২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

আজ কি হাসবে মাহমুদুল্লাহর ব্যাট?

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দারুণ একটি বিশ্বকাপ কেটেছে এবার বাংলাদেশ দলের। প্রথমবারের মতো ওয়ানডে বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলে টাইগাররা। আর এ আসরে ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। টানা দুটি সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে চমক উপহার দিয়েছিলেন এবং বিশ্বব্যাপীই তাকে নিয়ে ক্রিকেটবোদ্ধারা প্রশংসাবাণী উচ্চারণ করেছেন। সাবেক ভারতীয় ক্রিকেট তারকা সৌরভ গাঙ্গুলী বলেছিলেন, ধারাবাহিকতার দিক থেকে বাংলাদেশের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মাহমুদুল্লাহ। তবে বিশ্বকাপের পর সেই ধারাবাহিকতায় ভাটা পড়ে। টানা ৫ ম্যাচ বড় কোন ইনিংস খেলতে পারেননি। অবশেষে গত জুলাইয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অর্ধশতক হাঁকিয়ে নিজেকে ফিরে পান তিনি। তবে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে গত দুই ওয়ানডেতে সেই ধারাবাহিকতা রাখতে পারেননি। করতে পেরেছেন মাত্র ৯ ও ৪ রান।

কিন্তু মাহমুদুল্লাহর ব্যাটে দ্রুতই রান প্রত্যাশা বাংলাদেশ দলের। দ্বিতীয় ওয়ানডে শেষে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাও তেমনটাই জানালেন। আজ সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে জ্বলে উঠবে মাহমুদুল্লাহর ব্যাট? দারুণ কোন ইনিংস উপহার দিতে পারবেন তিনি? ক্যারিয়ারের শুরুর দিকে ৬ কিংবা ৭ নম্বরেই ব্যাটিংয়ে নামতেন। মূলত বোলিং অলরাউন্ডার হিসেবেই বড় পরিচিতি ছিল মাহমুদুল্লাহর। কিন্তু সর্বশেষ কয়েকটি সিরিজে তিনি হয়ে গেছেন বাংলাদেশের অন্যতম ব্যাটিং স্তম্ভের নাম। গত বছর শেষদিকে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে সিরিজ থেকেই জ্বলজ্বলে নৈপুণ্যে উদ্ভাসিত ছিলেন তিনি। ওই সময় টানা ৮ ম্যাচে রানের ফোয়ারা ছুটেছে তার ব্যাটে। করেছেন ১২৭.৫০ দুই সেঞ্চুরি ও তিন অর্ধশতকসহ ৫১০ রান। এই ধারাবাহিকতার কারণেই ব্যাটিং অর্ডারে উন্নতি ঘটে মাহমুদুল্লাহর। ওয়ানডাউন কিংবা ৪ নম্বরেই ব্যাট করে থাকেন দলের প্রয়োজন অনুসারে। পুরোদস্তুর ব্যাটসম্যান হয়ে ওঠার কারণেই সম্প্রতি মাহমুদুল্লাহর ওপর থেকে চাপ কমাতে তাকে দিয়ে বোলিংও করানো হয় না। বিশ্বকাপের পর অবশ্য ব্যাটিংয়ের ওই ধারাবাহিকতা থাকেনি। ব্যাট হাতে ৫ ম্যাচে ছিলেন ব্যর্থ। অবশেষে সেই ব্যর্থতা কাটিয়ে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ৫০ রানের একটি ইনিংস খেলে স্বরূপে ফেরেন। দলের টপঅর্ডারের অন্যতম নির্ভরতা মাহমুদুল্লাহ অবশ্য সর্বশেষ দুই ম্যাচেই আবার নিষ্প্রভ ছিলেন। প্রথম ওয়ানডেতে তিন নম্বরে নেমে ৯ রান করেই ফিরে যান। আর দ্বিতীয় ওয়ানডেতে চার নম্বরে নেমেও অনুজ্জ্বল তিনি। এবার ফিরে গেছেন ৪ রান করেই। সম্প্রতি দলগতভাবেই দারুণ সংঘবদ্ধ হয়ে উঠেছে বাংলাদেশ দল। দুয়েকজন খেলোয়াড় এখন অপরিহার্য নায়ক জয় পাওয়ার ক্ষেত্রে।

প্রথম দুই ওয়ানডেতে সেই প্রমাণ পাওয়া গেছে। দুই ম্যাচেই মাহমুদুল্লাহ খেলতে পারেননি। প্রথম ম্যাচে তামিম, মুশফিক ও সাব্বির ব্যাট হাতে ভাল রান করে দলকে দারুন সংগ্রহ গড়ে দিয়েছেন। আর দ্বিতীয় ওয়ানডেতে দারুণ খেলেছেন ইমরুল, সাব্বির ও নাসির। তবে এরপরও মাহমুদুল্লাহর ব্যাটের দিকে তাকিয়ে থাকে বাংলাদেশ দল। টানা ২ ম্যাচে মাহমুদুল্লাহ ব্যর্থ হলেও অধিনায়ক মাশরাফির বিশ্বাস পরের ম্যাচেই স্বমহিমায় ফিরে আসবেন। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রিয়াদের সহজাত খেলাই হলো একটু সময় নিয়ে, পরে পুষিয়ে দেয়া। দুটি ম্যাচে পারেনি, আমার বিশ্বাস পরের ম্যাচে রিয়াদ ঘুরে দাঁড়াবে।’ যেকোন দলের টপঅর্ডার ব্যাটসম্যানের কাছে বড় ইনিংস দেখার আশায় থাকে দল।