২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

সাড়া জাগানো ফুটবল দলবদল!

  • রোনাল্ডো-মরিনহো পিএসজিতে ;###;মেসি ইপিএলে ;###;রুনি লা লিগায় ;###;এল ক্ল্যাসিকো খেলার আশায় বার্সিলোনার আর্জেন্টাইন তারকা

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ গুঞ্জনটা অনেক দিনের। তবে ক্রমশই তা ডালপালা ছড়াচ্ছে। স্প্যানিশ লা লীগায় অধ্যায় শেষ হয়ে যাচ্ছে সময়ের দুই সেরা তারকা লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর! আগেও বেশ কয়েকবার এমন খবর রটেছে। সম্প্রতি আবারও এই সংবাদে সরগরম হয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম।

শুধু রোনাল্ডো-মেসিতেই থেমে নেই গুঞ্জন। শোনা যাচ্ছে, ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগ ছেড়ে স্প্যাানিশ লীগে যেতে পারেন ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা ওয়েন রুনি। আবার চেলসির কোচ পদ থেকে ফরাসী ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনে নাম লেখাতে পারেন পর্তুগীজ লৌহমানব জোশে মরিনহো।

রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়বেন রোনাল্ডো। এমন খবর এখন হরহামেশাই শোনা যায়। কিছুদিন আগেও চাউর হয়েছে, পিএসজিতে যাবেন সি আর সেভেন। আরও একবার বিষয়টি আলোচনায় এসেছে। ফ্রান্সের সাবেক ফুটবলার ডেভিড গিনোলা সোমাবার সাক্ষাতকারে বলেছেন, রোনাল্ডো শীঘ্রই প্যারিসে আসবেন। সেই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন বর্তমানে চেলসির কোচ মরিনহোও পিএসজিতে আসতে পারেন। গিনোলা বলেন, আমি দেখতে পাচ্ছি রোনাল্ডো আগামী বছর পিএসজিতে আসছে। কারণ তার আরও অনেক বেশি অর্থের প্রয়োজন। যা পিএসজি দিতে প্রস্তুত। এখানে এসে সে চ্যাম্পিয়ন্স লীগও জিততে চাইবে। সি আর সেভেনের পাশাপাশি মরিনহোরও কোচ হয়ে আসার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী।

বার্সিলোনার সঙ্গে হৃদয়ের বন্ধন মেসির। সেই শৈশব থেকে ক্যাটালান ক্লাবটিতে খেলেই হয়েছেন বিশ্বসেরা ফুটবলার। হরমোনজনিত সমস্যার কারণে যখন জীবন নিয়ে টানাপোড়েন সৃষ্টি হয়েছিল ক্ষুদে এই জাদুকরের, তখন বার্সিলোনাই এগিয়ে এসেছিল। বার্সার তৎকালীন ক্রীড়া পরিচালক কার্লোস রেক্সাস চুক্তি করেন মেসির সঙ্গে। তারপর থেকেই রূপকথার উত্থান আর্জেন্টাইন তারকার। এ কারণে সংখ্যাগরিষ্ঠের ধারণা বার্সিলোনা ছেড়ে কোথাও যাবেন না মেসি। এমন কথা ২৮ বছর বয়সী ফরোয়ার্ড অনেকবারই বলেছেন।

