২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাড়ে চার হাজার পয়েন্টের নিচে সূচক

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ প্রথম কার্যদিবসেই পতনে লেনদেন হয়েছে দেশের উভয় পুঁজিবাজারে। দুই পুঁজিবাজারে সূচকের পাশাপাশি লেনদেনও কমেছে। রবিবার প্রধান পুঁজিবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে লেনদেন হওয়া ৭২ শতাংশ কোম্পানির শেয়ার কমায় প্রধান সূচকের পতন হয়েছে ৫৯ পয়েন্ট। এই পতনের ফলে ডিএসইর সার্বিক সূচকটি সাড়ে ৪ হাজার পয়েন্টের নিচে নেমে এসেছে। দিনশেষে ডিএসই সার্বিক সূচক দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৪৪৩.১৪ পয়েন্টে। প্রায় সাড়ে ৪ মাস আগে ২৫ জুন ডিএসই সূচক সাড়ে ৪ হাজার পয়েন্টের নিচে ছিল।

বাজার পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ডিএসইতে ৩১৪ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে; যা আগের দিনের তুলনায় ২০ কোটি ৭৫ লাখ টাকা বা ৬ দশমিক ১৯ শতাংশ কম। আগের দিন এ বাজারে লেনদেন হয়েছিল ৩৩৫ কোটি টাকার শেয়ার। রবিবারে ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয় ৩১৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ড। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৬৪টির, কমেছে ২২৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টির শেয়ার দর।

সকালে ইতিবাচক প্রবণতা দিয়ে শুরুর পরে ডিএসইএক্স বা প্রধান মূল্যসূচক ৫৯ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৪৪৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। ডিএসইএস বা শরীয়াহ সূচক ১২ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে এক হাজার ৭১ পয়েন্টে। ডিএস৩০ সূচক ২১ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৬৮৯ পয়েন্টে।

ডিএসইতে লেনদেনের শীর্ষে থাকা দশ কোম্পানি হলো- ইফাদ অটোস, কেডিস এক্সেসরিজ, সাইফ পাওয়ারটেক, কাশেম ড্রাইসেলস, বাংলাদেশ স্টিল রি- রোলিং মিলস লিমিটেড, ইউনাইটেড পাওয়ার জেনারেশন এ্যান্ড ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড, বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট লিমিটেড, বেক্সিমকো ফার্মা এবং তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন। অন্যদিকে টপটেন গেইনারের তালিকায় অবস্থান করছে প্রকৌশল খাতের ৩ কোম্পানি। কোম্পানি ৩টি হচ্ছেÑ কাশেম ড্রাইসেলস, কেডিএস এ্যাক্সেসরিজ এবং রংপুর ফাউন্ডারি।

ডিএসই সূত্রে জানা গেছে, গেইনারে চতুর্থ স্থানে রয়েছে কাশেম ড্রাইসেলস। এদিন এ কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়েছে ৪ টাকা বা ৫ দশমিক ২৪ শতাংশ। কোম্পানিটি সর্বশেষ লেনদেন করে ৮০ টাকা ৩০ পয়সা দরে। এদিন ২ হাজার ৮১ বারে কোম্পানির ১২ লাখ ৭৮ হাজার ৬৫টি শেয়ার লেনদেন হয়। গেইনারের পঞ্চম স্থানে রয়েছে কেডিএস এক্সেসরিজ লিমিটেড। এদিন কোম্পানিটির শেয়ার দর বেড়েছে ৩ টাকা ৩ পয়সা বা ৪ দশমিক ৮৫ শতাংশ। কোম্পানিটির সর্বশেষ লেনদেন ৭১ টাকা ৪০ পয়সা দরে। এদিন ৩ হাজার ২০৬ বারে কোম্পানিটির ১৭ লাখ ৮৬০টি শেয়ার লেনদেন হয়। গেইনারের সপ্তম স্থানে রয়েছে এ খাতের রংপুর ফাউন্ডারি। এদিন এ কোম্পানির শেয়ারের দর বেড়েছে ৩ টাকা ৬ পয়সা বা ৩ দশমিক ৯২ শতাংশ। এছাড়া গেইনারে থাকা অন্য কোম্পানিগুলো হচ্ছে আইএফআইসি ব্যাংক ফার্স্ট মিউচুয়াল ফান্ড, এ্যারামিট, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, আইপিডিসি, সোনালী আঁশ, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড এবং আরামিট সিমেন্ট।

রবিবার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) ২১ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। এদিন সিএসই সার্বিক সূচক ১৪৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৬০১ পয়েন্টে। সিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৩৩টি কোম্পানি ও মিউচুয়াল ফান্ডের শেয়ার। এর মধ্যে দর বেড়েছে ৫১টির, কমেছে ১৬২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টির।

সিএসইর লেনদেনের সেরা কোম্পানিগুলো হলো : কেডিএস এক্সেসরিজ, সাইফ পাওয়ার টেক, ইউনাইটেড পাওয়ার, বিএসআরএম লিমিটেড, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, ইফাদ অটোস, ইউনাইটেড এয়ার, বিএসআরএম স্টিল, শাহজিবাজার পাওয়ার ও স্কয়ার ফার্মা।

নির্বাচিত সংবাদ