২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ

  • বিশ্বকাপ বাছাই ম্যাচ খেলতে শুক্রবার ঢাকায় আসছে সকারুরা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ নিরাপত্তার চাদরে ঢাকা থাকবে বাংলাদেশ বনাম অস্ট্রেলিয়ার ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচটি। যেকোন আন্তর্জাতিক ফুটবল ম্যাচ আয়োজনেই বাংলাদেশ সরকার এবং বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের রয়েছে সুনাম। এবারও তার ব্যতয় হবে না। কিন্তু ফুটবল ফেডারেশন অব অস্ট্রেলিয়ার (এফএফএ) অতিরিক্ত নাক উঁচু স্বভাবের কারণে এবার প্রয়োজনের চেয়ে একটু বেশিই নিরাপত্তা বিধানের ব্যবস্থা করতে হবে বাংলাদেশ সরকার এবং বাফুফেকে। বিগত কয়েক বছরে যত বড় বড় আন্তর্জাতিক ম্যাচ আয়োজন করা হয়েছে তার প্রায় সবই সফলভাবে যিনি নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন, তিনি ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার এবং বাফুফের সদস্য শেখ মারুফ হাসান। অস্ট্রেলিয়ার ম্যাচেও এর ব্যতিক্রম হবে না বলেই জানান তিনি। সেই সঙ্গে অস্ট্রেলিয়া ফুটবল ফেডারেশনের চাহিদা অনুযায়ী যা যা ব্যবস্থা নেয়া দরকার তাও নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইয়ের ম্যাচ খেলতে ঢাকায় আসার শুক্রবার কথা রয়েছে অস্ট্রেলিয়া জাতীয় ফুটবল দলের। এর আগেও বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে ঢাকায়। বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচও খেলে গেছে কিরগিজস্তান, তাজিকিস্তান, জর্দান। এরা কেউই বাংলাদেশের নিরাপত্তা নিয়ে বা কোন বিষয়ে অভিযোগ করেনি। তবে অস্ট্রেলিয়া করেছে। বাংলাদেশ ঝুঁকিপূর্ণ দেশ, এখানে নিরাপত্তার অভাব- এই অজুহাত বা অভিযোগ তুলে শুরুতে আসতেই চায়নি! ফিফার কাছে আবেদনও করেছিল ম্যাচটি যেন কোন নিরপেক্ষ ভেন্যুতে অনুষ্ঠিত হয়। কিন্তু ফিফা সাফ জানিয়ে দেয়, বাংলাদেশে কোন সমস্যা নেই, তাই ওখানে গিয়েই খেলতে হবে। ফলে বাধ্য হয়েই ঢাকায় আসছে চারবার বিশ্বকাপের মূলপর্বে খেলা সকারুসরা। তবে আসার আগে তাদের নিরাপত্তা প্রতিনিধিও এসে দেখেছেন কি কি নিরপত্তা দেয়া হবে তাদের দলকে। পরিকল্পনা দেখে সন্তোষ প্রকাশও করেছেন। সেই সঙ্গে আবদারও করেছেন- তাদের ফুটবলারদের স্টেডিয়ামে যাতায়াত ব্যবস্থাটা যেন হয় নির্বিঘœ। হোটেল থেকে ম্যাচ ভেন্যুতে যাওয়ার পাশাপাশি, অনুশীলন মাঠে যাতায়াতে দলটির যাতে কোন রকম সমস্যায় না পড়তে হয় সে ব্যবস্থাই করা হবে বলে জানিয়েছেন মারুফ হাসান। তাছাড়া সফরকারী যখন শেখ জামাল ধানম-ি ক্লাবের মাঠে অনুশীলন করবে তখন মাঠে থাকবে পর্যাপ্ত পুলিশ। ম্যাচ ভেন্যু বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের উঁচু ভবনগুলোতে টহলে থাকবে সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যরা। সঙ্গে থাকবে সাদা পোশাকের পুলিশের তীক্ষè নজরদারি। শুধু তাই নয়, আন্তর্জাতিক এই ম্যাচটির সুষ্ঠুভাবে আয়োজন ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ১৬ ও ১৭ নবেম্বর বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম এলাকায় সব দোকানপাট ও যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে। বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।