১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

এবার টি২০তে জ্বলে ওঠার অপেক্ষায় মুস্তাফিজ

  • ৯ ওয়ানডের ক্যারিয়ারে তৃতীয়বার ৫ উইকেট শিকারের অনন্য রেকর্ড, চলতি বছরে বোলারদের মধ্যে বিশ্বে ৯ নম্বরে ‘কাটার’ মাস্টার

মোঃ মামুন রশীদ ॥ এখনও কৈশোরের ছাপ চোখেমুখে এবং সারল্যটাও কাটেনি। বাস্তবে অমায়িক। কিন্তু বল হাতে থাকলেই যেন বিধ্বংসী মনোভাব চলে আসে। প্রতিপক্ষের জন্য ভয়ঙ্কর তিনি। গত এপ্রিলে পাকিস্তানের বিপক্ষে বিস্ময়কর আবিষ্কার মুস্তাফিজুর রহমানের কোনকিছু জানান না দিয়েই আবির্ভাব। সে সময় অনেকেই চিনতেন না তাকে, এমনকি পাইপ-লাইনে থেকে আলোচনায়ও ছিলেন না। কিন্তু অনাহুত অতিথির মতো এসেই চমক দেখান। পাকিস্তানের বিপক্ষে একমাত্র টি২০ ম্যাচে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পদার্পণ হলেও এরপর আর মাত্র দুটি টি২০ খেলেছেন। ধুম-ধারাক্কা ব্যাটিংয়ের ফরমেটেও দারুণ মিতব্যয়ী বোলিং করে নিয়েছিলেন ২ উইকেট। সবমিলিয়ে মাত্র ৩ টি২০ খেলেছেন। কিন্তু এর মধ্যে ৯ ওয়ানডে খেলা হয়ে গেছে। অভিষেক সিরিজেই ভারতের বিপক্ষে সেরা খেলোয়াড় মুস্তাফিজ একের পর এক কীর্তি গড়েই চলেছেন। বুধবার জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে ৩৪ রানে ৫ উইকেট দখল করে আরেকটি কীর্তির জন্ম দিয়েছেন। ৯ ওয়ানডেতে তৃতীয়বার ৫ উইকেট দখলের এমন ইতিহাস বিশ্বের আর কোন বোলারের নেই। সবমিলিয়ে চলতি বছর ২৬ উইকেট নিয়ে বছরের শীর্ষ উইকেটশিকারির তালিকায় ৯ নম্বরে আর দেশের মধ্যে শীর্ষস্থানে তিনি। এবার টি২০ ক্রিকেটে দারুণ কিছু করার অপেক্ষা। আজ থেকে জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজে ‘কাটার’ মাস্টার নাম পেয়ে যাওয়া মুস্তাফিজের বোলিংয়ের ওপর তাই ভরসা করবে বাংলাদেশ। মুস্তাফিজ কোথা থেকে আসলেন? কোথায় তাকে লুকিয়ে রেখেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)? এমন গবেষণা ভারতের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ চলার সময়ই হয়েছে। ক্রিকেট বিশ্বের সবাই মুস্তাফিজের ভয়ঙ্করত্বের কারণে চুলচেরা বিশ্লেষণ করেছেন। হ্যাঁ, সাধারণ এক নেট বোলার থেকে তিনি বাংলাদেশ দলের অপরিহার্য এবং বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম ভয়ঙ্কর পেসার হয়ে উঠেছেন। ওয়ানডে অভিষেকেই ভারতের বিপক্ষে ৫০ রানে ৫ উইকেট শিকার করে সবাইকে চমক উপহার দেন তিনি। অনেকে ভেবেছিলেন এটা হঠাৎ করেই হয়ে গেছে, অপরিচিত বোলার তাই। তবে তার ভয়ঙ্কর ‘কাটারগুলো’ নিয়ে ঠিকই গবেষণা শুরু হয়ে গিয়েছিল। দ্বিতীয় ম্যাচে আরও ভীতিকর বোলিং করে ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের কাছে বিভীষিকার কারণ হয়ে ওঠেন। এবার ৪৩ রানে ৬ উইকেট শিকার করেন তিনি। ক্যারিয়ারের প্রথম দুই ম্যাচে ১১ উইকেট ছিল না ওয়ানডে ইতিহাসের আর কারও। ৩ ম্যাচের সিরিজে সবমিলিয়ে ১৩ উইকেট নিয়ে অভিষেক সিরিজে ওয়ানডে ইতিহাসের সেরা নৈপুণ্য দেখানোর রেকর্ড গড়েন। আর সে কারণেই প্রথমবারের মতো ক্রিকেট পরাশক্তি ভারতের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের গৌরব দেখায় টাইগাররা। ধারাবাহিকতা রেখে আরেক ক্রিকেট পরাশক্তি দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেও দুর্দান্ত বোলিং করে ৫ উইকেট নেন ৩ ম্যাচে। জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে উইকেট পাননি দারুণ বোলিং করেও। তবে পরের দুই ম্যাচে ৩ ও ৫ উইকেট শিকার করে আরেকটি ইতিহাসের জন্ম দেন। মাত্র ৯ ওয়ানডেতেই তৃতীয়বার ৫ উইকেট পেলেন মুস্তাফিজুর রহমান। গড়লেন আরেকটি ইতিহাস। এত কম ম্যাচে ৩ বার পাঁচ উইকেট পাননি ওয়ানডে ইতিহাসে আর কোন বোলার। বুধবার জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে তৃতীয় ওয়ানডেতে ৩৪ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন। তিনবার ৫ উইকেট পেতে রায়ান হ্যারিসের লেগেছিল ১৬ ম্যাচ, অজন্তা মেন্ডিসের ১৭ ম্যাচ। ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে যত বিশ্বখ্যাত বোলার এসেছেন তাদের অনেক ম্যাচ খেলতে হয়েছে ক্যারিয়ারে তিনবার ৫ উইকেট শিকার করতে। পাকিস্তানী তরুণ পেসার মোহাম্মদ আমিরের বোলিংটা বেশ উপভোগ করতেন। সেই আমিরও এমনটা করে দেখাতে পারেননি। ৯ ম্যাচে তার উইকেট সংখ্যা ২৬। এটাই তাকে চলতি বছর বিশ্বক্রিকেটে বোলারদের পারফর্মেন্সের তালিকায় নবম স্থান এনে দিয়েছে। সেরা দশে আছেন নিউজিল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার ৩ ক্রিকেটার। এছাড়া পাকিস্তান, ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও বাংলাদেশের একজন ক্রিকেটার আছেন। অসি পেসার মিচেল স্টার্ক ১৮ ম্যাচে ৪১ উইকেট নিয়ে সবার ওপরে। দেশের হয়ে চলতি বছর উইকেট শিকারে সাকিব আল হাসানকে হটিয়ে সবার ওপরে উঠে গেছেন মুস্তাফিজ। চলতি বছর ১৬ ম্যাচে সাকিবের সংগ্রহ ২৪ উইকেট। দেশের হয়ে তৃতীয় অবস্থানে রয়েছেন মাশরাফি মর্তুজা। তার ১৬ ম্যাচে উইকেট সংখ্যা ২১।

