১৩ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বদলগাছীতে অবৈধবাভে বালু উত্তোলন ॥ বাঁধ ও রাস্তা হুমকির মুখে

বদলগাছীতে অবৈধবাভে বালু উত্তোলন ॥ বাঁধ ও রাস্তা হুমকির মুখে

নিজস্ব সংবাদদাতা, নওগাঁ ॥ নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা সদরে প্রশাসনের নাকের ডগায় ছেলাকালী নামক স্থানে ছোট যমুনা নদীর বন্যানিয়ন্ত্রন বাঁধ ও বাঁধের গাছ কেটে রাস্তা বের করে নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। অবৈধভাবে তোলা বালু বাঁধ কেটে তুলে বিক্রি করলেও স্থানীয় প্রশাসনের সেদিকে নজর নেই। প্রশাসনের এমন রহস্যজনক নীরবতায় স্থানীয় জনমনে নানা প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগে জানা গেছে, উল্লেখিত নদীর বাঁধ কাম রাস্তা কেটে জনসাধারণের চলাচলের বিঘœ ঘটিয়ে বালুর ট্রাক নামানোর জন্য রাস্তা তৈরী করা হয়েছে। শুধু বাঁধই কাটা হয়নি। বাঁধের পাশের মূল্যবান গাছগুলোও কেটে সাবাড় করা হয়েছে। এই নদীর বাঁধের রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন ৪টি ইউনিয়নের প্রায় দুই হাজারেরও বেশী লোকজন ও ছোট যানবাহন চলাচল করে। বর্তমানে বাঁধটি কেটে ফেলায় সেখানে মারাত্মক আকার ধারন করেছে। রাতের অন্ধকারে যে কোন সময় দুর্ঘটনার কবলে পড়তে হচ্ছে পথচারীদের। স্থানীয় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নামধারী কতিপয় নেতা-কর্মী প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে প্রশাসনের নাকের ডগায় উপজেলা পরিষদ এবং ইউনিয়ন পরিষদ থেকে মাত্র ৬০-৭০ গজ দুরে নদীর বাঁধের পূর্বপ্রান্ত এবং বাঁধের প্রায় ২০-৩০ টি গাছ কেটে রাস্তা বানিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করছে। বালু নেয়ার জন্য প্রতিদিন গড়ে ২০-৩০ টি ট্রাক যাতায়াত করায় বাঁধটি ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। যা বর্ষা মৌসুমে বিষফোঁড়া হয়ে দাঁড়াবে।

এলাকার কয়েক সুধিজন নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এতবড় একটা অন্যায় কাজ হলেও প্রশাসনের নিরব ভূমিকায় আমরা হতাশ। আমরা চাই অনতিবিলম্বে এটা বন্ধ করা হোক। সদর ইউপি চেয়ারম্যান এমএমগফুরকে এবিষয়ে জানালে, তিনি বলেন ইউএনও সাহেবকে বিষয়টি বলেন। এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ হুসাইন শওকত সাংবাদিকদের বলেন, বিষয়টি দেখা হচ্ছে। এ ব্যাপারে এলাকার সচেতন মহল উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।#