২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ মালয়েশিয়া যাচ্ছে যুব হকি দল

আজ মালয়েশিয়া যাচ্ছে যুব হকি দল
  • জুনিয়র এশিয়া কাপ হকি

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আগামী ১৪-২২ নবেম্বর জুনিয়র এশিয়া কাপ হকির (ছেলেদের) অষ্টম আসর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে মালয়েশিয়ার কোয়ানতানে। এতে বাংলাদেশসহ ৮ দেশ অংশ নিচ্ছে। ৮ দলের মধ্যে সব থেকে নিচের র‌্যাঙ্কিংয়ের দল বাংলাদেশ। তবুও অন্তত টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে খেলার লক্ষ্য নিয়ে বাংলাদেশ অনুর্ধ ২১ জাতীয় হকি দল আজ বুধবার ঢাকা ত্যাগ করবে।

টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে আট দল। এর মধ্যে পুল ‘এ’তে রয়েছে ভারত, মালয়েশিয়া, জাপান ও চীন। পুল ‘বি’ তে বাংলাদেশের সঙ্গী হয়েছে কোরিয়া, পাকিস্তান এবং ওমান।

জুনিয়র হকি এশিয়া কাপে বাংলাদেশের লক্ষ্য চারে থাকা। আর এই লক্ষ্য অর্জিত হলেই জুনিয়র হকি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো খেলার স্বপ্নপূরণ হবে। দলে রয়েছেন অধিনায়ক অসীম গোপ, খোরশেদুর রহমান, সারোয়ার হোসেন ও রুম্মান সরকারের মতো জাতীয় দলের আট খেলোয়াড়।

এ উপলক্ষে মঙ্গলবার বাংলাদেশ অলিম্পিক এ্যাসোসিয়েশনের (বিওএ) ডাচ্ বাংলা অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিস্তারিত জানান দলের প্রধান কোচ মাহবুব হারুন ও অধিনায়ক অসীম গোপ। এ সময় হকি ফেডারেশনর সহ-সভাপতি আবদুর রশিদ শিকদার, খাজা রহমতউল্লাহ্, যমুনা ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিকুল আলম এবং এটিএন বাংলার উপদেষ্টা মীর মোতাহার হাসান উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে বাংলাদেশ খেলবে পাকিস্তানের বিপক্ষে। এছাড়া ১৫ ও ১৭ নবেম্বর ওমান ও কোরিয়ার মোকাবেলা করবে বাংলাদেশ। কোচ মাহবুব হারুন বলেন, ‘স্বল্প সময়ের অনুশীলনে কেমন ফল হতে পারে তা সবারই জানা। ২৫ সেশন অনুশীলন করানোর সুযোগ পেয়েছি। তাছাড়া টুর্নামেন্টে আমাদের প্রতিপক্ষরা সবাই র‌্যাঙ্কিংয়ে ওপরের দিকে রয়েছে। বাংলাদেশের হকি বোদ্ধাদের বর্তমানে ধারণা জন্মেছে কেবল ওমানকে নিয়েই। তাদের মতে ওমানই আমাদের প্রধান প্রতিপক্ষ।

কিন্তু আমার দৃষ্টিতে কোরিয়া, চীন, মালয়েশিয়াসহ সবাই প্রধান প্রতিপক্ষ। শুধু ওমানকে লক্ষ্য করে সেখানে গেলে আমাদের ফল ভাল হবে না। লক্ষ্য থাকতে হবে প্রতিপক্ষ সব দলের বিপক্ষেই লড়াই করা।’ তিনি যোগ করেন, ‘স্বল্প সময়ের অনুশীলন বলেই ফিটনেসের উপরেই গুরুত্ব দিয়েছি বেশি। পাশাপাশি গেম প্ল্যানেও কাজ করেছি। সেই ধারাবাহিকতায় জাতীয় দলের সঙ্গে ক’টি এবং সেনাবাহিনীর সঙ্গে একটি অনুশীলন ম্যাচ খেলিয়েছি। এতে সাফল্যের পাল্লা যুবদলের দিকেই ভারি ছিল। তবে দেশের মাটি ও বিদেশের মাটিতে খেলার মধ্যে পার্থক্য রয়েছে অনেক। যাই হোক না কেন, আমাদের মূল লক্ষ্য চারে থাকেই জুনিয়র বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাওয়া।’

অধিনায়ক অসীম গোপ বলেন, ‘যেহেতু আমরা অনেকদিন থেকেই এক সঙ্গে খেলছি, তাই আমাদের মধ্যে বোঝাপড়ার বিষয়টা অনেক বেশি। আর মালয়েশিয়ায় গিয়ে তা ঠিক থাকলে ভাল কিছু করা সম্ভব। গেম প্ল্যান বাস্তবায়নের জন্য দীর্ঘমেয়াদী বাস্তবায়নের প্রয়োজন হয়। কিন্তু আমরা সেটি পাইনি। তারপরও আশা করছি, কোচের টিপসগুলো মাঠে প্রয়োগ করতে পারব। তাহলেই ভাল ফল পাব।’

কোচ হারুন প্রাথমিক ক্যাম্পে ৩৬ খেলোয়াড়কে ডাকেন। তারপর সেটা ছোট হতে হতে প্রথমে ২৪ এবং চূড়ান্তভাবে ১৮ জনে গিয়ে দাঁড়ায়।

যুব হকি দলের মালয়েশিয়া সফরে খরচ ধরা হয়েছে ৪০ লাখ টাকা। যার মধ্যে ১০ লাখ যমুনা ব্যাংক লিমিটেড, পাঁচ লাখ ফুওয়াং দিচ্ছে। এছাড়া বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) ও ইসলামী ব্যাংকও এই সফরে আর্থিক সহায়তা করবে।

বাংলাদেশ জাতীয় যুব হকি দল ॥ অসীম গোপ, আবু সাঈদ নিপ্পন, খোরশেদুর রহমান, রেজাউল করিম বাবু, ফরহাদ সিটুল, আশরাফুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, সারোয়ার হোসেন, নাঈম উদ্দিন, ফজলে হোসেন রাব্বি, সাব্বির হোসেন, রুম্মান সরকার, দ্বীন ইসলাম ইমন, মাহাবুব হোসেন, নাজমুল হাসান ও মিলন হোসেন। প্রধান কোচ মাহবুব হারুন এবং সহকারী কোচ আলমগীর আলম।