১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রঙে রঙিন সবার মুখ

জীবনে সব ক’টি দিন মানুষের এক রকম যায় না। বছরের কোন কোন দিন ইচ্ছে করেও মনে রাখা যায় না। আবার কিছুদিন এবং কিছু মুহূর্ত ইচ্ছে করলেও ভুলে থাকা যায় না, স্মরণীয় হয়ে থাকে আজীবন। ঠিক তেমনি পাতা ঝরা নির্জীব কোন এক শীতের সকালে, একঝাক মেধাবী তরুণ-তরুণী চিকিৎসক হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে জীবন শুরু করে কমিউনিটি বেজ্ড মেডিক্যাল কলেজে (সিবি)। তারা ১৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী। সেই প্রথম দিন থেকেই পড়াশোনার চাপে ব্যস্ত থেকে কিভাবে পাঁচটি বছর পার করে দিল, কেউ টেরই পায়নি। এইতো আর ক’টা দিন পরই চূড়ান্ত পেশাগত পরীক্ষা। এরপরই ডাক্তার। শিক্ষা জীবনের এই শেষ মুহূর্তে এসে ১৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অত্যন্ত আনন্দিত আর উৎসব মুখর পরিবেশে পালন করল র‌্যাগ ডে তথা সমাপনী সম্মেলন।

দিনটি ছিল বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর। ‘ঙহব লড়ঁৎহবু, ঙহব এড়ধষ, ঞড়মবঃযবৎ বি ধৎব ড়হব ঝড়ঁষ’- এই স্লোগানকে সামনে রেখে বর্ণিল এক আয়োজন করা হয়। এ উপলক্ষে ক্যাম্পাস নয়নাভিরাম ও দৃষ্টিনন্দন আলোকসজ্জায় সুসজ্জিত করা হয়। এছাড়া নানা রঙের আলপনা আঁকা হয় ক্যাম্পাসের সর্বত্র। সকাল ৯ টায় কলেজ অডিটরিয়ামে কেক কেটে মূল অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন কলেজের অধ্যক্ষ ডা. মির্জা হামিদুল হক। যেখানে উপাধ্যক্ষ ডা. মির্জা মানজারুল হকসহ অন্য শিক্ষকরাও উপস্থিত ছিলেন। এরপর শিক্ষার্থীরা শিক্ষকদের সঙ্গে নিয়ে বের করে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা। এরপর রং উৎসবে সামিল হয় সবাই। বৈকালিক বিরতির পর সন্ধ্যায় ১৭টি রঙিন ফানুস উড়ানোর মাধ্যমে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যেখানে কলেজের সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীরা নেচে গেয়ে এ উদযাপনকে স্বার্থক করে তুলে। সর্বশেষ ১৭তম ব্যাচ বিধায় ১৭টি আতশ বাজি ফুটিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি করা হয়।

র‌্যাগ ডে পালনকারী শিক্ষার্থীরা তাদের অনুভূতির কথা ব্যক্ত করে বলেন, ভীষণ আনন্দ লাগছে ঠিকই কিন্তু তার মাঝেও খানিকটা বেদনা লুকিয়ে আছে, আর সেটা হচ্ছে বন্ধুদের ছেড়ে যাওয়ার কষ্ট। ভুলতে পারবো না এই পাঁচ বছরকে, ভূলতে পারব না আমার শ্রদ্ধেয় শিক্ষকদের, আমার প্রাণের বন্ধুদের। শুধুই প্রার্থনা, যে যেখানেই থাকুক সবাই যেন ভাল থাকে, সবাই যেন সবাইকে মনে রাখে, আমাদের বন্ধুত্ব যেন অটুট থাকে আজীবন।

:তৌহিদুল হক ও আশিফুল ইসলাম

সমাবর্তনে প্রাণের উচ্ছ্বাস

ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হলো ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের দশম সমাবর্তন। গত ৫ নবেম্বর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে সমাবর্তন আনুষ্ঠিত হয়। সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। সমাবর্তন বক্তা হিসেবে ছিলেন প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান। এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাকের চেয়ারপারসন স্যার ফজলে হাসান আবেদ ও ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সৈয়দ সাদ আন্দালিব। উল্লেখ্য, ১৯৯২ সালের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় অধ্যাদেশের আওতায় ২০০১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রথম সমাবর্তন হয় ২০০৬ সালে।

: ক্যাম্পাস প্রতিবেদক