তবে মাঝে মধ্যেই প্রাণের ন্যুক্যাম্প ছাড়ার গুঞ্জন শোনা গেছে মেসির। মাসকয়েক আগে চাউর হয় ফরাসী ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনে নাম লেখাতে পারেন। মাঝেমধ্যে ইংল্যান্ডে আসার কথাও শোনা যায়। গত অক্টোবরে এমন কথা শোনা যায়। এবার আরেকবার এই কথাটি বাজারে রটেছে। বাজিকর প্রতিষ্ঠান স্কাইবেট ভালভাবেই দেখতে পাচ্ছে মেসির নতুন ঠিকানা প্রিমিয়ার লীগ! এর আগে স্পেনের সাংবাদিক গুইলেম বালাগেও বলেছেন, ভবিষ্যতে ইংল্যান্ডে আসতে পারেন মেসি। সেক্ষেত্রে স্পেন ছেড়ে তার নতুন ঠিকানা হতে পারে চেলসি, ম্যানচেস্টার সিটি কিংবা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। মেসির বার্সা ছাড়া প্রসঙ্গে গুইলেম বলেন, এটা অনেক কাছাকাছি এসে গেছে যে সে বার্সিলোনা ছাড়ছে। কেন ন্যুক্যাম্প ছাড়বেন সে বিষয়েও ধারণা দিয়েছেন তিনি। তার মতে, স্পেনে বর্তমানে অস্থির সময় কাটাচ্ছেন মেসি। বার্সার হয়ে গোলের পর গোল ও রেকর্ডের পর রেকর্ড গড়লেও কর ফাঁকি মামলা নিয়ে ঝামেলায় আছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক। এই বিষয়টি মেসিকে নুক্যাম্প ছাড়ার সিদ্ধান্তে প্রভাবিত করছে বলে মনে করছেন অনেকে।

কর ফাঁকির এই ঝামেলায় মেসিকে ঠিকানা পরিবর্তন করতে প্রভাবিত করছে বলে শোনা যাচ্ছে। এমন সম্ভাবনার কারণে সঙ্গত কারণেই নড়েচড়ে বসেছে ইউরোপের সব ফুটবলের পরাশক্তিরা। আগ্রহী ক্লাবগুলোর তালিকায় শীর্ষে আছে চেলসি। ব্লুজদের পাশাপাশি আর্সেনাল, ম্যানইউ, ম্যানসিটিও তালিকায় আছে। বাজিকর প্রতিষ্ঠান স্কাইবেটের চেলসির পক্ষে বাজির দর ৮/১। দ্বিতীয় স্থানে আর্সেনালের পক্ষে বাজির দর ১২/১। ম্যানচেস্টার সিটির পক্ষে সম্ভাবনা ১৮/১। এরপর আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ১৮/১, জার্মান ক্লাব বেয়ার্ন মিউনিখ (২০/১), ফরাসী ক্লাব প্যারিস সেইন্টজার্মেইন (২২/১) ও ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস (২৫/১)।

এদিকে লা লীগার প্রধান জ্যাভিয়ের টেবাস মেসি ও রোনাল্ডোর স্পেন ছাড়ার গুঞ্জন নাকচ করে দিয়েছেন। তবে ম্যানইউ তারকা ওয়েন রুনি ও ডেভিড ডি গিয়াকে স্পেনে চান তিনি। সাক্ষাতকারে টেবাস বলেন, আমি চাই প্রিমিয়ার লীগের তারকা খেলোয়াড়রা লা লিগায় খেলুক। রুনি স্পেনে আসলে ব্যাপারটি দারুণ হবে। ডি গিয়া বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম সেরা গোলরক্ষক। তাকেও আমি স্প্যানিশ লীগে চাই। এ দু’জন ছাড়াও ইউরোপের অন্যান্য লীগেও বিশ্বমানের খেলোয়াড় আছে। এ তালিকায় ফ্রাঙ্ক রিবেরির নাম না বললেই নয়। এদিকে মেসির অনুশীলনে ফেরা আর বার্সিলোনার বিষয়টি গোপন করা নিয়ে স্পেনের ফুটবল অঙ্গনে বেশ কিছুদিন ধরে আলোচনা চলছে। অবশেষে স্পেনের ক্লাবটি আর্জেন্টাইন অধিনায়কের অনুশীলনে ফেরার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। টানা চারবারের ফিফা বর্ষসেরা তারকার অনুশীলনে ফেরার খবর অবশ্য এর আগেই দিয়েছিল স্পেনের সংবাদ মাধ্যম। লক্ষ্য একটাই আসন্ন এল ক্ল্যাসিকোতে খেলা। তবে সুস্থ হয়ে উঠলেও রিয়াল মাদ্রিদের বিরুদ্ধে ম্যাচে মেসির জায়গা হবে সাইডবেঞ্চেই। ধারণা করা হচ্ছে, এল ক্ল্যাসিকোর সর্বোচ্চ গোলদাতাকে শেষ ৩০ মিনিট খেলাতে পারেন বার্সা কোচ লুইস এনরিকে।