১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

রাজশাহীর মাঠে মাঠে আলু চাষে ব্যস্ত কৃষক

  • ভাল দাম পেয়ে নতুন উদ্যম

মামুন-অর-রশিদ, রাজশাহী ॥ পর্যাপ্ত সার ও বীজ সরবরাহ থাকায় এবার নতুন উদ্যমে আলু চাষে মাঠে নেমেছে রাজশাহীর কৃষক। ভাল দাম পাওয়ার আশায় এবারও ব্যাপকভাবে আলু চাষে নেমেছেন কৃষকরা।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতর সূত্র জানায়, গত বছর জেলায় আলু চাষ হয়েছিল ৩৬ হাজার ৯১৫ হেক্টর জমিতে। গতবারের মতো এবারও আলুচাষের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে। ইতোমধ্যে জেলার তানোর, মোহনপুর, পবা, দুর্গাপুর ও বাগমারার কৃষকরা আগাম ধান কেটেই আলুর জন্য জমি প্রস্তুত শুরু করেছেন। এরই মধ্যে অনেকে আলু রোপণ করে ফেলেছেন।

গেলবার অন্যান্য সবজির মতোই আলুতেও কাক্সিক্ষত লাভ পেয়েছেন জেলার আলুচাষী ও ব্যবসায়ীরা। পবা, মোহনপুর, বাগমারা, তানোর, গোদাগাড়ি ও দুর্গাপুরের যে কোন মাঠে এখন আলু ক্ষেতের কাজেই ব্যস্ত কৃষক। কোন জমিতে জৈব সার দেয়া হচ্ছে। আবার কোন জমিতে জমিতে চলছে আলুবীজ রোপণের কাজ। আলুচাষে সফল মোহনপুর উপজেলার মৌগাছি গ্রামের নুরুল ইসলাম, খাঁড়ইল গ্রামের কামরুল বিশ্বাস ও তানোরের মোহাম্মাদ আলী বলেন, এ অঞ্চলে আলু এখন অন্যতম অর্থকরী ফসল। মৌসুমের নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই আলু রোপণ করতে না পারলে ভাল ফলন পাওয়া যায় না। তাই রাতদিন আলুচাষীদের আলুকাটা, আলুর জমি চাষ, রোপণ এবং সেচ নিয়ে ব্যস্ত থাকতে হয়। তারা বলেন আলুচাষ রিস্কি ফসল। আবহাওয়ার ওপর নির্ভর করে। তবে এবার শুরুতেই আলুচাষের আবহাওয়া রয়েছে বলে জানান তারা।

চাঁপাইয়ে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযানে হামলা

স্টাফ রিপোর্টার, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ॥ রেলের জায়গায় তৈরি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলাকালে সোমবার দুপুরে হামলা চালায় স্থানীয় জনতা। এ সময় পুলিশ প্রায় ৪০ রাউন্ড শটগানের গুলিবর্ষণ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সোমবার দুপুর পর্যন্ত দুই শতাধিক বাড়িঘর-দোকানপাটসহ অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। এক পর্যায়ে দুপুর ১২টার দিকে মহানন্দা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় দোকান উচ্ছেদের সময় এক কিশোর ইটের নিচে চাপা পড়েছে অভিযোগ তুলে স্থানীয় জনতা অভিযান পরিচালনাকারীদের ওপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করে। এ সময় বুলডোজারটিতে আগুন দেয়া হয়।

শীতলক্ষ্যা তীরে উচ্ছেদ

নিজস্ব সংবাদদাতা, নারায়ণগঞ্জ থেকে জানান, শীতলক্ষ্যা নদীর পশ্চিম তীরে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছে বিআইডব্লিউটিএ। নদীর তীরের এক কিলোমিটার এলাকার শতাধিক কাঁচা-পাকা স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। ওই উচ্ছেদ অভিযানে ভেকু দিয়ে সকল অবৈধ স্থাপনা ভেঙে ফেলা হয়।