২২ অক্টোবর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দৌলতপুরে এমপির বাড়িতে বোমা হামলা ॥ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

দৌলতপুরে এমপির বাড়িতে বোমা হামলা ॥ প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা

নিজস্ব সংবাদদাতা, দৌলতপুর, কুষ্টিয়া ॥ কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের বর্তমান সরকারের সাবেক সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দীন আহমেদের বাড়িতে বোমা হামলার ৫ম বার্ষিকী আজ ১৩ নবেম্বর । ২০১০ সালের ১৩ নবেম্বর রাতে চালানো বোমা হামলায় সংসদ সদস্য অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে যান। তবে এ বোমা হামলায় নিহত হন এক নিরীহ স্কুল শিক্ষক ও বোমা হামলাকারী দু’জন। গত ৫ বছরেও এ মামলার তদন্ত কাজ শেষ না হওয়ায় মামলার ভবিষৎ নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মামলার বাদী এ্যাডভোকেট এজাজ আহমেদ মামুন।

২০১০ সালের ১৩ নবেম্বর রাতে তৎকালীন আওয়ামীলীগ দলীয় সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দীন আহমেদর বাসভবনে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা নেতৃবৃন্দ ও শিক্ষকদের সাথে সাংসদের বৈঠক চলাকালে সেখানে দূরনিয়ন্ত্রিত যন্ত্রের সাহায্যে একটি শক্তিশালী বোমার বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে বোমা বহনকারী আহাদুল ও তার সহযোগী ছিদ্দিক এবং তারাগুনিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আসমত আলী নিহত হন। আহত হন সংসদ সদস্য আফাজ উদ্দিন আহমেদ ও অপর এক শিক্ষক। ঘটনার রাতেই সাংসদ পুত্র এ্যাডভোকেট এজাজ আহমেদ মামুন বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় পৃথক দু’টি মামলা দায়ের করেন। এরমধ্যে একটি বিষ্ফোরক দ্রব্য আইনে এবং অপরটি হত্যা মামলা। তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ১৯ এপ্রিল ৭ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে একটি মামলার চার্জশীট দাখিল করা হয়। কিন্তু রহস্যজনক কারনে গ্রেপ্তার হওয়া আসামীদের ১৬৪-এ জবানবন্দী দেওয়া আসামীদের বাদ দিয়ে চার্জশীট দাখিল করা হয়। যার কারনে উচ্চ আদালতে কোয়সমেন্ট করেছেন মামলার বাদী। অপর মামলটি আজও তদন্তাধীন রয়েছে। বিভিন্ন সময় মামলার আইও পরিবর্তন হওয়ায় মামলটির অগ্রগতি হচ্ছে না। তাই বিষয়টি নজরে নেওয়ার জন্য প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন মামলার বাদী ও সাবেক সাংসদ পুত্র দৌলতপুর আওয়ামীলীগের সভাপতি আফাজ উদ্দিন আহমেদর কনিষ্ঠ পুত্র এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন। তিনি জানান, বোমা হামলার সাথে জড়িতরা জামিনে ছাড়া পেয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছে। তাই আমি ও আমাদের পরিবারের সদস্যরা শংকার মধ্যে রয়েছি। এখন মাননীয় প্রধান হস্তক্ষেপ ছাড়া এর সুবিচার নিয়েও উৎকন্ঠায় রয়েছি।

তবে সংসদ সদস্যকে হত্যার উদ্দেশ্য ন্যক্কারজনক এ বোমা হামলায় যারা জড়িত তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিয়ে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠা করার দাবী দৌলতপুরবাসীর।