২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

ভোডাফোন ভারতে ১৩ হাজার কোটি রুপি বিনিয়োগ করবে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার॥ ২০ হাজার রুপির টাকার কর-বিতর্ক এখনও পুরোপুরি না-মিটলেও ভারত সম্পর্কে ইতিবাচক বার্তা দিল ব্রিটিশ বহুজাতিক টেলিকম গোষ্ঠী ভোডাফোন।

বছরখানেক আগেও ভোডাফোন গোষ্ঠীর শীর্ষ কর্তা ভিত্তোরিও কোলাও বলেছিলেন, ভারতে ব্যবসা করা বেশ জটিল। গত মাসে অবশ্য এ দেশে এসে তিনি কবুল করেন, নতুন ভারত দেখছেন তিনি। জানিয়েছিলেন, ভারতে শেয়ার ছাড়ার ভাবনার কথা। আর এ বার লন্ডনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠকে তিনি জানালেন, আগামী দিনে এ দেশে তাঁরা আরও ১৩ হাজার কোটি রুপি বিনিয়োগ করবেন। পরিকাঠামো সম্প্রসারণ ও নতুন ব্যবসায় লগ্নি হবে এই অর্থ।

হাচিসন-এসারের সিংহভাগ শেয়ার কিনে নিয়ে ২০০৭-এ ভারতে ব্যবসা শুরু করেছিল ব্রিটিশ বহুজাতিকটি। কিন্তু এই শেয়ার কেনার বিষয়টিকে কেন্দ্র করেই জন্ম নেয় কর-বিতর্ক। তৎকালীন কেন্দ্রীয় সরকারের দাবি ছিল, ওই শেয়ার লেনদেন পর্বে কর ফাঁকি দিয়েছে ভোডাফোন। যদিও তা মানতে নারাজ সংস্থা। ব্রিটিশ বহুজাতিকটির সঙ্গে এ নিয়ে বিরোধ বাধে কেন্দ্রের তৎকালীন ইউপিএ সরকারের। এ নিয়ে ভোডাফোনের শীর্ষ কর্তারা সে সময়ে প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের সঙ্গে সাক্ষাতেও ক্ষোভ গোপন করেননি। পরে বম্বে হাইকোর্টের একটি রায় সংস্থাকে কিছুটা স্বস্তি দিলেও সেই রায়ের বিরুদ্ধে অবশ্য ফের আপিলের রাস্তা খোলা রয়েছে কেন্দ্রের। তবে নরেন্দ্র মোদী সরকার পুরনো বিতর্ক জিইয়ে তুলবে না বলেই আশা সংশ্লিষ্ট মহলে।

এ হেন নরম-গরম পরিস্থিতির কিছুটা বদল চোখে পড়ে গত মাসে কোলাও-এর ভারত সফরে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে বৈঠকে তিনি আদালতের বাইরে কর-বিতর্ক মিটিয়ে নেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। যদিও কোলাও বা জেটলি, দু’জনের কেউই এ নিয়ে খোলাখুলি মন্তব্য করেননি। পাশাপাশি সেই সময়ে কোলাও এ দেশের বাজারে শেয়ার ছাড়ার ইঙ্গিত দেন।

এ বার মোদীর উপস্থিতিতে নতুন করে লগ্নির কথা জানাল তারা। কোলাও এ দিন বলেন, ‘আমরা প্রধানমন্ত্রীর ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’ ও ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ পরিকল্পনা নিয়ে আগ্রহী। এ দেশের টেলিকম বিপ্লবে দীর্ঘ মেয়াদি দায়বদ্ধতা থেকেই আমরা সরকারের ওই সব গুরুত্বপূর্ণ প্রয়াসের অংশীদার হতে চাই। তাই পর্যায়ক্রমে বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

সংস্থা জানিয়েছে, এর মধ্যে ৮ কোটি রুপি খরচ করা হবে পরিকাঠামো উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ খাতে। প্রধানমন্ত্রীর ‘মেক ইন ইন্ডিয়া’ কর্মসূচিতে এ দেশে দু’টি ক্ষেত্রে মোট ৪ হাজার কোটি টাকা লগ্নি করবেন তাঁরা। এর মধ্যে ৩ হাজার কোটি খরচ হবে পুণে ও আমদাবাদে সংস্থার প্রযুক্তি কেন্দ্রের উন্নয়নে। ব্যবসা ও শিল্পোদ্যোগের পরিষেবার জন্য তথ্য -ভান্ডার গড়তে খরচ হবে বাকি ১ হাজার কোটি। আরও ১ হাজার কোটি টাকা খরচ হবে সংস্থার পেমেন্টস ব্যাঙ্ক পরিষেবা সংস্থা ‘এম্লপেসা’-এ, যা সকলের কাছে আর্থিক পরিষেবা পৌঁছে দিতে কেন্দ্রের পরিকল্পনাকে আরও মজবুত করবে বলেই দাবি ভোডাফোনের। শুধু লগ্নিই নয়, আগামী দু’বছরে এ দেশে কর্মী সংখ্যা ১৫ হাজারে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যমাত্রাও নিয়েছে তারা।

গ্রাহক সংখ্যার নিরিখে দ্বিতীয় স্থানে (এয়ারটেলের পরে) থাকা এই ব্রিটিশ বহুজাতিক টেলিকম সংস্থাটি এখনও পর্যন্ত ভারতে ১ লক্ষ ১১ হাজার কোটি রুপি বিনিয়োগ করেছে। সংস্থার দাবি, সরকারের কোষাগারে জমা পড়েছে এক লক্ষ কোটি টাকারও বেশি অর্থ।