২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বড় প্রকল্পে বিনিয়োগে আগ্রহী এআইআইবি- জিন লিকুন

  • বাংলাদেশের উন্নয়নে সমন্বয়হীনতা দেখছে এআইআইবি

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ ছোটখাটো নয়, বরং বড় প্রকল্পেই বিনিয়োগে আগ্রহী এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক-এআইআইবি। একশ’ মিলিয়ন ডলারের বেশি ব্যয়ের প্রকল্পই সেক্ষেত্রে তাদের পছন্দ। এক সাক্ষাতকারে এসব কথা বলেছেন এআইআইবি প্রেসিডেন্ট জিন লিকুন। বাংলাদেশ উন্নয়নের সঠিক পথে থাকলেও সমন্বয়হীনতাই এখানে বড় বাধা বলে মনে করেন তিনি।

বিশ্বে দারিদ্র বিমোচন ও টেকসই উন্নয়নে কয়েক দশক ধরে কাজ করে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র কেন্দ্রিক বিশ্বব্যাংক আর জাপানের অর্থায়নে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক। তবে তাদের প্রভাব খর্ব করতে গতবছর চীনের নেতৃত্বে গড়ে ওঠে এশীয় অবকাঠামো বিনিয়োগ ব্যাংক- এআইআইবি নামের নতুন প্রতিষ্ঠান। এশিয়ার পর ইউরোপের অনেক দেশ এর সদস্য হলেও এখনও মুখ ফিরিয়ে রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র ও জাপান। বাংলাদেশ ব্যাংকটির প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য। বাংলাদেশ উন্নয়ন ফোরামের সম্মেলনে যোগ দিতে প্রথমবারে মতো ঢাকা এসেছেন এআইআইবি’র প্রেসিডেন্ট জিন লিকুন। বাংলাদেশের উন্নয়ন নিয়ে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, অবকাঠামো উন্নয়নে বাংলাদেশকে সুবিধা দিতে চায় এআইআইবি। তবে তা কেবলই মেগা প্রকল্পে। বিশ্বব্যাংক বা এডিবির মতো দারিদ্র বিমোচন কিংবা মানবসম্পদ উন্নয়নে এআইআইবির আগ্রহ নেই বলে জানান জিন লিকুন।

উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে বাংলাদেশ এশিয়ান ইনফ্রাস্ট্রাকচার ইনভেস্টমেন্ট ব্যাংকের (এআইআইবি) কাছে নয়টি মেগা প্রকল্পে বিনিয়োগ করার প্রস্তাব দিয়েছে। প্রকল্পের মধ্যে রূপপুরে ১২ বিলিয়ন, পদ্মাসেতুতে ৩ বিলিয়ন, এলএনজির জন্য ২ বিলিয়ন, সোনাদিয়া গভীর সমুদ্র বন্দরের জন্য ৪ বিলিয়ন, মাতারবাড়ী কয়লাভিত্তিক বিদ্যুত প্রকল্পে আড়াই বিলিয়ন, রামপাল বিদ্যুত প্রকল্পে ২ বিলিয়ন এবং মেট্রোরেল প্রকল্পের জন্য ২ বিলিয়ন ডলার প্রদানের প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। আগামী ২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে এআইআইবির একটি বোর্ড মিটিং হবে। ওই মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত হবে সংস্থাটি বাংলাদেশের এসব প্রকল্পে অর্থায়ন করে কিনা।