১৮ ডিসেম্বর ২০১৮  ঢাকা, বাংলাদেশ  
শেষ আপডেট এই মাত্র    
ADS

শুরুর অপেক্ষায় বিপিএল

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ আর মাত্র দুইদিন বাকি। আজ ও আগামীকাল যেতেই শুক্রবার বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগের (বিপিএল টি২০) পর্দা উঠবে। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান দিয়েই বিপিএলের তৃতীয় আসরের যাত্রা শুরু হয়ে যাবে। সেই অপেক্ষাই এখন করা হচ্ছে। জিম্বাবুইয়ে সিরিজ শেষে এখন বিপিএলই সবার মনে-প্রাণে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে মাঝখানে শনিবার একদিন বিরতি আছে। রবিবার থেকেই মাঠের লড়াই শুরু হবে। দুপুর ২টায় রংপুর রাইডার্স ও চিটাগাং ভাইকিংসের ম্যাচ দিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু হবে। একইদিন সন্ধ্যা পৌনে সাতটায় ঢাকা ডাইনামাইটস ও কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ম্যাচটিও শুরু হবে। শুরু হয়ে যাবে বিপিএলের তৃতীয় আসরের শিরোপা নিজেদের করে নেয়ার যুদ্ধও। ৬ দলের এ টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় দিনে সিলেট সুপার স্টারস ও বরিশাল বুলস ভিন্ন ভিন্ন ম্যাচে নিজেদের বিপিএল যুদ্ধে নামবেন।

এ টুর্নামেন্টে অংশ নিতে এরই মধ্যে দলগুলো প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে। কোন দল বিকেএসপিতে, কোন দল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের একাডেমি ভবনের মাঠে প্রস্তুতি নিচ্ছে। চিটাগাং ভাইকিংস সবার আগে প্রস্তুতি শুরু করেছে। দলটি বিকেএসপিতে ১১ নবেম্বর থেকেই প্রস্তুতি নেয়া শুরু করে। বিকেএসপিতে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের ক্রিকেটাররাও প্রস্তুত হয়েছে। এখন সবাই মিরপুরে ভিড়েছে। সিলেট সুপার স্টারস, রংপুর রাইডার্সের ক্রিকেটাররা মিরপুরের একাডেমি ভবনে অনুশীলন করছে। সবার চিন্তা একটাই, যেভাবে হোক বিপিএলের শিরোপা নিজেদের করে নিতে চায়।

২০১২ ও ২০১৩ সালে টানা দুইবার বিপিএল আয়োজন হয়। দুইবারই চ্যাম্পিয়ন হয় ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স। যে দলটির মালিকপক্ষ ম্যাচ গড়াপেটায় জড়িত থাকার অভিযোগে ক্রিকেট থেকে এখন নিষিদ্ধ আছেন। শাস্তি ভোগ করছেন। এ ম্যাচ গড়াপেটার কোন সমাধান না হওয়া পর্যন্ত বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) বিপিএল মাঠে গড়াতে চায়নি। অবশেষে তার সমাধান হয়েছে। মোহাম্মদ আশরাফুলের মত দোষীরা শাস্তিও পেয়েছেন। দুই বছর বন্ধের পর তাই আবার হতে চলেছে এ টুর্নামেন্ট। প্রথম আসরে ৬টি (ঢাকা, চিটাগাং, বরিশাল, সিলেট, রাজশাহী, খুলনা) ও দ্বিতীয় আসরে ৭টি দল (আগের ৬ দলের সঙ্গে রংপুর যুক্ত হয়) বিপিএলে অংশ নিলেও তৃতীয় আসরে এসে আবার ৬টি দল হয়ে যায়। এবার বিভাগ থেকে জেলায় ছড়িয়ে গেছে দল। যেমন ঢাকা, চিটাগাং, বরিশাল, সিলেট, রংপুরের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে কুমিল্লা। আগের সবকিছুরই এবার পরিবর্তন হয়ে যায়। দল কেনা কিংবা ক্রিকেটার দলে ভেড়ানোর ক্ষেত্রে কোন নিলাম পদ্ধতি ছিল না। বাদ দেয়া হয়েছে নিলাম। শুরুতে যারা বিপিএলে দল চালাতে আগ্রহী তাদের বিসিবির কাছে লিখিত আবেদন করতে বলা হয়েছে। নতুন-পুরনো মিলিয়ে ১২ থেকে ১৩টি প্রতিষ্ঠান আগ্রহ দেখায়। বিসিবি তখন জানায়, নতুন দলগুলোর ক্ষেত্রে সাড়ে ৫ কোটি টাকার (১ কোটি পে-অর্ডার ও সাড়ে ৪ কোটি ব্যাংক গ্যারান্টি) নিশ্চয়তা দিতে হবে। যেন ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক নিয়ে পরে কোন সমস্যা না হয়। আর পুরনো দলগুলোর ক্ষেত্রে নতুন শর্তের সঙ্গে পুরনো পাওনাও মিটিয়ে দিতে হবে।

