১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রোবট ড্রাগনফ্লাই

‘রোবট ড্রাগনফ্লাই’ নামে পাখির মতো উড়তে ও পোকার মতো ঝুলতে সক্ষম এমন এক ছোট রোবটের অপেক্ষায় ছিলেন ক্রাউডফান্ডিং সাইট ইন্ডিগোগোর মাধ্যমে বিনিয়োগ করা অনেকেই। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত সময়ে বানানো হলো না ৯৯ ডলার দামের এই ক্ষুদে ড্রোনটি। নগদ অর্থের অভাবে থমকে গেছে প্রকল্পটি। ১০ লাখ ডলারের তহবিল সংগ্রহ করার লক্ষ্যে নিয়ে ২০১২ সালে ক্রাউডফান্ডিং ক্যাম্পেইন শুরু“করেছিল ‘রোবট ড্রাগনফ্লাই’-এর নির্মাতা টেকজেট। কোন ছোট প্রকল্পের জন্য অনলাইনে অনেকের কাছ থেকে তহবিল সংগ্রহ করার প্রক্রিয়াকে ক্রাউডফান্ডিং বলা হয়। চলতি মাসে প্রথম শনিবার বড়সড় আর্থিক সমস্যায় থাকার কথা জানায় টেকজেট। তবে এক্ষেত্রে নিজেদের কোন দোষ নেই দাবি করে ক্রাউডফান্ডিং সাইট ইন্ডিগোগোকেই দূষছে তারা। অনলাইনে অর্থ লেনদেন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান পেপাল আর ইন্ডিগোগো তহবিলের অর্থ তাদের হাতে তুলে দিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে প্রতিষ্ঠানটি। কিন্তু এই আটকে থাকা অর্থের পরিমাণ কত, তা নিয়ে কিছু জানায়নি টেকজেট।

ক্রাউডফান্ডিং প্রকল্পগুলোর মধ্যে এটিই প্রথম ‘ব্যর্থ প্রকল্প’ নয় বলে জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট টেকক্রাঞ্চ। সস্তা ও সহজে ব্যবহার উপযোগী থ্রিডি প্রিন্টার বানানোর কথা ছিল পাইরেট৩ডি’র। কিন্তু যতগুলো প্রিন্টারের জন্য অর্ডার এসেছিল প্রতিষ্ঠানটির কাছে, তার সবগুলো তৈরি করে সরবরাহ করার আগেই নগদ তহবিলে টান পরে প্রতিষ্ঠানটির। ২০১২ সালে মার্কিন বিমানবাহিনীর অনুমোদন নিয়ে এই প্রকল্পের জন্য ১০ লাখ ডলার সংগ্রহে নেমেছিল টেকজেট। আর এখন স্টার্ট এ্যাপ প্রতিষ্ঠানটির ইন্ডিগোগোতে প্রকল্পের পেইজ থেকে বলে হয়েছে, ‘আমরা চাই না গ্রাহকরা ধীর গতিতে আসতে থাকা এই প্রযুক্তির জন্য অপেক্ষা করুক।’ আর্থিক সমস্যার কথা জানার পরও রোবট ড্রাগনফ্লাই নিয়ে হাল ছাড়েননি ইন্ডিগোগোর মাধ্যমে তহবিল সরবরাহকারী অনেকেই। প্রজেক্ট পেইজে কমেন্ট করে অপেক্ষা করার কথা জানান এর সমর্থকরা। প্রকল্পটি এখনও বাতিল হয়নি, কিন্তু এজন্য আরও অর্থ প্রয়োজন বলে জানিয়েছে টেকজেট। সেইসঙ্গে যদি এটি বাতিল হয়ে যায় তবে ‘প্রতিষ্ঠানটির সব ড্রাগনফ্লাই আইপি পুরো লাইসেন্সসহ প্রকল্পের সব সমর্থকদের হাতে পৌঁছায়, এবং তারা যেন ক্ষতিপূরণের জন্য ইচ্ছেমতো পদক্ষেপ নিতে পারে’ এমন ব্যবস্থা করার কথাও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।