২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

যুদ্ধাবস্থায় ফ্রান্স ॥ ওলাঁদ

  • ওয়ারেন্ট ছাড়াই তল্লাশি ও গৃহবন্দী রাখার ক্ষমতা চেয়ে সংবিধান সংশোধনের আহ্বান

ফ্রান্স এখন যুদ্ধাবস্থায় আছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ। সোমবার ভার্সাই প্রাসাদে পার্লামেন্ট সদস্যদের প্রতি অনেকটা নজিরবিহীনভাবে দেয়া এক ভাষণে তিনি একথা বলেছেন। ফ্রান্সের কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, আক্রমণকারীরা সিরীয় পাসপোর্ট দেখিয়ে শরণার্থী পরিচয় দিয়ে গত মাসে গ্রিস হয়ে ফ্রান্সে ঢুকেছিল। খবর এএফপি ও নিউইয়র্ক টাইমস অনলাইনের।

পুলিশ যেন কোন ওয়ারেন্ট ছাড়াই কারও বাসায় তল্লাশি চালাতে পারে এবং প্রয়োজনে যে কাউকে গৃহবন্দী করে রাখতে পারে সেলক্ষ্যে দ্রুত সংবিধান সংশোধনের জন্য কাজ করার জন্য ওলাঁদ পার্লামেন্টের প্রতি আহ্বান জানান। তিনি দেশের ভেতর ইসলামী চরমপন্থীদের উত্থান রোধ এবং দেশের বাইরে ইসলামিক স্টেটকে (আইএস) নিশ্চিহ্ন করতে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার সংকল্প ব্যক্ত করেন। পার্লামেন্টের যৌথ অধিবেশনের উদ্বোধনী ভাষণে ওলাঁদ বলেন, ফ্রান্স এখন যুদ্ধাবস্থায় রয়েছে। সরকারের নজরদারি ক্ষমতা কিভাবে আরও বাড়ানো যায় সে ব্যাপারে তিনি আদালতের পরামর্শ চাইবেন বলে জানিয়েছেন।

শুক্রবার রাতে প্যারিসের বাক্লাঁ থিয়েটারসহ কয়েকটি স্থানে একযোগে চালানো বন্দুক হামলায় ১৩২ জন নিহত ও সাড়ে ৩শ’য়ের বেশি লোক আহত হন। এ হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে ২৭ বছর বয়সী বেলজিয়ামের নাগরিক আবদেল হামিদ আবাউদকে চিহ্নিত করা হয়েছে। যার সঙ্গে সিরিয়ার আইএস ও কয়েকটি সন্ত্রাসী হামলার সংশ্লিষ্টতা আছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সোমবার ফ্রান্সের বিভিন্ন স্থানে এবং বেলজিয়ামেও সম্ভাব্য হামলাকারীদের সন্ধানে তল্লাশি অব্যাহত ছিল। ঘটনার সঙ্গে জড়িত সন্দেহে এ পর্যন্ত ২৩ জনকে আটক ও ১০৪ জনকে গৃহবন্দী করেছে। পুলিশের তল্লাশি অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে ফরাসী প্রধানমন্ত্রী ম্যানুয়েল ভালস্্ এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বার্নার্ড সাজেনুভ জানিয়েছেন। যেসব ফরাসী নাগরিকের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকা-ে জড়িত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া যাবে তাদের নাগরিকত্ব বাতিল করার ক্ষমতা ওলাঁদ পার্লামেন্টের কাছে চেয়েছেন। ওলাঁদ বলেন, মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গী সংগঠন আইএসকে তারা ধ্বংস করবেন। আইএসের বিরুদ্ধে ইরাক এবং সিরিয়ায় বিমান হামলা জোরদার করা হচ্ছে। সিরিয়ায় অভিযানে সহায়তার জন্য পূর্ব ভূমধ্যসাগরে বিমানবাহী ফরাসী রণতরী চার্লস দ্য গল পাঠানো হচ্ছে বলে তিনি জানিয়েছেন। ২৬টি জঙ্গীবিমান বহনক্ষম পরমাণু শক্তিচালিত রণতরীটি বৃহস্পতিবার ভূমধ্যসাগরের উদ্দেশে রওনা দেবে। অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তা বাড়াতে আরও দুই হাজার অতিরিক্ত পুলিশ নিয়োগ এবং জরুরী অবস্থার মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ানো হবে বলে তিনি ঘোষণা দেন। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে উল্লেখ করে ওলাঁদ বলেন, যেসব বিদেশী তাদের নিরাপত্তার জন্য হুমকি তাদের চিহ্নিত করে দেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত করা হবে। তিনি বলেন, এসব কাপুরুষ আক্রমণকারীদের চেয়েও অনেক শক্তিশালী প্রতিপক্ষের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে আমাদের গণতন্ত্র টিকে রয়েছে। আইএস নির্মূলে ঐক্যবদ্ধ অবস্থান নিয়ে আলোচনার জন্য তিনি শীঘ্রই মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলে জানিয়েছেন।