২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বাংলাদেশ জিম্বাবুইয়ে প্রথম ওয়ানডে আজ

মিথুন আশরাফ ॥ বাংলাদেশ-জিম্বাবুইয়ে সিরিজ শুরু হচ্ছে আজ। তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দিয়েই সিরিজ শুরু হচ্ছে। প্রথম ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে আজ। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে হবে খেলা। দুপুর ১টায় ম্যাচটি শুরু হবে। বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল জিটিভি ও সরকারী টেলিভিশন বিটিভি সরাসরি খেলা দেখাবে।

এ ম্যাচটির পর ৯ ও ১১ নবেম্বর যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হবে। ওয়ানডে

সিরিজ শেষে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ শুরু হবে। ১৩ ও ১৫ নবেম্বর যথাক্রমে প্রথম ও দ্বিতীয় টি২০ ম্যাচ হবে।

এই ম্যাচকে সামনে রেখে দুই দলই শুক্রবার অনুশীলন করেছে। জিম্বাবুইয়ে ক্রিকেট দল মিরপুর স্টেডিয়ামে ও বাংলাদেশ ক্রিকেট দল ফতুল্লা স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেছে। দুপুরে জিম্বাবুইয়ে ও বিকেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল অনুশীলন করেছে। দুপুরে টিম হোটেলে দুই অধিনায়কের উপস্থিতিতে ট্রফি উন্মোচনও হয়।

এ ট্রফিটা দুই অধিনায়কই চান। বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা যেমন বলেছেন, ‘আমাদের লক্ষ্য জয়। কর্তৃত্ব করে খেলতে চাই। সিরিজ জিততে চাই।’ জিম্বাবুইয়ে অধিনায়ক এলটন চিগুম্বুরা বলেছেন, ‘এবার আমাদের দলটা ভিন্ন। জয় চাই।’ এখন দেখা যাক কোন্ দলের স্বপ্ন পূরণ হয়।

অবশ্য সবারই ধারণা, সিরিজ বাংলাদেশই জিতবে। ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজ জিতবে মাশরাফিবাহিনী। যদিও প্রস্তুতি ম্যাচে ৭ উইকেটে হেরেছে বিসিবি একাদশ। সেই ম্যাচে মাশরাফি, মুশফিক, লিটন, সাব্বির, জুবায়ের, ইমরুল খেলেছেন। তবুও হার হয়েছে। তবে এ হার ম্যাচে কোন প্রভাব পড়বে না বলেই মনে করে দুই দলই। প্রস্তুতি ম্যাচ যে প্রস্তুতি নেয়ার জন্যই।

অবশ্য গতবছর জিম্বাবুইয়েকে যে ৫-০ ব্যবধানে ওয়ানডেতে হারিয়েছিল বাংলাদেশ, সেই স্মৃতির পুনরাবৃত্তি হতে দিতে চান না চিগুম্বুরা। বলেছেন, ‘এটা দারুণ শুরু। গতবারের সঙ্গে যদি এবারের তুলনা করি, গত বছর একটি ম্যাচও জয় পাইনি; এমনকি প্রস্তুতি ম্যাচও। আগামীকালের (আজ) প্রথম ওয়ানডে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিশ্চিত করতে হবে, গতকাল (বৃহস্পতিবার) যেটা করেছিলাম, আগামীকালও (আজ) সেটাই যেন করতে পারি।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি২০ সিরিজ হারের পর বাংলাদেশে এলো জিম্বাবুইয়ে। এখানেও বহুদিন ধরে সাফল্য নেই তাদের। গতবারের ধবলধোলাইয়ের স্মৃতি তো টাটকাই। তবে তিক্ত অভিজ্ঞতা ভুলে সামনেই তাকাতে চান জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক, ‘আফগানিস্তান এখন অতীত। ঘরের মাঠে বাংলাদেশ দারুণ দল। দুই দলই চায় জিততে। কাজেই এটা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সিরিজই হবে। সর্বশেষ সিরিজের পাল্টা জবাব দিতে হবে আমাদের। আমাদের সেরাটাই দিতে হবে। বাংলাদেশের চেয়ে ভাল খেলতে হবে।’

এ সিরিজে বাংলাদেশের দিকেই দৃষ্টি থাকছে। টানা সিরিজ জয়ের পর এবারও সেই ধারাবাহিকতা থাকে কিনা সেটাই দেখবে সবাই। সঙ্গে র‌্যাঙ্কিং নিয়েও আছে হিসাব। বাংলাদেশ ৩-০ তে হারলে ৭ নম্বর র‌্যাঙ্কিং থেকে ৮ নম্বরে নেমে যাবে। আর জিতলে মাত্র ১ রেটিং পয়েন্ট বাড়বে। মাশরাফির এসব নিয়ে কোন ভাবনা নেই। বলেছেন, ‘আসলে এসব নিয়ে একেবারেই ভাবিনি। ম্যাচের আগে এ নিয়ে আলোচনা করাটাই নেতিবাচক। সবাই আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে খেলতে চায়। যেভাবে খেলে আসছিলাম, সেভাবে খেললেই ভাল। র‌্যাঙ্কিংয়ে আমরা যে ৭ নম্বর উঠব, এ সব চিন্তা করেও কখনও খেলিনি। দল এখন র‌্যাঙ্কিংয়ে নেমে যাবে এমন চিন্তা করাটা নেতিবাচক।’ মাশরাফি নেতিবাচক চিন্তা করতেই রাজি নন। শুধুই ইতিবাচক ভাবতে চান। সেই ইতিবাচক ভাবনার সঙ্গে এখন সিরিজ জয় ধরা দিলেই হয়। আজ প্রথম ওয়ানডে দিয়েই সেই সিরিজ শুরু হচ্ছে।