১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যৌতুকের এ্যাসিডে দগ্ধ নারী শ্রমিকের মৃত্যু

নিজস্ব সংবাদদাতা, সাভার, ১৫ নবেম্বর ॥ এসিডদগ্ধের ২১ দিন পর শেষ পর্যন্ত না ফেরার দেশে পাড়ি জমাল পোশাক শ্রমিক মাজেদা খাতুন। মাজেদা পরপারে পাড়ি জমালেও এ্যাসিড নিক্ষেপের হোতা তার স্বামী সোহাগ মিয়াকে পুলিশ এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি। রবিবার ভোরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করে মাজেদা। মাজেদা (২২) মাগুরা জেলার শালিখা থানার আড়পাড়া গ্রামের জলিল বিশ্বাসের মেয়ে। সে তার স্বামী সোহাগের সঙ্গে আশুলিয়া থানার বুড়িরবাজার উত্তরপাড়া এলাকার সবুজ মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থাকত ও স্থানীয় ‘বার্ডস গ্রুপ’ নামের একটি পোশাক কারখানায় কাজ করত।

বাড়ির মালিক জানান, ২৫ অক্টোবর গভীর রাতে মাজেদার চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন এসে দেখে স্বামী সোহাগ তাকে এ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে গেছে। স্থানীয় লোকজন সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি থানায় অবহিত করলে পুলিশ মজেদাকে উদ্ধার করে সাভার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে ওই দিনই ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে ২১ দিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে অবশেষে রবিবার ভোরে তার মৃত্যু হয়। তবে এর আগে গণস্বাস্থ্যের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানিয়েছিলেন, এ্যাসিডে ওই গৃহবধূর নাক, কান, শ্বাসনালীসহ শরীরের ২৫ শতাংশ ঝলসে যায়। নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, মাজেদার দুটি সন্তান রয়েছে। বিয়ের পর স্বামী তাকে প্রায়ই যৌতুকের জন্য চাপ প্রয়োগ করত। এরই জের ধরে সোহাগ তার ওপর এ্যাসিড নিক্ষেপ করে পালিয়ে যায়।