২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভারতীয় ২ শ’ কাটি ডলার ঋণে শর্ত শিথিল চায় বাংলাদেশ

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ নতুন ভারতীয় লাইন অব ক্রেডিটের (এলওসি) ২০০ কোটি ডলার ঋণে শর্তের শিথিলতা চেয়েছে বাংলাদেশ। এখন ভারতের পক্ষ থেকে মতামত জানানোর পরই শুরু হবে আন্তর্জাতিক ঋণ চুক্তি স্বাক্ষরের প্রক্রিয়া। এ বিষয়গুলো নিয়ে দু-দেশের উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) অতিরিক্ত সচিব আসিফ-উজ-জামান এবং কো-চেয়ার করেন ভারতীয় এক্সিম ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা মুকুল সরকার। এতে ভারতের এক্সিম ব্যাংক এবং সে দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন বিভাগের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, উভয় দেশের মধ্যে শর্তের বিষয় নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। এর পর ভারতীয় এক্সিম ব্যাংকের প্রতিনিধিরা জানিয়েছেন, তারা পরে ভারতে গিয়ে তাদের চূড়ান্ত মতামত জানাবেন। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে সর্বোচ্চ ৬৫ শতাংশ পন্য আমদানী যাতে করা যায়, সে বিষয়টি ভেবে দেখতে। তাছাড়া ভারতীয় এক্সিম ব্যাংকের দাবি ছিল যারা বাংলাদেশে প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ করবে তাদের আমদানী পণ্যের ক্ষেত্রে ভ্যাট ও ট্যাক্স যাতে মওকুফ করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী ট্যাক্স ও ভ্যাট মওকুফের কোন সুযোগ নেই। সুতরাং এটি মানা সম্ভব নয়।

এর আগে প্রকল্প বাস্তবায়নে পণ্য ও সেবা গ্রহণের ক্ষেত্রে কমপক্ষে ৭৫ শতাংশ আমদানির প্রস্তাব দিয়েছিল ভারত। গত আগষ্টে দুই দফা এবং অক্টোবরের মাঝামাঝিতে আরেক দফা আন্ত :মন্ত্রণালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে পূর্ত কাজ সংশ্লিষ্ট প্রকল্পে অর্ধেক পণ্য এবং অন্য প্রকল্পে সর্বোচ্চ ৬০ শতাংশ পর্যন্ত আনার সিদ্ধান্ত হয়। এর পর ভারতের কাছে সেই প্রস্তাব পাঠানো হয়। দেশটি আগের ১০০ কোটি ডলার ঋণের মতো প্রতিটি প্রকল্পে পৃথকভাবে বিবেচনা করে পণ্য আমদানির শর্ত নির্ধারণ করতে চেয়েছে। ফলে ভারত থেকে আমদানির শর্ত শেষ পর্যন্ত শিথিল হতে পারে নাকি আগের মতোই থাকবে তা নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। তবে শেষ পর্যন্ত কিছু শর্ত শিথিল হবে বলে মনে করছে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)।