১৯ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নির্বাচন অবাধ নয়, নিরপেক্ষ হয়েছে ॥ সুচি

মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী নেতা আউং সান সুচি বলেছেন, দেশটিতে সদ্যসমাপ্ত ঐতিহাসিক নির্বাচন ‘অবাধ না হলেও নিরপেক্ষ হয়েছে।’ নির্বাচনের পর প্রথম সাক্ষাতকারে সুচি মিয়ানমারের জনগণকে অভিনন্দন জানান। সাংবিধানিক কারণে তিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট হতে পারবেন না। তবে তিনি একজনকে খুঁজে নেবেন বলে জানিয়েছেন। খবর বিবিসির।

দেশটিতে কয়েক দশকের সেনাশাসন শেষে ২৫ বছরের মধ্যে এই নির্বাচনকেই সবচেয়ে গণতান্ত্রিক বলে বিবেচনা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার আইএএনএস জানিয়েছে, মিয়ানমারের নির্বাচন কমিশন পার্লামেন্ট নির্বাচনে ১০৬টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করেছে। এদের মধ্যে ৫৪টি পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের ৫৪টি আসনও রয়েছে। সুচির নেতৃত্বাধীন ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্রেসি (এনএলডি) হাউজ অব রিপ্রেজেন্টেটিভে প্রাধান্য বিস্তার করছে। তার দল ঘোষিত ৫৪টি আসনের মধ্যে ৪৯টিতে জয়ী হয়েছে। আর ক্ষমতাসীন ইউনিয়ন সলিডারিটি এ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট পার্টি (ইউএসডিপি) মাত্র তিনটি আসনে জয়ী হয়েছে। দেশটির পার্লামেন্ট নির্বাচনে ৯১টি রাজনৈতিক দল থেকে ৬ হাজার ৩৮ জন প্রার্থী নির্বাচনে অংশ নিয়েছেন। এদের মধ্যে ৩১০ জন স্বতন্ত্রপ্রার্থী। তিনটি পর্যায়ের নির্বাচনে ১ হাজারেরও বেশি আসনে এই প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ঘোষিত প্রথমদিনের ফল অনুযায়ী সুচির এনএলডি পার্লামেন্টের দুটি কক্ষ মিলিয়ে ৯৬টি আসনে জয়ী হয়েছেন।

বাকি আসনের ফলাফলও পর্যায়ক্রমে ঘোষণা করা হবে। মিয়ানমার পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে ১৭৩৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। আর উচ্চ কক্ষ হাউস অব ন্যাশনালিটিজে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ৮৮৬ জন প্রার্থী। আর বাকি ৩৪১৯ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন আঞ্চলিক বা প্রাদেশিক পার্লামেন্টের আসনের জন্য।