নতুনদের মধ্যে এক্সিওম, ডিবিএল ও বেক্সিমকো এবং পুরনোদের মধ্যে রংপুর (আই স্পোর্টস) ও সিলেটের (রয়্যাল স্পোর্টস) মালিকপক্ষ সব শর্ত পূরণ করে। দল হয় ৫টি। শেষে গিয়ে গত আসরের বরিশালের (আলিফ গ্রুপ) মালিকপক্ষও শর্ত পূরণ করে। তিনটি নতুন ও তিনটি পুরনো দল শর্ত পূরণ করে। ৬ দল নিয়েই বিপিএলের তৃতীয় আসর করার ঘোষণা দেয় বিসিবি। সেই ঘোষণা অনুযায়ী ৬টি দলই বিপিএলে অংশ নিচ্ছে। তবে সিলেটের মালিকপক্ষ এবার কুমিল্লা দল নামে বিপিএলে অংশ নিচ্ছে। যেহেতু বরিশাল দলের মালিক দেরিতে বিপিএলে দল চালাতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে, তাই বরিশাল দলটি এক্সিওম আগেই নিয়ে নেয়। শেষে সিলেট চালাতে হচ্ছে বরিশালের মালিকপক্ষকে। বিপিএল গবর্র্নিং কাউন্সিল চাহিদা অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানগুলোকে দল দিয়েছে। বেক্সিমকো গ্রুপ পেয়েছে ঢাকা দলটি ও ডিবিএল পেয়েছে চিটাগাং দলটি। দলগুলোর মত ক্রিকেটারদের নিলামও এবার হয়নি। পারিশ্রমিকও নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। যেখানে দেশী আইকন ক্রিকেটারদের চেয়েও বিদেশী তারকা ক্রিকেটারদের দাম বেশি দেখা গেছে।

অবশ্য ‘প্লেয়ার্স বাই চয়েজে’ যে ক্রিকেটারকে একেক দলে ভেড়ানো হয়েছে, সেখানে একজনকে নিয়েই সবার আগ্রহ দেখা গেছে। সেই তিনি আর কেউ নন, বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ৬ আইকন ক্রিকেটারের মধ্যে সাকিবকে নিয়েই সব দল যেন আগ্রহী ছিল। কিন্তু লটারি ভাগ্যে সাকিবকে পেল রংপুর রাইডার্স। সবার আগে লটারিতে রংপুরের নামটিই ওঠে এবং কোন অপেক্ষা না করে তড়িঘড়ি সাকিবের নামটিই নেয় রংপুর রাইডার্সের মালিক মোস্তফা রফিকুল ইসলাম। কন্যা সন্তানের সঙ্গে কয়েকদিন সময় কাটিয়ে ২১ নবেম্বর ঢাকায় পৌঁছে সাকিব বিপিএলের প্রথম ম্যাচ থেকেই খেলবেন। সাকিবের আগমনের অপেক্ষা যেমন করা হচ্ছে, ঠিক তেমনটি বিপিএল শুরুর অপেক্ষাও করা হচ্ছে। সেই অপেক্ষা শুক্রবারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের জন্যও। বলিউডের তারকা অভিনেতা ঋত্মিক রোশন ও অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্দেজ যে মাতানোর অপেক্ষায় আছেন।