২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে দর্শক জোয়ার

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কে বলে ঢাকার ফুটবলে দর্শক হয় না? কে বলে ঢাকার মানুষ ফুটবলবিমুখ? মঙ্গলবার ২৫ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে গিয়ে কিন্তু এমনটা মনে হয়নি। ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচটি উপভোগ করতে বঙ্গবন্ধুতে নেমেছিল দর্শকদের ঢল। সংখ্যাটা ছিল প্রায় ২৩ হাজার! অথচ দিনটা কিন্তু ছুটির দিন ছিল না! তারপরও দর্শকের কোন কমতি হয়নি।

ম্যাচ শুরু হওয়ার পরও মাঠে ঢুকতে দেখা গেছে দর্শকদের। প্রত্যাশিত ‘সোনার হরিণ’, মানে টিকেট না পেয়ে স্টেডিয়ামের বাইরেও দাঁড়িয়ে ছিল কমপক্ষে পাঁচ হাজার দর্শক! ম্যাচে বাংলাদেশ হেরেছে। কিন্তু প্রতি মুহূর্তেই প্রিয় দলের সমর্থনে দর্শকদের প্রাণ খুলে গলা ফাটিয়েছে। এদিন নজর কেড়েছে কিছু অস্ট্রেলীয় দর্শকও। সংখ্যায় কম হলেও হলুদ জার্সি পরে আর স্বদেশী পতাকা হাতে ভালই আনন্দ করেছে তারা।

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সর্বশেষ এমন দর্শক জোয়ার দেখা গিয়েছিল গত ডিসেম্বরে বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ফুটবলের ফাইনালে। যে ম্যাচে বাংলাদেশ মুখোমুখি হয়েছিল মালয়েশিয়া যুব দলের। ম্যাচে শেষ মুহূর্তে গোল খেয়ে ৩-২ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ।

রাশিয়া বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া। গত সেপ্টেম্বরে পার্থে এ্যাওয়ে ম্যাচে এই অস্ট্রেলিয়ার কাছেই ৫-০ গোলে হেরেছিল বাংলাদেশ। ফলে ফিরতি ম্যাচে মঙ্গলবার এই ম্যাচের ফল কি হবে তা সহজেই অনুমেয়। তারপরও ম্যাচটি নিয়ে দর্শকদের আগ্রহের কমতি ছিল না। প্রথমবারের মতো অস্ট্রেলিয়ার মতো দলের সঙ্গে ঘরের মাঠে খেলা। আবার অস্ট্রেলিয়া চারবার বিশ্বকাপ খেলেছে। বর্তমান এশিয়া চ্যাম্পিয়ন তারাও। ফলে সকারুদের দেখার জন্যও দর্শকের আগ্রহ থাকাটাই ছিল স্বাভাবিক।

মুগদাপাড়া থেকে আসা স্কুল বালক তামীম হাসান ইফতি গেটে ঢুকতে ঢুকতে বললেন, ‘অস্ট্রেলিয়া শক্তিশালী দল, তা জানি। তবে এমন একটি বিশ্বমানের দল আমাদের মাঠে খেলবে ব্যাপারটি অন্যরকম। হার-জিত মুখ্য নয়, দল ভাল খেলবে, এমন আশাই আমাদের। হারলেও বাংলাদেশের সঙ্গেই আছি এবং থাকবো আমরা।’

নিরাপত্তার কারণে গেটে আইনশৃংখলা বাহিনীর কড়াকড়ি ছিল। শুধু মোবাইল ফোন ছাড়া আর কিছু নিয়ে স্টেডিয়ামে ঢুকতে পারেননি কেউই। তবে কেউ কেউ অনেক অনুরোধ করে বড় জাতীয় পতাকা নিয়ে ঢুকেছেন মাঠে। তা খানিক পর দুলিয়ে দুলিয়েই লাল-সবুজের নিজ দলের সমর্থন দিয়ে গেছেন তারা।

নির্বাচিত সংবাদ