২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সংসদ অধিবেশন শুরু সাদা মনের মানুষ ছিলেন মহসীন আলী ॥ প্রধানমন্ত্রী

সংসদ রিপোর্টার ॥ দশম জাতীয় সংসদের অষ্টম অধিবেশন রবিবার বিকেলে স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হয়েছে। চলবে ২৩ নবেম্বর পর্যন্ত। অধিবেশনের প্রথম দিনে রেওয়াজ অনুযায়ী চলতি সংসদের সদস্য সৈয়দ মহসীন আলীর মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করে দিনের অন্যান্য কার্যসূচী স্থগিত রেখে অধিবেশন মুলতবি করা হয়। শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মহসীন আলীকে সাদা মনের মানুষ হিসেবে আখ্যায়িত করে তার প্রতি শ্রদ্ধা জানান।

জাতীয় সংসদ ভবনের কেবিনেট কক্ষে বেলা সাড়ে ৩টায় স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সংসদের অষ্টম অধিবেশন আগামী ২৩ নবেম্বর পর্যন্ত চলবে। প্রতিদিন বিকেল সোয়া ৪টায় অধিবেশন শুরু হবে।

বৈঠকে কমিটির সদস্য সংসদ নেতা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, বিরোধী দলীয় নেতা রওশন এরশাদ, সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, ডেপুটি স্পীকার মোঃ ফজলে রাব্বী মিয়া, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, মইন উদ্দীন খান বাদল ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক অংশগ্রহণ করেন।

বিকেলে স্পীকারের সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অধিবেশনে স্পীকার ও ডেপুটি স্পীকারের অনুপস্থিতিতে অধিবেশন পরিচালনার জন্য ৫ সদস্যের সভাপতিম-লী মনোনীত করা হয়। তারা হলেন- অধ্যাপক মোঃ আলী আশরাফ, আবু জাহির, তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস, মোঃ ফখরুল ইমাম ও বেগম সেলিনা বেগম।

অধ্যাদেশ উত্থাপন ॥ রাষ্ট্রপতির জারি করা দু’টি অধ্যাদেশ রবিবার জাতীয় সংসদে উত্থাপন করা হয়েছে। অধিবেশনের শুরুতেই আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী এ্যাডভোকেট আনিসুল হক অধ্যাদেশ দু’টি উত্থাপন করেন। এরমধ্যে একটি স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) নির্বাচন সংক্রান্ত। অপরটি মানিলন্ডারিং প্রতিরোধ (সংশোধন) অধ্যাদেশ।

গত ২ নবেম্বর রাষ্ট্রপতির জারি করা স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) (সংশোধন) অধ্যাদেশ-২০১৫ তে বলা হয়েছে, কোন পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণের জন্য কোন ব্যক্তিকে কোন রাজনৈতিক দল কর্তৃক মনোনীত প্রার্থী বা স্বতন্ত্র প্রার্থী হতে হবে। রাজনৈতিক দল কর্তৃক মনোনীত প্রার্থী বা স্বতন্ত্র প্রার্থীর নির্বাচনে অংশগ্রহণ সংক্রান্ত যে কোন বিষয় অধ্যাদেশটিতে থাকবে।

শোক প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা ॥ অধিবেশনে সদ্য প্রয়াত সমাজকল্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলীসহ দেশী-বিদেশি বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়। শোক প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, সৈয়দ মহসিন আলী ছিলেন অত্যন্ত সাদা মনের মানুষ। খোলা মনের মানুষ। তিনি গান ভালবাসতেন। রেডিওর শিল্পী ছিলেন। সংসদের শেষ বক্তব্যেও তিনি গান শুনিয়েছেন। দু’হাতে দান করতে পছন্দ করতেন তিনি। যা আয় করতেন তার পুরোটাই দান করে দিতেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুস্থ মানুষের উন্নয়নে কিভাবে কাজ করবেন সেটাই তার প্রধান চিন্তা ছিল। ধাপে ধাপে তৃণমূল থেকে তিনি রাজনীতি করে এসেছেন। ছাত্রলীগ, যুবলীগ, তারপর আওয়ামী লীগ করেছেন। তিনি আরও বলেন, তার কিছু আচরণে অনেক সময় অনেকে বিরক্তি প্রকাশ করেছেন। আমার কাছে অনেকে নালিশ করেছেন। কিন্তু আমি তাকে ভালভাবে চিনতাম বলে কারও কথা শুনিনি। তিনি বলেন, একবার সাংবাদিকদের ওপর তিনি ক্ষেপে গিয়েছিলেন। কিন্তু ওই দিন এক সাংবাদিক তাকে কি কটু কথা বলেছিলেন তা শোনানো হয়নি। পরে আমি তার কাছে ওইদিনের ঘটনা জানতে চেয়েছিলাম। তিনি (মহসীন আলী) বলেছিলেন, মাইকে বক্তব্য দেয়ার সময় পাশ থেকে একজন সাংবাদিক তাকে নিয়ে এমন টিপ্পনি কেটেছিলেন যে মহসীন আলী তা সহ্য করতে পারেননি। তাই মাইকে প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন।

আলোচনা শেষে সর্বসম্মতিক্রমে শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। একইসঙ্গে তাদের স্মরণে সংসদে এক মিনিট নীরবতা পালন ও দোয়া করা হয়। প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও এই আলোচনায় অংশ নেন সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত, চিফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত, সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন, জাতীয় পার্টির কাজী ফিরোজ রশীদ, জাসদের মইন উদ্দীন খান বাদল, স্বতন্ত্র সদস্য ডাঃ রুস্তম আলী ফরাজী ও হাজি মোঃ সেলিম।

অন্যদের সঙ্গে স্পীকার জাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী জঙ্গী হামলায় নিহত ফয়সাল আবেদীন দীপনের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। এছাড়া তাজিয়া মিছিলের প্রস্ততিতে বোমা হামলায় নিহতের প্রতি শোক প্রকাশ করেন।

নির্বাচিত সংবাদ