২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

দেশে ফিরলেই খালেদাকে জেলে যেতে হবে ॥ এরশাদ

স্টাফ রিপোর্টার ॥ আওয়ামী লীগের ‘ভুলের’ কারণেই বিএনপির মতো ‘দানবের’ সৃষ্টি হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টি (জাপা) চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ। শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে জাতীয় পার্টির ঢাকা মহানগর উত্তরের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

খালেদা জিয়া দেশে ফিরতে পারবেন কিনা ঠিক নেই এমন মন্তব্য করে এরশাদ বলেন, দেশে ফিরলে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে জেল যেতে হবে। তিনি বলেন, আমাকে আপনি জেলে পাঠিয়েছিলেন। অকারণে বছরের পর বছর অত্যাচার করেছেন। নীরবে সহ্য করেছি। এখন দেখেন সময়ের বিবর্তন কাহাকে বলে। আমি ভাল আছি। কিন্তু আপনি? আমাকে জেলে পাঠিয়েছিলেন, এবার আপনি প্রস্তুত থাকেন। দেশে ফিরলেই আপনাকে জেলে যেতে হবে।

সম্মেলনে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংসদে বিরোধী দলীয় নেতা ও জাতীয় পার্টির প্রসিডিয়াম সদস্য রওশন এরশাদ। তিনি বলেন, এতো উন্নয়নের পরেও কেন জাতীয় পার্টি সরকার গঠন করতে পারল না। আমাদের ভুলটা কোথায়? তা খুঁজে বের করতে হবে। এখন আমাদের ঘরে বসে থাকার সময় নেই। দল টিকিয়ে রাখতে হলে নিজেদের ভুল নিয়ে আলোচনা করতে হবে। সমস্যা চিহ্নত করে কাজ করতে পারলে জাপা মানুষের গ্রহণযোগ্যতা অর্জন করবে।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত এরশাদ বলেন, ২০০৮ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে অনেকগুলো আসন ছেড়ে দিতে হওয়ায় বিএনপির চেয়ে জাতীয় পার্টি দুটি আসন কম পায়। আওয়ামী লীগের এই ভুলের কারণে বিএনপি পুনরুজ্জীবন পায়। বিএনপির মতো দানবের সৃষ্টি হয়। পরবর্তী সময়ে তারা জ্বালাও-পোড়াও করে, মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করে।

সরকারের সমালোচনা করে সাবেক সেনাপ্রধান এরশাদ বলেন, সরকার সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। তারা জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। দেশে গণতন্ত্র বলে কিছু নেই- এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, দেশে কথা বলার স্বাধীনতা নেই। সরকারের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস কারও নেই। এই অবস্থা চলতে পারে না। গণতন্ত্র রক্ষায় সরকারকে সহনশীল হওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

সম্প্রতি বিএনপির পক্ষ থেকে সরকারের প্রতি আবারও সংলাপের দাবি প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, বিএনপির কি সংলাপ করার মতো শক্তি আছে নাকি? তাদের দলের এখন বেহাল দশা। কে চলাচ্ছে দল কেউ জানে না। বিএনপির উদ্দেশে তিনি বলেন, সংলাপ চেয়ে কোন লাভ নেই। দুর্বলের সঙ্গে কেউ কথা বলে না। এরশাদ বলেন, আগামী নির্বাচনে তার দলের লক্ষ্য ১৫১ আসন। এই লক্ষ্য পূরণ করে দলকে ক্ষমতায় নিতে সংগঠিত হওয়ার জন্য নেতা-কর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

জাপার চেয়ারম্যান বলেন, আমি যেখানেই যাচ্ছি, জাতীয় পার্টি নিয়ে ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা দেখছি। এখন আমরা দলকে সংগঠিত করছি। আমাদের লক্ষ্য আগামী নির্বাচনে ক্ষমতায় যাওয়া। সাবেক এই স্বৈরশাসক ১৯৯০ সালে গণ-অভ্যুত্থানের মাধ্যমে ক্ষমতাচ্যু হন। তার ক্ষমতা ছেড়ে দেয়ার পর থেকে দেশে গণতন্ত্র চর্চা নেই বলে দাবি করেন তিনি। এরশাদ বলেন, যে গণতন্ত্রের জন্য ক্ষমতা ছেড়ে দিলাম, কোথায় গণতন্ত্র এল? কোথায় গেল গণতন্ত্র?

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে রওশন এরশাদ দলের নেতাকর্মীদের একাত্ম হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা এতো ভাল কাজ করি, এতো লোক হয় আমাদের অনুষ্ঠানে। কিন্তু আমরা ক্ষমতায় নেই কেন? এছাড়া দলের মধ্যে কোন্দল তৈরি না করে নেতাকর্মীদের আত্ম সমালোচনা করার আহ্বান জানান তিনি। সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে পানিসম্পদ মন্ত্রী ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।