ওয়ানডেতে এক কীর্তি যার, সেই মুস্তাফিজের এখন পর্যন্ত টি২০ ক্রিকেটে তেমন বড় কোন চমক নেই। কারণ খেলার সুযোগই হয়নি বেশি। এ বছর মাত্র ৩ টি২০ খেলেছে বাংলাদেশ এবং মুস্তাফিজও তাই। অভিষেক টি২০ ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪ ওভার বোলিং করে ২০ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছিলেন। আর সেটাই ছিল বিস্ময়কর বিষয়। কারণ টি২০ ক্রিকেটে ব্যাটসম্যানরা চড়াও হয়ে খেলেন। কিন্তু তরুণ মুস্তাফিজকে ঠিকভাবে খেলতেই পারেনি পাক ব্যাটসম্যানরা। ওই ম্যাচেই প্রথমবারের মতো পাকিস্তানকে টি২০ ক্রিকেটে প্রথমবার পরাজিত করে বাংলাদেশ। এরপর দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে দুই টি২০ ম্যাচের প্রথমটায় ৩০ রান দিয়ে উইকেটশূন্য থেকেছেন এবং দ্বিতীয় ম্যাচে ৩৪ রানে নেন ১ উইকেট। এবার জিম্বাবুইয়ের বিপক্ষে মুস্তাফিজের জন্য পরীক্ষা। সুযোগ নিজেকে টি২০ ক্রিকেটেও ভয়ঙ্কর হিসেবে প্রমাণের। দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ শুরু আজ। সবার দৃষ্টি থাকবে মুস্তাফিজের ওপরেই।