১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

গাজীপুরে স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসি

নিজস্ব সংবাদদাতা, গাজীপুর ॥ গাজীপুরে পারিবারিক কলহের জের ধরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার দায়ে স্বামীর ফাঁসিতে মৃত্যুর দন্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে তাকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। মঙ্গলবার গাজীপুরের জেলা জজ এ কে এম এনামুল হক এ আদেশ প্রদান করেন। রায় ঘোষণা কালে আসামি জালাল উদ্দিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার চরখিড়াটি গ্রামের সিরাজ উদ্দিনের ছেলে জালাল উদ্দিনের (২৫) সঙ্গে ফরিদপুরের নগরকান্দা থানার মীরের গ্রামের ইউনুস মাতব্বরের মেয়ে কাকলী বেগমের (১৯) বিয়ে হয়। পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে বিয়ের পর থেকে স্ত্রী ও স্বামীর মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া বিবাদ হতো। এর জের ধরে ২০০৯ সালের ২২ এপ্রিল রাতে নিজ ঘরে স্বামী জালাল উদ্দিন তার স্ত্রী কাকলীকে শারিরিক নির্যাতন করে। এক পর্যায়ে কাকলীকে তার স্বামী ঘুমের ঔষধ খাইয়ে দুই হাত ও দুই পা রশি দিয়ে চৌকির সঙ্গে বেঁধে মুখে বালিশ চাপা দিয়ে এবং ওড়না পেঁচিয়ে শ^াসরোধে হত্যা করে। এ ঘটনার পর স্থানীয় লোকজন জালালকে আটক করে পুলিশের সোপর্দ করে। জালাল আদালতে ১৪৪ ধারায় স্ত্রীকে হত্যায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

ঘটনার পর দিন নিহত কাকলীর পিতা ইউনুস মাতুব্বর বাদী হয়ে কাপাসিয়া থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। কাপাসিয়া থানার এস আই আজিজুল হক তদন্ত শেষে একই বছরের ১৪ অক্টোবর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালতে ১৫ জন সাক্ষী সাক্ষ্য প্রদান করেন। দীর্ঘ শুনানীর পর বিজ্ঞ আদালত মঙ্গলবার দুপুরে জালাল উদ্দিনকে দোষী সাব্যস্ত করে মৃত্যু না হওয়া পর্যন্ত ফাঁসিতে ঝুলিয়ে রেখে মৃত্যুদন্ড কার্যকরের আদেশ প্রদান করেন। একই সাথে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন সরকারী পিপি এডভোকেট হারিছ উদ্দিন আহমদ ও আসামীপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন এডভোকেট ফখরুদ্দিন আকবরী।