২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের মানববন্ধন

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ॥ দেশকে অস্থিতিশীল করে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্র রুখে দিতে হবে। ষড়যন্ত্রকারীদের রুখতে হলে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের সকল রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়া ছাড়া বিকল্প নেই। দেশের জনগণের জান-মালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করে সকল হত্যাকা- ও নৈরাজ্যের সুষ্ঠু তদন্তের অগ্রগতি সম্পর্কে জনগণকে নিয়মিতভাবে তথ্য জানাতে হবে। সকল

অপপ্রচার, তথ্যবিভ্রাট এবং জনবিভ্রান্তি রুখে দিয়ে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ চালিয়ে যেতে হবে। প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপনসহ দেশব্যাপী লেখক, প্রকাশক, বিদেশী নাগরিক, পুলিশ হত্যা এবং নৈরাজ্য সৃষ্টিকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধন থেকে এসব দাবি জানান দেশের সাংস্কৃতিককর্মীরা। শুক্রবার সকালে রাজধানীর আজিজ সুপার মার্কেটের সামনে আয়োজিত ওই মানববন্ধনের আয়োজন করে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট। ঘণ্টাব্যাপী ওই মানববন্ধনে দুই শতাধিক সাংস্কৃতিককর্মী অংশ নেন। মানববন্ধনে জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছের সভাপতিত্বে এবং মানজার চৌধুরী সুইটের উপস্থাপনায় বক্তব্য রাখেন জোটের সাবেক সভাপতি নাসিরউদ্দীন ইউসুফ, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি সংস্কৃতজন মফিদুল হক, বাংলাদেশ আবৃত্তি সমন্বয় পরিষদের সভাপতিম-লীর সদস্য রফিকুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা, সঙ্গীত শিল্পী নিলুফার জাহান চিনু, থিয়েটার ফেডারেশনের সেক্রেটারি জেনারেল আকতারুজ্জামান, আবৃত্তি শিল্পী বেলায়েত হোসেন, পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান ও ড. নিগার চৌধুরী প্রমুখ। জোটের আহ্বানে দেশের প্রায় ৩৩টি জেলায় এদিন মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচী পালিত হয়েছে।

মানববন্ধনে জোটের সাবেক সভাপতি ও সাংস্কৃতিককর্মী নাসিরুদ্দিন ইউসুফ বাচ্চু বলেন, শুধু বিচার করলেই চলবে না, এই ধরনের হত্যাকা- যাতে আর ঘটতে না পারে সেই ব্যবস্থাও নিতে হবে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি। তা হওয়া সত্ত্বেও মুক্ত চিন্তার মানুষদের যেসব হত্যাকা- হয়েছে তার বিচারের বিষয়ে ঢিলেমি দেখা যাচ্ছে। মুক্ত চিন্তা ও তরুণ লেখকদের আড্ডার অন্যতম কেন্দ্রস্থল হিসেবে আজিজ সুপার মার্কেট সুপরিচিত। এই মার্কেটে গত ৩১ অক্টোবর প্রকাশক দীপনের ওপর যে মর্মান্তিক হামলা হয়েছে আমরা তার প্রতিবাদ জানাই এবং অবিলম্বে অপরাধীদের গ্রেফতার করে বিচারের দাবি জানাই।

জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ বলেন, বিভিন্ন ঘটনার তদন্ত এবং বিচার প্রক্রিয়ার অগ্রগতি সম্পর্কে তথ্য জানতে জনগণের অধিকার রয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্যোগে জনগণকে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন হত্যাকা-ের তথ্য দিয়ে আপডেট রাখতে হবে। অন্যথায় ষড়যন্ত্রকারীরা বিভ্রান্তি ছড়ানোর সুযোগ পাবে।