২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আইসিসিতে শ্রীনির চেয়ারে মনোহর

  • ভারতীয় বোর্ডের রদবদল, টেকনিক্যাল কমিটির প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলী, স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে ছাঁটাই রবি শাস্ত্রী

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইন্ডিয়ান ক্রিকেট প্রশাসন (বিসিসিআই) থেকে আগেই অপসারণ করা হয়েছিল। বোর্ডের ৮৫তম এজিএম-এ এবার নারায়ণস্বামী বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা আইসিসির চেয়ারম্যান পদ থেকেও সরিয়ে দেয়া হলো। তার স্থলে আইসিসির চেয়ারে বসানো হলো বিসিসিআই বস শশাঙ্ক মনোহরকে। শশাঙ্ক পন্থীরা সোমবারের ওই সভায় আইসিসিতে শ্রীনির থাকা নিয়ে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন। গ্রুপটি সংখ্যাগরিষ্ঠ হওয়ায় সিদ্ধান্ত নিতে এতটুকু সমস্যা হয়নি। এর মধ্য দিয়ে আইসিসিতে ‘ডাইনোসর’ শ্রীনি-যুগের পতন হলো! পাশাপাশি ভারতীয় ক্রিকেটের গুরুত্বপূর্ণ পদে আনা হলো একাদিক পরিবর্তন। পুনরায় টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারে বসলেন কলকাতা ‘মহারাজ’ সৌরভ গাঙ্গুলী। স্বার্থের দ্বন্দ্বে ছাঁটাই করা হয়েছে ডিরেক্টর কাম অন্তর্বর্তী কোচ রবি শাস্ত্রীকেও!

প্রয়াত জগমোহন ডালমিয়ার উত্তরসূরি হিসেবে বোর্ডের চেয়ারে বসে দশ দফা সুপারিশ করেছিলেন মনোহর। দেশটির সুপ্রীমকোর্টের নির্দেশ মতো স্বার্থের সংঘাত দ্বন্দ্বকেও কঠোর হস্তে দমন করলেন সাধারণ আইনজীবী থেকে বস বনে যাওয়া তুমুল জনপ্রিয় এই ব্যক্তিত্ব। দৃষ্ঠান্ত হিসেবে বোর্ড থেকে প্রথমেই তার ছেলেকে পদত্যাগ করার নির্দেশ দেন মনোহর। আইপিএলে কলঙ্কের দায় মাথায় নিয়ে বিসিসিআই থেকে বিতারিত হলেও এতদিন ভারতীয় বোর্ডের প্রতিনিধি হিসেবে আইসিসির চেয়ারম্যান পদে ছিলেন শ্রীনি। কিন্তু বিসিসিআইয়ের কালকের এজিএমে নেয়া সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মনোহরকে স্থলাভিষিক্ত করা হয়। ফলে বোর্ডের সব পদ থেকেই শ্রীনিকে ছিটকে দেয়ার ক্ষেত্রে সফল হতে চলেছেন বিদর্ভের দুধে আইনজীবী!

এমন কি ভারতের সর্বোচ্চ আদালাতের নির্দেশ মতো এই সভায়ও উপস্থিত থাকতে পারেননি শ্রীনি। ফলে তামিলনাড়ু ক্রিকেট এ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধি হিসেবে ছিলেন ভাইস-প্রেসিডেন্ট পিএস রমন। আগামী জুন পর্যন্ত আইসিসির প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন বিসিসিআই বস মনোহর। অন্যদিকে ছেলে স্টুয়ার্ট বিনিকে যুক্তিহীনভাবে জাতীয় দলে সুযোগ করে দেয়ায় নির্বাচক কমিটি থেকে বহিষ্কার করা হয় দেশটির ১৯৮৩ বিশ্বকাপজয়ী দলের সদস্য রজার বিনিকে। ডিরেক্টর কাম অন্তর্বর্তী কোচ রবি শাস্ত্রীকে আইপিএলের গর্বনিং বডি থেকেও ছেঁটে ফেলা হয়েছে! গর্বনিং কাউন্সিল থেকে পদন্নোতি দিয়ে ‘দাদা’ সৌরভকে বোর্ডের টেকনিক্যাল পদ দেয়া হয়েছে। এজিএমের সিদ্ধান্তে লিজেন্ড অনিল কুম্বলেকে সরিয়ে তাকে এখানও বাসানো হয়। বিনির জায়গায় দক্ষিণাঞ্চল থেকে সাবেক উইকেটরক্ষক এমএসকে প্রসাদ এবং রাজেন্দ্র সিংয়ের জায়াগায় গগন খোদা নির্বাচক কমিটিতে আসেন।

বিনিকে সরিয়ে দেয়া প্রসঙ্গে মনোহর বলেন, ‘আমরা স্টুয়ার্ট বিনির ক্যারিয়ার নষ্ট করতে চাই না বলে ওর বাবাকে নির্বাচক কমিটি থেকে সরানো হয়েছে।’ সঙ্গে তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমরা চাই বিসিসিআইতে স্বচ্ছতা এবং কোথাও যেন স্বার্থের সংঘাত দেখা না যায়।’ খরচ বাঁচাতে আইপিএলের সদস্য সংখ্যাও কমিয়ে দেয়া হয়েছে। তবে চেয়ারম্যান হিসেবে যথারীতি রাজি শুক্লাকে রেখে দেয়া হয়েছে। আগের টার্মেও প্রশংসিত হয়েছিলেন মনোহর।