২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

তিন দিনেই ভারতের জয়

তিন দিনেই ভারতের জয়
  • মোহালি টেস্টে সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকার হার ১০৮ রানে ;###;চার ম্যাচের সিরিজে ১-০তে এগিয়ে কোহলির দল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ তিন দিনেরও কম সময়ে মোহালি টেস্ট জিতে নিল ভারত! সফরকারী দক্ষিণ আফ্রিকাকে ১০৮ রানের বিশাল ব্যবধানে হারাল বিরাট কোহলির দল। দৃশ্যত তৃতীয় দিন হলেও শনিবার ৫২ ওভারের মধ্যেই খেল খতম! যেখানে ২১৮ রানের জয়ের লক্ষ্যে নেমে দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১০৯ রানে গুটিয়ে যায় প্রোটিয়ারা। মূলত ভারতীয় স্পিন-বিষে নীল হাশিম আমলার দল। তার আগে ভারত অলআউট হয় ঠিক ২০০ রানে। প্রথম ইনিংসে দুই দলের রান যথাক্রমে ২০১ ও ১৮৪। ম্যাচে ৮ উইকেট (৩+৫) নেয়ার পাশাপশি ব্যাট হাতে ৩৮ ও ৮ রান করে ম্যাচসেরা স্বাগতিক অলরাউন্ডার রবিন্দ্র জাদেজা। দারুণ জয়ে চার টেস্টের সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল ক্রিকেটের মোড়লরা। ব্যাঙ্গালুরে দ্বিতীয় ম্যাচ শনিবার থেকে।

স্বাগতিকদের অলআউটসহ প্রথম দিনেই মোট ১২ উইকেট পড়ায় বোঝা যাচ্ছিল দ্রুত ফল দেখতে যাচ্ছে মোহালি টেস্ট। শেষ অবধি হয়েছেও তাই। শুক্রবার ২ উইকেটে ভারত ১২৫ রান তোলার পর ধারণা করা হচ্ছিল উইকেটের চরিত্র পাল্টে যাচ্ছে। বল ব্যাটে আসবে। কিন্তু ৩৯ রানের মধ্যে শেষ ৮ উইকেট হারিয়ে ২০০ রানে গুটিয়ে যায় কোহলিরা। ভয়ঙ্কর উইকেটে বুক চিতিয়ে একাই লড়েছেন চেতেশ্বর পুজারা। স্রোতের বিপরীতে ৭৭ রানের মহাগুরুত্বপূর্ণ ইনিংস উপহার দেন এই টেস্ট স্পেশালিস্ট। তার সৌজন্যেই প্রতিপক্ষকে ২১৮ রানের চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে সক্ষম হয় ভারত। মজার বিষয়, ঘূর্ণি উইকেটের ভয়েই কি না ডিন এলগারের সঙ্গে ইনিংস ওপেন করতে নামেন ‘বোলার’ ভারনন ফিল্যান্ডার! পরিকল্পনা বুমেরাং। রবিন্দ্র জাদেজার দ্বিতীয় বলেই আউট ফিল্যান্ডার।

আমলাদের জুয়াটা একদমই কাজে লাগেনি। মাত্র ১০ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ থেকে ছিটকে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। দলীয় ৩২ রানের মাথায় চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এবি ডি ভিলিয়ার্স আউট হলে প্রোটিয়াদের আশা শেষ হয়ে যায়। স্কোর বোর্ডে ৪৫ রানে ডিন এলগার (১৬), ৬০ রানে শেষ স্বীকৃত ব্যাটসম্যান ড্যান ভিলাসের (৭) পতনের পর জয়ের গন্ধ পেতে শুরু করে ভারত। স্বীকৃত ব্যাটসম্যানদের কিছুটা লজ্জা দিয়ে সপ্তম উইকেট জুটিতে ৪২ রান যোগ করে ফন জিল আর সিমন হারমার কেবল প্রোটিয়াদের আফসোস বাড়িয়েছেন। জিল ৩৬ আর হারমার করেন ১১ রান। সব বাধা পেরিয়ে তিন দিনেই ভারতকে ম্যাচ জিতিয়ে দেন স্পিনাররা। ২১ রানের বিনিময়ে ৫ উইকেট নিয়ে যেখানে নেতৃত্ব দেন বেশ কিছুদিন পর ফেরা জাদেজা।

প্রধান অস্ত্র রবিচন্দ্রন আশ্বিনের শিকার ৩, অপর ঘূর্ণি বোলার অমিত মিশ্র নিয়েছেন ১ উইকেট। শনিবার পাঞ্জাব ক্রিকেট স্টেডিয়াম যেন ব্যাটসম্যানদের বধ্যভূমিতে পরিণত হয়। দু’দলের মিলিয়ে সারাদিনে পরে ১৭ উইকেট, এর মধ্যে কেবল ১টি পেসারদের! গোটা ম্যাচেই অবশ্য ফিল্ডিংয়ে পেসাররা ছিলেন দর্শকের ভূমিকায়। দুই দলের ছয় পেসার মিলে নিয়েছেন ৫ উইকেট। বাকি ৩৫টি-ই স্পিনারদের! অতিথিদের স্পিন-বিষে নীল করে দিতে বস রবি শাস্ত্রীর পরিকল্পনাটা ভালই কাজে লাগে। এজন্য কিউরেটর দলজিৎ সিংকে লম্বা একটা ধন্যবাদ দিতে পারেন কোহলি!

নির্বাচিত সংবাদ