২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

বিশ্ব ধ্বংসযজ্ঞে আইএস

সিরিয়া ও ইরাকের উগ্রপন্থী সুন্নী জঙ্গী গোষ্ঠী আইএস বিশ্বজুড়ে ধ্বংসযজ্ঞে মেতে উঠেছে। বিগত দু’সপ্তাহে সংগঠনটি প্যারিস বৈরুত-বাগদাদ-সিনাই উপত্যকায় গুলিবর্ষণ ও আত্মঘাতী বোমা হামলায় চারশোর বেশি মানুষ হত্যা করে। এসব হামলার প্রত্যকটির দায় স্বীকার করেছে আইএস। যদিও সিনাই উপত্যকায় রুশ বিমান বিধ্বংস হওয়ার ঘটনায় আইএস সংশ্লিষ্টতা মেনে নিতে নারাজ রাশিয়া। আইএস অধ্যুষিত সিরিয়ায় রুশ বিমান হামলার প্রতিশোধ নিতেই এই বিমান হামলা।

অন্যদিকে প্যারিসে হামলার কারণ হিসেবে ফ্রান্সের আইএসবিরোধী জোট অংশগ্রহণকে দায়ি করে সংগঠনটি। আর বৈরুতে হামলার লক্ষ্যবস্তু ছিল হিযবুল্লাহ। হাসান নাসরুল্লাহর এই শিয়া মিলিশিয়া বাহিনী সিরিয়ায় বাশার আল আসাদের পক্ষ হয়ে যুদ্ধ করছে। অন্যদিকে বাগদাদ হামলার লক্ষ্যবস্তু ছিল শিয়া মতালম্বী। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইরাকে আন্তঃধর্মীয় সংঘাত সৃষ্টিই তাদের লক্ষ্য। প্যারিসে ভয়াবহ হামলার পর ফ্রান্স আইএস লক্ষ্যবস্তুতে বিমান হামলা চালিয়েছে। পাশাপাশি রুশ বিমান হামলাও বেশ কাহিল সংগঠনটি। গেল সপ্তাহে ইরাকের কুর্দি বাহিনীর হাতে সিনজার প্রদেশ ক্ষুইয়েছে আইএস। সিরিয়ার বাশার বাহিনীর হামলাও তাদের পিছু হটতে বাধ্য করছে। বর্তমানে আইএস সিরিয়া ও ইরাকের ভূখ- থেকে বিতাড়িত হলেও বেশ সফলভাবে এই ধারা ছড়িয়ে দিয়েছে বিশ্বে। ইউরোপে আশ্রয় নেয়া শরণার্থীদের ভিড়েও তাদের চার হাজার প্রশিক্ষিত যোদ্ধা রয়েছে বলে দাবি করে আইএস।

চলমান ডেস্ক

গণমাধ্যমের সমালোচনায় জেরিমি করবিন

লেবার পার্টির বামপন্থী নেতা জেরেমি করবিন মূলধারার গণমাধ্যামের ব্যাপক সমালোচনা করেছেন। লেবানন ও তুরস্কে হামলার ঘটনা গণমাধ্যমে গুরুত্বসহকারে প্রকাশ না হওয়ায় তিনি এ সমালোচনা করেন। জেরেমির দাবি, প্যারিসের ঘটনা যতটা ফলাও করে পরিবেশন করা হয়েছে, বিশ্বের অন্যত্র ঘটে যাওয়া সন্ত্রাসী হামলা ঠিক ততটা গুরুত্বসহকারে প্রকাশ করা হয় না। উল্লেখ্য, প্যারিসে ঘটে যাওয়া সন্ত্রাসী হামলার একদিন আগে বৈরুতে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৪২ জন এবং তুরস্কে গত মাসে বোমা হামলায় ১০২ জন মৃত্যুবরণ করেন। জেরেমি মনে করেন, প্রতিটি মানুষের জীবনের মূল্য সমান। তা ইউরোপের মধ্যেই হোক আর বাইরেই হোক। সূত্র : গার্ডিয়ান