২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

টঙ্গীতে ঝর্ণা আক্তারের কাজে মুগ্ধ রানী ম্যাক্সিমা

টঙ্গীতে ঝর্ণা আক্তারের কাজে মুগ্ধ রানী ম্যাক্সিমা

নিজস্ব সংবাদদাতা, টঙ্গী ও গাজীপুর, ১৭ নবেম্বর ॥ নেদারল্যান্ডসের রানী ম্যাক্সিমা মঙ্গলবার গাজীপুর ও টঙ্গীতে ব্যস্ত সময় কাটিয়েছেন। তিনি এদিন সকালে টঙ্গীর একটি গার্মেন্ট, একটি ফ্যাশন হাউস এবং শ্রীপুরের রাজাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টার পরিদর্শন করেন। এ সময় ব্র্যাকের চেয়ারম্যান ফজলে হাসান আবেদ, গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এস,এম আলম ও পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, রানী ম্যাক্সিমা সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সড়কপথে টঙ্গীর সাতাইশ এলাকার ভিয়েলাটেক্স গার্মেন্ট কারখানা পরিদর্শন করেন। সেখানে তিনি কারখানার কর্মকর্তা ও শ্রমিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। এ সময় তিনি বিকাশের মাধ্যমে শ্রমিকদের কিভাবে বেতন দেয়া হয় সে বিষয়টি জানেন। পরে ভিয়েলাটেক্স গার্মেন্ট কারখানা থেকে শ্রীপুরের রাজাবাড়িতে যান তিনি। এরপর বেলা সাড়ে ১০টার দিকে রানী রাজাবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদে পৌঁছান। সেখানে রানী ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার পরিদর্শন করেন এবং কিভাবে প্রত্যন্ত গ্রামের সাধারণ মানুষ ইউনিয়ন পরিষদের মাধ্যমে সরকারের বিভিন্ন নাগরিক সেবা ও সুবিধা পাচ্ছেন সে কার্যক্রমও প্রত্যক্ষ করেন। পরিদর্শন শেষে রানী ম্যাক্সিমা ব্র্যাক ব্যাংকের বিকাশ ব্যাংক এজেন্ট এবং বিকাশের উপকার ভোগীদের সঙ্গে কথা বলেন।

দুপুরে তিনি টঙ্গীর দত্তপাড়ায় ব্র্যাক ব্যাংকের এসএমই ঋণগ্রহীতা ঝর্ণা আক্তারের ‘ঝর্ণা ফেব্রিক্স এ্যান্ড ফ্যাশন হাউস’ পরিদর্শন করেন। ওই নারী উদ্যেক্তা ঋণ নিয়ে কিভাবে ব্যবসায় সফলতা পেয়েছেন সে কথা ঝর্ণা আক্তারের মুখ থেকেই রানী শোনেন। এসময় শত শত উৎসুক মহিলা ও জনতা রানীকে দেখতে আশপাশ এলাকায় ভিড় জমান। উল্লেখ এর আগে ঝর্ণা আক্তারের তৈরি একটি পোশাক রানীর হাতে পৌঁছে। এরপর রানী ম্যাক্সিমা ঝর্ণা আক্তারের ছোট্ট পরিসরে গড়ে ওঠা ফ্যাশন হাউসে আসার ইচ্ছা পোষণ করেন। এ সময় রানী ঝর্ণা আক্তারের ঝর্ণা ফেব্রিক্স এ্যান্ড ফ্যাশনের কাজে মুগ্ধ হয়ে বিশাল অংঙ্কের পোশাক তৈরির অর্ডারের ফরমাস দিবেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।