১২ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্বাস থেকেই বিএনপি ত্যাগ করছি-রুমী

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরীর পদত্যাগের ১৮ দিনের মাথায় বিএনপি থেকে আরও একজন কেন্দ্রীয় নেতা পদত্যাগ করেছেন।

রবিবার দলের চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও দলের মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপনের বরাবরে পত্র প্রেরণ করে বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ও ফরিদপুর জেলা শাখার সহ-সভাপতির পদ থেকে পদত্যাগ করেন এম এম শাহরিয়ার রুমী। গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে তিনি বিএনপি থেকে পদত্যাগের কথা জানান। এর আগে ২৮ অক্টোবর দলের ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী পদত্যাগ করেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে শাহরিয়ার রুমী বলেন, ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৫ (ভাঙ্গা) আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে পরাজিত হই। তবে নির্বাচনের পর নির্যাতনের মুখে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে নেতাকর্মীদের নির্যাতনের হাত থেকে বাচাতে আওয়ামী লীগ ছেড়ে বিএনপিতে যোগ দিতে বাধ্য হই। কিন্তু আমার ওই সিদ্ধান্ত ঠিক ছিল না। তিনি বলেন, বিপরীতমুখী রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখা ঠিক হচ্ছে না। তাই শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাকি জীবন দেশ ও দশের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে চাই। দেশ ও জাতিকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও প্রগতিশীলতার দিকে সঠিক নেতৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার ব্যাপারে আওয়ামী লীগের কোনো বিকল্প নেই। সেই বিশ্বাস থেকেই বিএনপি ত্যাগ করছি।

রুমী বলেন, আমার বাবা প্রয়াত আইনজীবী শামসুদ্দীন মোল্লা মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছিলেন। দেশের খসড়া সংবিধান রচয়িতাদেরও অন্যতম ছিলেন তিনি। আমি নিজেও ফরিদপুরে ছাত্রলীগের কর্মী ও নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। পরে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের প্রচার ও অর্থ সম্পাদকের দায়িত্ব পাই । এরপর যোগ দেই আওয়ামী লীগে। এক সময় আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা উপ-কমিটির সদস্য হই।

উল্লেখ্য, এম এম শাহারিয়ার রুমী ২০০১ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফরিদপুর-৫ (ভাঙ্গা) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন না পেয়ে কাজী জাফরউল্লাহর বিরুদ্ধে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন। ওই নির্বাচনে তিনি মাত্র ৫ হাজার ৬৩২ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন।

নির্বাচিত সংবাদ