২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

কুষ্টিয়ায় জাসদ কর্মী নিহত ॥ আওয়ামী লীগ নেতা-কর্মীর বাড়িতে হামলা

নিজস্ব সংবাদদাতা, কুষ্টিয়া ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় আওয়ামী লীগ ও জাসদের মধ্যে ভয়াবহ সংঘর্ষে গুরুতর আহত জাসদকর্মী বাবলু (৩৫) দীর্ঘ পাঁচদিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মারা গেছে। বুধবার গভীর রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু ঘটে। এ ঘটনার জের ধরে ওই রাতেই জাসদের বিক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগের ৭ নেতাকর্মীর বাড়িতে হামলা চালিয়ে লুটপাট, ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ প্রায় ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুঁড়ে। বর্তমানের এলাকায় জাসদ এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় ৪ প্লাটুন পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্র জানায়, গত ৬ নবেম্বর রাতে ভেড়ামারা উপজেলার চাঁদগ্রাম ইউনিয়নের চাঁদগ্রামে আওয়ামী লীগ ও জাসদ নেতা-কর্মীদের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে আওয়ামী লীগ ও জাসদের তিন কর্মী গুরুতর আহত হয়। তাদেরকে মুমূর্ষ অবস্থায় প্রথমে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এদের মধ্যে জাসদ কর্মী বাবলুর অবস্থার অবনতি হলে গত ১১ নবেম্বর বুধবার তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গভীর রাতে তার মৃত্যু হয়। রাতেই এ খবর ছড়িয়ে পড়লে বিক্ষুব্ধ জাসদ নেতা-কর্মীরা সংঘবদ্ধ হয়ে আওয়ামী লীগের ৭ নেতা-কর্মীর বাড়িতে হামলা ও লুটপাট চালায়। অগ্নি সংযোগ করা হয় ছাত্তার মন্ডল, ছাদেক, মমিন, মিরাজ, নাসির, বদর ও মিজান মন্ডলের বাড়িতে। এছাড়াও লুটপাট এবং ভাঙচুর করা হয় এনামুল মেম্বার, মালেক, কুদ্দুস, সদর মন্ডলের বাড়ি, কামাল ও মজিবারের মুদি দোকানে। ভেড়ামারা থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম জানান, এলাকায় একজন নিহত হওয়ার ঘটনার জের ধরে তার সমর্থকরা বেপরোয়া অগ্নিসংযোগ, লুটপাট ও ভাঙচুর চালায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১২ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছুড়ে। সেখানে ৪ প্লাটুন পুলিশ