১৬ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

মাদারীপুরে যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে নির্যাতন করে হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, মাদারীপুর, ৭ নবেম্বর ॥ মাদারীপুরে যৌতুকের জন্য মিতু আক্তার (২০) নামে এক গৃহবধূকে নির্যাতন করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে। শুক্রবার রাতে গৃহবধূকে হত্যার পর লাশ বারান্দায় রেখে ঘর তালা দিয়ে শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে গেছে। শনিবার বেলা ১১টার দিকে পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে। জানা যায়, দুই বছর আগে সদর উপজেলার কালিরবাজার রাধাবাড়ির তৈয়ব আলী হাওলাদারের ছেলে ইতালি প্রবাসী সৌরভ হাওলাদার আলআমিনের সঙ্গে পার্শ্ববর্তী ভূতেরবাড়ি কলিমা গ্রামের ছালাম জমাদারের মেয়ে মিতু আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পরে বিভিন্ন সময়ে শ্বশুরবাড়ির চাপে মিতুর বাবা ও ভাই চার লাখ টাকা যৌতুক দেয়। কিন্তু ছেলের পরিবার কিছুদিন ধরে আরও ছয় লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে আসছিল। মেয়ের বাবা ছালাম জমাদার যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় মিতুর শ্বশুরবাড়ির লোকজন শুক্রবার রাতে মিতুকে শারীরিক নির্যাতন করে হত্যা করে লাশ বারান্দায় ফেলে পালিয়ে যায়। খবর পেয়ে বাবা ও ভাই গিয়ে শ্রীনদী ফাঁড়ির পুলিশের মাধ্যমে মিতুর লাশ উদ্ধার করে।

মিতুর বাবা ছালাম জমাদার বলেন, ‘আমরা বিভিন্ন সময়ে ছেলের পরিবারকে চার লাখ টাকা যৌতুক দিয়েছি। কিন্তু তারা আরও ৬ লাখ টাকা দাবি করে আসছিল। কিন্তু আমরা টাকা দিতে না পারায় আমার মেয়েকে তারা মেরে ফেলেছে। আমি আমার মেয়ে হত্যার বিচার চাই।’

মাদারীপুর সদর থানার ওসি জিয়াউল মোর্শেদ বলেন, ‘লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

নির্বাচিত সংবাদ