১৯ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ডিইউডিএসের ৩৩ বছরে পদার্পণ

ডিইউডিএসের ৩৩ বছরে পদার্পণ

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার ॥ বর্ণাঢ্য র‌্যালী এবং কেক কাটার মধ্য দিয়ে ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির (ডিইউডিএস) ৩৩ বছর পূর্তি ও পূনর্মিলনী-২০১৫ অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। শনিবার সকাল সাড়ে নয়টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) মিলনায়তনে ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে দিনব্যাপী এই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন। উদ্বোধনী র‌্যালীটি টিএসসি ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থান ঘুরে আবার একই স্থানে এসে শেষ হয়।

‘প্রকাশই প্রতিভা'— এই প্রতিপাদ্যকে ধারণ করে ১৯৮২ সালের ১৭ অক্টোবর যাত্রা শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের বিতর্ক আন্দোলনের পুরোধা সংগঠন ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটি (ডিইউডিএস)। এরপর দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে এই সংগঠনটি ৩৩ বছরে উপনীত হয়েছে।

উদ্বোধন শেষে ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, যুক্তির মাধ্যমে সত্যের অন্বেষণ করে সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করতে হবে। বর্তমানে আমরা দেখতে পাচ্ছি মুক্ত চিন্তা ও প্রগতিশীল মানুষের উপর হামলা করা হচ্ছে। এই অপশক্তি কখনো সফল হতে পারবে না।

‘সত্যের জয় সুনিশ্চিত’ কথাটি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এই কথাটি আমাদের সব সময় মনে রাখতে হবে। যুক্তি-তর্কের মাধ্যমে যে সত্য বের হয়ে আসে তা অনেক শক্তিশালী। সমাজ পরিবর্তনের জন্য সত্য প্রকাশে অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে। ঢাকা ইউনিভার্সিটি ডিবেটিং সোসাইটির বিতার্কিক তরুণ-তরুণীরা এই ক্ষেত্রে সমাজকে নেতৃত্ব দিবে এমনটিই আমাদের প্রত্যাশা।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ডিইউডেএসের সভাপতি জি এম আরিফুজ্জামানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আবু রায়হানের উপস্থাপনায় আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) পরিচালক আলমগীর হোসেন, ডিইউডিএসের মডারেটর অধ্যাপক মাহবুবা নাসরীন প্রমুখ।

ঐতিহ্যবাহী এই সংগঠনের ৩৩ বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে দিনব্যাপী দারুণ সব অনুষ্ঠানের। যাতে অংশ নিচ্ছেন সংগঠনের সাবেক ও বর্তমান সদস্যরা, উৎসব মুখর পরিবেশে দিনব্যাপী এসব অনুষ্ঠান টিএসসিকে পরিণত করেছে এক মহামিলন মেলায়। বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মধ্যে থাকছে- প্রদর্শনী বিতর্ক (সংসদীয়), জুটি বিতর্ক, রম্য বিতর্ক, প্ল্যানচেট বিতর্ক, সাংস্কৃতিক পর্ব, স্মৃতিচারণা, ফানুস উড়ানোসহ নানা আয়োজন। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় ডিইউডিএসের অর্জন করা ট্রফি ও ক্রেস্ট নিয়ে ব্যতিক্রমধর্মী এক প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। এর পাশাপাশি বিভিন্ন সময়ে আয়োজিত অনুষ্ঠানের স্মারক পোস্টারও প্রদর্শিত হবে এই আয়োজেনে। সবশেষে সন্ধ্যায় কনসার্ট ও ফানুস ওড়ানোর মধ্য দিয়ে শেষ হবে এই আয়োজন।

নির্বাচিত সংবাদ