১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কক্সবাজারে নতুন প্রতিরক্ষা রাডার উদ্বোধন করলেন রাষ্ট্রপতি

কক্সবাজারে নতুন প্রতিরক্ষা রাডার উদ্বোধন করলেন রাষ্ট্রপতি

দেশের আকাশসীমার পাশাপাশি বিশাল সমুদ্র জলসীমা নজরদারির আওতায় আনতে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর কক্সবাজার রাডার ইউনিটে বিমান প্রতিরক্ষা রাডার (ওয়াই এলসি-৬) সংযোজন করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বুধবার কক্সবাজার রাডার ইউনিটে অনুষ্ঠিত এক অনুষ্ঠানে এই আধুনিক রাডারের উদ্বোধন করেন।

তিনি রাডার ইউনিটের কমান্ডিং অফিসার উইং কমান্ডার মেজবাহ-উস সাত্তারের কাছে সংযোজন আদেশ হস্তান্তর করেন।

এ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেন, বিএএফ জাতীয় নিরাপত্তার এবং রাডার সংযোজনের মাধ্যমে জাতির অগ্রগতির জন্য আরও অবদান রাখতে সক্ষম হবে। খবর বাসসর

রাষ্ট্রপতি বলেন, যুদ্ধের সময়ে রাডার শত্রু পক্ষের জঙ্গী বিমানের উপস্থিতির আগাম সঙ্কেত দিয়ে থাকে যা কার্যকর প্রতিরক্ষা পদক্ষেপ নিতে সহায়ক। সংযোজিত নতুন রাডার সমুদ্র জলসীমায় বিমান প্রহরায় নির্দেশনা দিতে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে বলে তিনি আশাপ্রকাশ করেন। তিনি বলেন, এর ফলে বিমান বাহিনী ফোর্সেস গোল-২০৩০ বাস্তবায়নে আরও একধাপ এগিয়ে যাবে বলে আমি দৃঢ় বিশ্বাস করি।

রাষ্ট্রপতি বলেন, কোন বাহিনীর সফলতার জন্য পেশাগত দক্ষতার কোন বিকল্প নেই। দক্ষতা আস্থা বৃদ্ধি করে এবং খ্যাতি ও মর্যাদা বয়ে আনে। তিনি উন্নত ও সর্বশেষ প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে একজন দক্ষ পাইলট, ইঞ্জিনিয়ার, কন্ট্রোলার এবং আদর্শ বিমান সৈনিক হয়ে ওঠার জন্য বিমান সেনাদের প্রতি আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে উত্তম প্রশিক্ষণ, কঠোর পরিশ্রম এবং শৃঙ্খলা বজায় রাখা প্রয়োজন। রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনাকে অবশ্যই মনে রাখতে হবে কঠোর পরিশ্রম ও সততার কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, দৃঢ় মনোবল, কঠোর পরিশ্রম, উৎসর্গ, দেশপ্রেম এবং সম্পদের সঠিক ব্যবহার আপনার পেশাগত জীবনে সর্বোচ্চ স্থানে পৌঁছতে সহায়ক হতে পারে।

রাষ্ট্রপতি বলেন, আপনার কাছে জনগণের প্রত্যাশা তাদের কল্যাণের জন্য আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করা এবং তাদের ও দেশের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। রাষ্ট্রপতি রাডার পরিচালনা কক্ষ থেকে সরাসরি শনাক্তকরণ প্রত্যক্ষ করেন।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ এর আগে রাডার ইউনিটে পৌঁছলে বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার মার্শাল আবু ইসরার তাঁকে স্বাগত জানান।

আইএসপিআরের এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ বিমান বাহিনী ঘাঁটি কক্সবাজারের র‌্যাডার ইউনিটে এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতি বুধবার বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে আধুনিক ওয়াইএলসি-৬ র‌্যাডার অন্তর্ভুক্তির আদেশনামা প্রদান করেন। আদেশনামা গ্রহণ করেন র‌্যাডার ইউনিটের অধিনায়ক উইং কমান্ডার মেজবাহ-উস সাত্তার। রাষ্ট্রপতি ফলক উন্মোচনের মাধ্যমে র‌্যাডার ইউনিট উদ্বোধন করেন।

এরপর রাষ্ট্রপতি বিমান বাহিনী তথা দেশ ও জাতির অব্যাহত শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মোনাজাত করেন। পরে রাষ্ট্রপতি বিমান বাহিনী কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফটোসেশনে অংশ নেন। এরপর তিনি বিমান বাহিনীর যুদ্ধ বিমানের মনোজ্ঞ ফ্লাই পাস্ট প্রত্যক্ষ করেন।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বিমান বাহিনী ঘাঁটি কক্সবাজারের এয়ার অধিনায়ক এয়ার কমডোর মোঃ পারভেজ ইসলাম বিমান বাহিনীতে নব সংযোজিত র‌্যাডার সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে ব্রিফ প্রদান করেন।

রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ বিমান বাহিনীর সর্বস্তরের সদস্য এবং উপস্থিত অতিথিদের উদ্দেশে বক্তব্য প্রদানকালে আশাপ্রকাশ করেন যে, নতুন অন্তর্ভুক্ত র‌্যাডারটি বাংলাদেশের বিশাল সমুদ্রাঞ্চল তথা সমগ্র মহীসোপান এলাকার প্রতিরক্ষায় নিয়োজিত বিমানসমূহকে সঠিক দিকনির্দেশনা প্রদান করতে এবং তাদের চলাচল ও নিয়ন্ত্রণে বিশেষ ভূমিকা পালন করতে সক্ষম হবে এবং ফোর্সেস গোল-২০৩০ বাস্তবায়নে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী আরও একধাপ এগিয়ে যাবে। তিনি আরও বলেন যে, বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর কার্যক্রমের পরিধি আজ দেশের গ-ি পেরিয়ে আন্তর্জাতিক পরিম-লে বিস্তৃত। বিমান বাহিনীর স্বাভাবিক কার্যক্রম পরিচালনায় পেশাদারিত্বের পাশাপাশি জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে বিমান বাহিনী সদস্যদের কর্তব্যনিষ্ঠা ও দক্ষতার জন্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দের প্রশংসা পাওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করেন। পরবর্তীতে রাষ্ট্রপতিকে কক্সবাজার র‌্যাডার ইউনিটে নতুন সংযোজিত র‌্যাডারটির অপারেশনাল কার্যক্ষমতা প্রদর্শন করা হয়।