২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

প্রধানমন্ত্রী চলতি মাসেই ফ্রান্স ও মাল্টা যেতে পারেন

কূটনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চলতি মাসেই ফ্রান্স ও মাল্টা সফরে যেতে পারেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রীর এই দুই দেশ সফরের প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এদিকে নেদারল্যান্ডস থেকে এশিয়া-ইউরোপ বৈঠকের (আসেম) পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের সম্মেলনে যোগ দিতে লুক্সেমবার্গ গেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র এসব তথ্য জানায়।

সূত্র জানায়, চলতি মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুই দফা প্যারিস সফরে যেতে পারেন। প্রথম দফায় ইউনেস্কো লিডারশিপ সম্মেলনে যোগ দিতে আগামী ১৬ ও ১৭ নবেম্বর ও দ্বিতীয় দফায় জলবায়ু সম্মেলনে যোগ দিতে ৩০ নবেম্বর থেকে পহেলা ডিসেম্বর প্যারিস যেতে পারেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এই দুই সফরের বিষয়ে সার্বিক প্রস্তুতি গ্রহণ করছে।

ইউনেস্কোর মহাপরিচালক আইরিনা বোকোভা বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে ইউনেস্কো লিডারশিপ ফোরামে বক্তব্য রাখার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। ইউনেস্কো তার গঠনতন্ত্র প্রণয়নের ৭০তম বার্ষিকী পালন করবে আগামী ১৬ নবেম্বর। এই উপলক্ষে ১৬ ও ১৭ নবেম্বর সম্মেলন হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানান, বিশ্বজুড়ে শিক্ষা ও সংস্কৃতিক্ষেত্রে অবদান রাখছে ইউনেস্কো। জাতিসংঘের এই সংস্থাটি এবার ৭০তম বার্ষিকী পালনে এক বছরব্যাপী কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। এই কর্মসূচীর ধারাবাহিকতায় প্যারিসে লিডারশিপ সম্মেলনের আয়োজন করেছে ইউনেস্কো। সেখানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রপ্রধানরা উপস্থিত থাকবেন। এই সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে।

এদিকে, প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন হবে। চলতি বছর প্যারিসে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন বা কনফারেন্স অব পার্টিস (কপ-২১) অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনে বাংলাদেশ বৈশ্বিক উষ্ণতা কমাতে আইনগত বাধ্যতামূলক একটি চুক্তি করার পক্ষে অবস্থান নেবে। তবে এবারকার সম্মেলনে বাংলাদেশকে বিশেষভাবে আমন্ত্রণ জানিয়েছে বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনের আয়োজকরা। কেননা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘ থেকে এবার চ্যাম্পিয়ন অব দ্য আর্থ পুরস্কার পেয়েছেন। সে কারণে পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের দরবারে বিশেষ সুপরিচিতি পেয়েছে। এই সম্মেলনে যোগ দেয়ার বিষয়ে প্রস্তুতি রয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের।

সূত্র জানায়, কমনওয়েলথভুক্ত দেশগুলোর সরকারপ্রধানদের শীর্ষ সম্মেলন (সিএইচওজিএম) আগামী ২৭ থেকে ২৯ নবেম্বর ইউরোপের দেশ মাল্টায় অনুষ্ঠিত হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

কমনওয়েলথ রাষ্ট্রপ্রধানদের এই সম্মেলনে ৫৩টি দেশের সরকারপ্রধানরা একত্রিত হবেন। বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় উদ্ভাবনী সমাধান পাওয়া যায় এই সভায়। কমনওয়েলথ মহাসচিব কমলেশ শর্মা গত সেপ্টেম্বর মাসে ঢাকায় এসে এই সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। একই সঙ্গে মাল্টার প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাস্কাটও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে কমনওয়েলথ সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, এক মাসের মধ্যে তিনটি সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য বাংলাদেশের পক্ষ থেকে প্রস্তুতি চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব সম্মেলনে যোগ দেয়ার বিষয়ে আগ্রহও প্রকাশ করেছেন। তবে প্রধানমন্ত্রীর ব্যস্ততাও কম নয়। সকল দিক ইতিবাচক থাকলে প্রধানমন্ত্রী এসব সম্মেলনে যোগ দেবেন।

এদিকে, এশিয়া-ইউরোপ বৈঠকের (আসেম) পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনে যোগ দিতে নেদারল্যান্ডস থেকে লুক্সেমবার্গ গেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। আজ শনিবার থেকে দুই দিনব্যাপী এই সম্মেলন শুরু হচ্ছে। এশিয়া ও ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে সহযোগিতা বাড়ানোর বিষয়ে এই সম্মেলনে আলোচনা হবে।

নির্বাচিত সংবাদ