১১ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

খাদেম হত্যাচেষ্টা সৈয়দপুরে প্রতিবাদ সমাবেশ, বিক্ষোভ মিছিল ॥ আটক ১

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী ॥ সৈয়দপুর শহরের হাতিখানার প্রতীকী কারবালার শিয়া সম্প্রদায়ের খাদেম হাসনাঈনকে (৬০) সেজদারত অবস্থায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় পুলিশ সন্দেহভাজন এক যুবককে আটক করেছে। অপরদিকে শুক্রবার জুমার নামাজের পর আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাত সৈয়দপুর শাখার উদ্যোগে হত্যা চেষ্টার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়েছে।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে পুলিশ একজনকে আটক করেছে। জুমার নামাজের পর পরই আহ্লে সুন্নাত ওয়াল জামাতের সদস্যরা সৈয়দপুর শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে হাজারো মুসল্লি মিছিল নিয়ে শহীদ স্মৃতি অম্লান চত্বরে জড়ো হয়। সেখান থেকে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ঐ চত্বরে এসে প্রতিবাদ সমাবেশে মিলিত হয়। বিক্ষোভ মিছিলে সংগঠনের সহস্রাধিক সদস্য অংশ নেন। মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা প্রতীকী কারবালার খাদেম হাসনাঈনকে হত্যা চেষ্টার সঙ্গে জড়িতদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিতে বিভিন্ন সেøাগান দেয়। বিক্ষোভ মিছিল শেষে প্রতিবাদ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন হাজী আজহার সুলতান। বক্তারা অভিযোগ তুলে বলেন, ঢাকার হোসেনী দালানে শিয়া সম্প্রদায়ের ওপর বোমা হামলার ঘটনার সঙ্গে এই হামলা একই সূত্রে গাঁথা। সমাবেশে বলা হয়, দেশের অন্যান্য স্থানের ন্যায় সৈয়দপুরে তাজিয়া কারবালার খাদেম মোঃ হাসনাঈনকেও হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। বক্তারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত, ঘটনার নায়কদের চিহ্নিত করে ফাঁসি দাবি করেন ।

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, আগামী ১২ রবিউল আউয়ালের আগেই খাদেম হাসনাঈনকে হত্যা চেষ্টার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করে আইনের আওতায় আনার দাবি করে বলা হয় অন্যথায় আগামীতে কঠোর কর্মসূচী ঘোষণা করা হবে। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাতের নেতা হাফেজ মোঃ রিজওয়ান আল কাদেরী, মোঃ আকবর চৌধুরী ওরফে হিটলার চৌধুরী ভুলু, ইসলামী ছাত্রসেনার সভাপতি আসিফ আশরাফী, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মোঃ রাসেল, মোঃ খালেদ, হাফেজ মোঃ মমিনুল।

আটক ১ ॥ প্রতীকী কারবালার খাদেম মোঃ হাসনাঈনকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় সৈয়দপুর থানা পুলিশ সন্দেহভাজন পাপ্পু (২৬) নামের একজনকে আটক করেছে। সে শহরের হাতিখানা অবাঙালী ক্যাম্পের আশরাফ আলীর ছেলে। তাকে সৈয়দপুর থানায় রেখে ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। সৈয়দপুর থানার ওসি আমিরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তবে পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে সে কি বলেছে তা জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার মাগরিবের নামাজে সেজদারত অবস্থায় সৈয়দপুর শহরের হাতিখানা কবরস্থান সংলগ্ন প্রতীকী কারবালার খাদেম মোঃ হাসনাঈনকে পেছন থেকে মুখোশধারী দুর্বৃত্তরা ঘাড়ে কুপিয়ে মাথা বিচ্ছিন্ন করে হত্যার চেষ্টা করে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনি রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের নিউরোসার্জারির ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন।