ইনিংস খেলতে পারেননি। এদিন ক্যারিবীয়রা অধিনায়ক জেসন হোল্ডারকে ছাড়াই নেমেছিল। সেøা ওভাররেটের কারণে এক ম্যাচ নিষিদ্ধ হন তিনি। স্যামুয়েলস নেতৃত্ব দিয়েছেন দলকে। দুই বল বাকি থাকতেই ক্যারিবীয় ইনিংস শেষ হয় ২১৪ রানে। লাসিথ মালিঙ্গা ও মিলিন্ডা শ্রীবর্ধনে দুটি করে উইকেট নেন। ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে জয়ের লক্ষ্যটা বড় হয়ে যায় লঙ্কানদের। ৩৮ ওভারে ২২৫। কিন্তু শুরু থেকেই দারুণ জবাব দিয়েছে লঙ্কানরা। ওপেনার পেরেরা-তিলকারতেœ দিলশান ভালভাবেই শুরু করেছিলেন। তবে দিলশান বেশিদূর এগোতে পারেননি। স্পিনার সুনিল নারাইনের বলে লাইন হারিয়ে বোল্ড হয়ে যান (১৭)। এরপর পেরেরা-লাহিরু থিরিমান্নে ১৫৬ রানের বিশাল জুটি গড়ে ক্যারিবীয়দের নিয়ন্ত্রণের বাইরে নিয়ে যান ম্যাচের ভাগ্যকে। ক্যারিয়ারের তৃতীয় সেঞ্চুরি থেকে মাত্র এক রান দূরে থাকতে আউট হয়ে যান পেরেরা। ৯২ বলে ৬ চার ও ৪ ছক্কায় তিনি ৯৯ রান করেন। তবে দলকে বিজয়ী করে মাঠ ছেড়েছেন থিরিমান্নে। তিনি ৯৫ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৮১ রান করে অপরাজিত থাকেন। ৯ বল হাতে রেখেই লক্ষ্যে পৌঁছে লঙ্কানরা। একটি করে উইকেট নেন রামপল ও নারাইন। ৮ উইকেটের জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নেয় স্বাগতিকরা। আগেভাগেই সিরিজ হারলেও এখন শনিবার শেষ ম্যাচে নিজেদের পারফর্মেন্সের উন্নতি ঘটানোর দিকে মনোযোগ থাকবে ক্যারিবীয়দের।