২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

উরুগুয়েকে হারিয়ে শীর্ষে ইকুয়েডর

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ বিশ্বকাপ বাছাই ফুটবলে দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলে চমক অব্যাহত রেখেছে ইকুয়েডর। আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে মিশন শুরু করা দেশটি এবার হারিয়েছে আরেক পরাশক্তি উরুগুয়েকে। বাংলাদেশ সময় শুক্রবার ভোরে অনুষ্ঠিত ম্যাচে ইকুয়েডর ২-১ গোলে পরাজিত করে শক্তিশালী উরুগুয়েকে।

বাছাইপর্বে ইকুয়েডরের এটি টানা তৃতীয় জয়। তিন জয়ে পূর্ণ ৯ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে দেশটি। কোপা আমেরিকার চ্যাম্পিয়ন চিলি প্রথমবারের মতো পয়েন্ট হারিয়েছে। নিজেদের মাঠে এগিয়ে যেয়েও তারা ১-১ গোলে ড্র করছে কলম্বিয়ার সঙ্গে। প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে বলিভিয়া। ভেনিজুয়েলাকে ৪-২ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তারা। ভারি বৃষ্টির কারণে হয়নি দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা ও ব্রাজিলের ম্যাচটি। ধ্রুপদী এই মহারণ অনুষ্ঠিত হবে আজ সকালে। বর্তমানে এই অঞ্চলের পয়েন্ট তালিকায় সবার উপরে ইকুয়েডর। তিন ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে এক নম্বরে তারা। সমান ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে চিলি। ৬ পয়েন্ট নিয়ে উরুগুয়ের অবস্থান তিন নম্বরে।

টানা সাত ম্যাচ জয়ের তৃপ্তি সঙ্গী করে কলম্বিয়ার বিপক্ষে খেলতে নামে চিলি। শুরু থেকে ভাল ফুটবল খেললেও জয়ের ধারা আর ধরে রাখতে পারেনি তারা। প্রথমার্ধের শেষদিকে (৪৪ মিনিট) মাটিয়াস ফার্নান্ডেসের ফ্রিকিক কলম্বিয়ার ডি বক্সে খুঁজে পায় আর্টুরো ভিদালকে। লাফিয়ে উঠে ছয় গজ দূর থেকে অসাধারণ হেডে বল জালে জড়ান বেয়ার্ন মিউনিখের এই মিডফিল্ডার। তবে এর আগে চিলিয়ান গোলরক্ষক ক্লডিও ব্রাভোর পরীক্ষা নেন কলম্বিয়ার দানি টোরেস। তার কোনাকুনি শটটি থেকে বিপদ হলেও হতে পারত। খেলার শুরুতেই অবশ্য আলেক্সিস সানচেজের একটি শট ফিরিয়ে দেন কলম্বিয়ান গোলরক্ষক। চোট কাটিয়ে আন্তর্জাতিক ফুটবলে ফেরা কলম্বিয়ার মিডফিল্ডার জেমস রড্রিগুয়েজ মাঝেমধ্যেই ঝলক দেখাচ্ছিলেন। রিয়াল মাদ্রিদের এই তারকা দলকে সমতায় ফেরান ৬৭ মিনিটে। বাঁপ্রান্ত দিয়ে চিলির পেনাল্টি বক্সের মধ্যে ঢোকা মুরিয়েলের শট এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে ফেরার পর তিনি বল বাড়ান মাঝে থাকা রড্রিগুয়েজকে। এক ডিফেন্ডারের দুই পায়ের ফাঁক দিয়ে নিচু শটে ডান পোস্ট ঘেঁষে জালে ঢোকান এই মিডফিল্ডার। পুরো ম্যাচেই বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে থাকা চিলি গোলের সুযোগও নষ্ট করেছে কয়েকটি। তবে ম্যাচে আধিপত্য সেভাবে না থাকলেও কলম্বিয়ার রক্ষণ ছিল বেশ আঁটসাঁট।

ম্যাচ শেষে চিলির আর্জেন্টাইন কোচ জর্জ সামপাওলি বলেন, ম্যাচে আমাদের জয়ের সুযোগ ছিল। আমরাই আধিপত্য ধরে রেখে খেলেছি। তবে এই ফলাফল মোটেও খারাপ নয়। এক পয়েন্ট অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আগের ম্যাচে হার মানা কলম্বিয়াও স্বস্তি পেয়েছে এই ড্রতে। দলটির আর্জেন্টাইন কোচ জোশে প্যাকারম্যান বলেন, চিলি অত্যন্ত শক্তিশালী দল। তাদের মাঠ থেকে পয়েন্ট পাওয়াটা কম নয়। তবে আমাদেরও জয়ের সুযোগ ছিল। আরেক ম্যাচে ঘরের মাঠে ফেলিপ কাইসেডোর গোলে ২৩ মিনিটে এগিয়ে যায় ইকুয়েডর। এক গোলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিকরা। বিরতির পর শুরুতেই সমতা ফেরায় উরুগুয়ে। এডিনসন কাভানির গোলে ৪৯ মিনিটে সমতায় ফেরায় বিশ্বকাপের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়নরা। তবে সমতা ফেরানোর স্বস্তি বেশিক্ষণ থাকেনি উরুগুইয়ান শিবিরে। দশ মিনিট পরই জয়সূচক গোল আদায় করে নেয় স্বাগতিকরা। ৫৯ মিনিটে গোলটি করেন ফিডেল মার্টিনেজ।

ম্যাচ শেষে ইকুয়েডরের বলিভিয়ান কোচ গুস্টাভো কুইনটেরোস বলেন, টানা তিন ম্যাচে জয় পেয়েছি আমরা। এটা দলগত নৈপুণ্যের ফসল।